ঢাকা শুক্রবার, ১৬ এপ্রিল ২০২১, ৩ বৈশাখ ১৪২৮, ০৩ রমজান ১৪৪২ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

নারী দিবসে বেগুনি রঙ কেন?

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৮ মার্চ, ২০২১, ৪:৪২ পিএম

আজ ৮ মার্চ যখন বিশ্বজুড়ে নারী দিবস পালিত হচ্ছে। এ দিবসটি পালনে বেগুনি রঙের ব্যবহার লক্ষ্য করা যায়। কিন্তু এত রং থাকতে বেগুনি কেন? কিভাবে শুরু হল এই রঙের ব্যবহার?

দীর্ঘ সময় পর্যন্ত নারীদের অধিকার আদায়ের যুদ্ধ শুধু অভিজাত নারীদের মধ্যেই সীমাবদ্ধ ছিল। এরপর আমেরিকান লেখক অ্যালিস ওয়ার্কার আফ্রিকান আমেরিকান নারীদের বৈষম্য নিয়ে একটি বই লেখেন, নাম ‘দ্য কালার পার্পেল’ (বেগুনি রংটি) বইটির জন্য অ্যালিস প্রথম অশ্বেতাঙ্গ নারী হিসেবে পুলিৎজার পুরস্কার পান। বেগুনি জড়িয়ে আছে নারীর বাধা পেরিয়ে এগোনোর পথে। বিংশ শতকের শুরুতে ব্রিটেনের নারীরা যখন নিজেদের ভোটাধিকার আদায়ের জন্য পথে নেমেছিলেন, তারাও বেগুনি রংকেই প্রাধান্য দিয়েছিলেন। বেগুনির সঙ্গে তারা সাদা ও সবুজকে ব্যবহার করতেন নিজেদের অধিকারের কথা তুলে ধরতে। তাদের মতে, বেগুনি আভিজাত্যের প্রতীক, সাদা শুদ্ধতার এবং সবুজ আশার।

এরপর মূলত ২০১৮ সালে নারী দিবসের সঙ্গে বেগুনি রঙ ব্যবহারের প্রচলন শুরু হয়। এ বছরেই বিভিন্ন পণ্যে ব্যবহৃত রং নিয়ে কাজ করা আন্তর্জাতিক প্রতিষ্ঠান প্যানটোন বেগুনিকে বর্ষসেরা রঙের খেতাব দেয়। তবে এটি সাধারণ বেগুনি রঙ নয়, এটি হচ্ছে আল্ট্রাভায়োলেট রে বা অতিবেগুনি রশ্মি। মহাকাশের অজানার অস্তিত্ব বহনকারী রশ্মিকে সম্মান করতে বেগুনিকে বর্ষসেরা রঙের খেতাব দেওয়া হয়। প্যানটোনের ব্যাখ্যায়, বেগুনি মানে মহাকাশের মতো অসীম এবং তা থেকে নতুন কিছু পাওয়ার সম্ভাবনা।

প্যানটোনের দেয়া এই ধারণাই লুফে নেয় আন্তর্জাতিক নারী দিবস উদ্‌যাপন কর্তৃপক্ষ। বেগুনি ঠিক নারীর মতো, স্বাতন্ত্র্য, কৌতূহল ও দূরদর্শী চিন্তাভাবনার। অতিবেগুনি রশ্মিকে যেমন জানার অনেক বাকি আছে, নারীর সম্ভাবনাকেও—এমনই মত নারীর সমতা আদায়ে সচেষ্ট সব মানুষের। নারী অধিকারকর্মীরা মনে করেন, নারী যদি তার স্বাতন্ত্র্য দিয়ে সামনে এগিয়ে আসতে পারে, তবে পৃথিবীও পাবে নতুন কিছু। এখান থেকেই বেগুনি নারী দিবসের সঙ্গে মিলেমিশে যায়। তবে নীল ও লালের মিশ্রণের এই রঙের ব্যাপকতা আরও বেশি। নারীর অধিকার প্রতিষ্ঠার জন্য যারা কাজ করেছে, তারা বেগুনিকে আরও বহুবার ব্যবহৃত করেছে সমানাধিকারের প্রতীক হিসেবে।

গত তিন বছরের ধারাবাহিকতায় ২০২১ সালেও আন্তর্জাতিক নারী দিবস পালন করা হচ্ছে বেগুনি রঙে। কোভিড-১৯–এর বছরে জাতিসংঘ নারী দিবসের প্রতিপাদ্য নির্ধারণ করেছে ‘করোনাকালে নারী নেতৃত্ব, গড়বে নতুন সমতার বিশ্ব’। আরও একটি প্রতিপাদ্য নির্ধারণ করেছে স্বতন্ত্র ওয়েবসাইট ইন্টারন্যাশনাল ওমেনস ডে। তাদের প্রতিপাদ্য, ‘চুজ টু চেঞ্জ’ বা বদল চাই। সূত্র: ওমেনস ডে ওয়েব।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন