ঢাকা, শুক্রবার, ০৭ মে ২০২১, ২৪ বৈশাখ ১৪২৮, ২৪ রমজান ১৪৪২ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

আদালতে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ

কাদের মির্জার বিরুদ্ধে মামলা অস্থিতিশীলতার দায় ওবায়দুল কাদেরের সহধর্মিণীর : ফেসবুক লাইভে দাবি মির্জার

নোয়াখালীর ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ১৬ মার্চ, ২০২১, ১২:০২ এএম

কোম্পানীগঞ্জে আওয়ামী লীগের দু’পক্ষের সংঘর্ষে শ্রমিকলীগ কর্মী সিএনজি চালক আলাউদ্দিন হত্যাকান্ডের ঘটনায় বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আবদুল কাদের মির্জাকে প্রধান আসামি করে দায়েরকৃত মামলা আদালত আমলে নিয়েছে। গতকাল দুপুর ১টায় আলাউদ্দিনের ছোট ভাই এমদাদ হোসেন নোয়াখালী চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক এসএম মোসলেহ উদ্দিন মিজানের আদালতে এ মামলা দায়ের করা হয়।

এদিকে, বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে নিজের ফেইসবুক অ্যাকাউন্ট থেকে লাইভে এসে বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আবদুল কাদের মির্জা বলেছেন, আজকে কোম্পানীগঞ্জে অস্থিতিশীলতার জন্য দায়ী ওবায়দুল কাদের সাহেবের সহধর্মিণী। ওবায়দুল কাদের সাহেবের ওপর প্রভাব খাটিয়ে এই কাজ গুলো করছে।

এর আগে দুপুর ৩টায় আদালত আলাউদ্দিন হত্যায় দায়েরকরা মামলার ওপর শুনানি করে এবং আদালত ১৫ কার্যদিবসের মধ্যে কোম্পানীগঞ্জ থানায় এ হত্যাকান্ডের ঘটনায় কোন নিয়মিত মামলা রুজু হয়েছে কিনা এ বিষয়ে কোম্পানীগঞ্জ থানার ওসি কে প্রতিবেদন দিতে আদেশ দিয়েছে। মামলার বাদী পক্ষের আইনজীবী হারুনুর রশিদ হাওলাদার জানান, মামলায় কাদের মির্জাকে প্রধান আসামি করে তার ভাই সাহাদাত হোসেন ও ছেলে মাশরুর কাদের তাসিক মির্জাসহ ১৬৪ জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত আরও ৪০-৫০জনকে আসামি করা হয়েছে। শুনানিতে আদালত এ হত্যাকান্ডের ঘটনায় কোম্পানীগঞ্জ থানায় কোন নিয়মিত মামলা রুজু করা হয়েছে কিনা এ বিষয়ে কোম্পানীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) কে আগামী ১৫ কার্যদিবসের মধ্যে আদালতকে অবহিত করতে আদেশ দিয়েছে।

নিহতের ছোট ভাই মো. এমদাদ হোসেন জানান, ১১ মার্চ (বৃহস্পতিবার) বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আবদুল কাদের মির্জাকে প্রধান আসামিসহ ১৬৪ জনের বিরুদ্ধে কোম্পানীগঞ্জ থানায় হত্যা মামলার এজাহার দিয়েছিলাম। কিন্তু প্রধান আসামি মেয়র আবদুল কাদের মির্জার নাম বাদ না দেয়ায় শনিবার বিকেল পর্যন্ত পুলিশ এজাহারটি রেকর্ড করেনি।

উল্লেখ্য, পুলিশ মামলা না নেওয়ায় নিহত আলাউদ্দিনের পরিবারের পক্ষ থেকে ১২ মার্চ সন্ধ্যায় কোম্পানীগঞ্জের চর ফকিরা ইউনিয়নের চরকালি গ্রামের নিজ বাড়িতে সংবাদ সম্মেলন করেন। এ সময় তারা অভিযোগ করেন, মামলার প্রধান আসামি বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আবদুল কাদের মির্জার নাম বাদ দিলে মামলা নেওয়া হবে বলে তাদের জানানো হয়। পরে নাম বাদ না দেওয়ায় মামলা নেয়নি পুলিশ।

ফেইবুক লাইভে কাদের মির্জা : বাংলাদেশ আ.লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের ছোট ভাই বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আবদুল কাদের মির্জা গতকাল বিকালে বলেছেন, আজকে কোম্পানীগঞ্জে অস্থিতিশীলতার জন্য দায়ী ওবায়দুল কাদের সাহেবের সহধর্মিণী। ওবায়দুল কাদের সাহেবের ওপর প্রভাব খাটিয়ে এই কাজ গুলো করছে। তিনি বলেন, ফেনীর অপরাজনীতির হোতা নিজাম হাজারী আর নোয়াখালীর অপরাজনীতির হোতা একরাম চৌধুরী এবং তাদের সাথে যারা সহযোগিতা করতেছে। ঢাকাতে মন্ত্রীর পরিচয় দিয়ে মন্ত্রীর কথা বলে আজকে প্রশাসনকে প্রভাবিত করতেছে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন