ঢাকা রোববার, ২৪ জানুয়ারি ২০২১, ১০ মাঘ ১৪২৭, ১০ জামাদিউস সানী ১৪৪২ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

সংসদীয় কমিটির অসন্তোষ

রমনা পার্ক উন্নয়ন প্রকল্প

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২ ডিসেম্বর, ২০২০, ১২:০০ এএম

রাজধানীর রমনা পার্কের অবকাঠামোগত উন্নয়ন ও সৌন্দর্য বর্ধন প্রকল্পের ধীরগতিতে অসন্তোষ প্রকাশ করেছে গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটি। গণপূর্ত বিভাগের প্রধান প্রকৌশলীকে উন্মুক্ত কফিশপ নির্মাণের জন্য ব্যব্স্থা নিতে বলা হয়।

গতকাল মঙ্গলবার জাতীয় সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন কমিটির সভাপতি ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন। বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন, কমিটি সদস্য গণপূর্ত প্রতিমন্ত্রী শরীফ আহমেদ, নারায়ণ চন্দ্র চন্দ, মো. জিল্লুল হাকিম, মো. মনোয়ার হোসেন চৌধুরী, আনোয়ারুল আশরাফ খান ও জোহরা আলাউদ্দিন এবং সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

কমিটি নকশা নিয়ে বিশেষজ্ঞদের সাথে বৈঠক করে দ্রুত বাস্তবায়ন ও শিশু পার্কের আধুনিকায়ন কাজ শেষ করার তাগিদ দিয়েছে। বৈঠকে কমিটির সভাপতি ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন বলেন, দীর্ঘদিন ধরে অর্থ বরাদ্দসহ নকশা প্রণয়নের কাজ চূড়ান্টত হলেও শুধু ওয়াকওয়ে নির্মাণের কাজ হয়েছে। পার্ক এলাকায় একটি চায়নিজ রেস্টুরেন্ট ও পার্টি সেন্টার থাকায় সেখানকার পরিবেশ নষ্ট হচ্ছে। বিশ্বের কোথাও বড় পার্কগুলোতে রেস্টুরেন্ট থাকার নজির নেই।

বৈঠকে গণপূর্ত বিভাগের প্রধান প্রকৌশলীকে উন্মুক্ত কফিশপ নির্মাণের জন্য ব্যব্স্থা নিতে বলা হয়। এছাড়া গণপূর্ত প্রতিমন্ত্রী শরীফ আহমেদও কাজটি দ্রুত শেষ করার ওপর তাগিদ দেন। প্রায় ৪৮ কোটি টাকা ব্যয়ে ২০১৮ সালের অক্টোবরে ওই প্রকল্প নেয়া হয়। চলতি বছরের ডিসেম্বরে এর কাজ শেষ হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু গত জুন পর্যন্ত এ কাজের অগ্রগতি হয়েছে মাত্র ১৫ শতাংশ।

কমিটি সূত্র জানায়, বৈঠকে গণপূর্ত অধিদপ্তর, রাজউক, জাতীয় গৃহায়ণ কর্তৃপক্ষ, চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ, কক্সবাজার উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ, রাজশাহী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ, খুলনা উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ এবং নগর উন্নয়ন অধিদপ্তরের চলমান প্রকল্পের সার্বিক কাজের অগ্রগতি ও ভবিষৎ পরিকল্পনা নিয়ে আলোচনা করা হয়। এ সময় পার্ক এলাকায় নকশা বহির্ভূত সকল স্থাপনা, জরাজীর্ণ ভবন ও রেস্টুরেন্ট ভেঙ্গে কফিশপ নির্মাণের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের সুপারিশ করা হয়।

বৈঠক শেষে কমিটির সদস্য জোহরা আলাউদ্দিন সাংবাদিকদের বলেন, আমরা এই প্রকল্পের কাজ দ্রুত শেষ করার জন্য বলেছি। প্রকল্পে কাজের নির্ধারিত সময় প্রায় শেষের পথে। এজন্য জোর তাগিদ দেয়া হয়েছে। সংসদ সচিবালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, বৈঠকে কমিটি কর্তৃক ঢাকার মিরপুরে আবাসিক ফ্ল্যাট স্বপ্ননগর আবাসিক প্রকল্প ১ ও স্বপ্ননগর আবাসিক প্রকল্প ২ এবং উত্তরার ৩য় ফেজে ফ্ল্যাট নির্মাণ প্রকল্পের কাজ পরিদর্শন এবং মিরপুরে বস্তিবাসীদের জন্য ভাড়াভিত্তিক নতুন প্রকল্প গ্রহণের সুপারিশ করে।

বৈঠকে রাজশাহীর আরডিএ মার্কেট ভেঙে নতুন করে নির্মাণের জন্য সিটি করপোরেশনের সাথে বৈঠক করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের সুপারিশ করা হয়। এছাড়া গুলশান-বনানী-বারিধারা লেক উন্নয়ন প্রকল্পের ব্যয় কমানোর জন্য বিশেষজ্ঞদের সাথে বৈঠক করার সুপারিশ করেছে কমিটি।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন