মঙ্গলবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৬ আশ্বিন ১৪২৮, ১৩ সফর ১৪৪৩ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

এক মাসে সাড়ে ৮ লাখ কর্মসংস্থান

উচ্চ বেতনে কর্মী নিয়োগের হার বেড়েছে যুক্তরাষ্ট্রে

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৬ জুলাই, ২০২১, ১২:০১ এএম

যুক্তরাষ্ট্রে চাকরির বাজারে ঐতিহাসিক উন্নতি হয়েছে। গত এক মাসে দেশটিতে সাড়ে ৮ লাখ নতুন কর্মসংস্থান তৈরি হয়েছে। তবে এতে অবশ্য দেশটির বেকারত্বের হারে খুব বেশি প্রভাব পড়েনি। দেশটির শ্রম মন্ত্রণালয়ে তথ্যানুযায়ী জুন মাসে বেকারত্বের হার দাঁড়িয়েছে ৫ দশমিক ৯ শতাংশে। বিভিন্ন খাতে এখনো ৯৩ লাখেরও বেশি শূন্যপদ রয়েছে। এনডিটিভি এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, নতুন এই কর্মসংস্থান তৈরি হয়েছে দেশটির পানশালা, রেস্তোরাঁ, খুচরা ও শিক্ষা খাতে। নতুন কর্মীদের আগ্রহী করতে ম্যাকডোনাল্ডস ও চিপটলের মতো কোম্পানিগুলো তাদের ন্যূনতম মজুরি বাড়িয়েছে। জুনে প্রতি ঘণ্টায় গড় উপার্জন শূন্য দশমিক ৩ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে। বিশ্লেষকেরাও বলছেন, কর্মসংস্থান পরিসংখ্যান নির্দেশ করছে- মার্কিন অর্থনীতির পুনরুদ্ধার ভালো হচ্ছে। অপর এক খবরে বলা হয়, করোনা মহামারি থেকে পুনরুদ্ধারের সময়কালে যুক্তরাষ্ট্রে অন্তত ৮ লাখ ৫০ হাজার নতুন কর্মসংস্থানের সৃষ্টি হয়েছে। জুনে তৈরি হওয়া এ কর্মসংস্থান গত তিন মাসের তুলনায় যথেষ্ট বেশি। নতুন এসব কর্মসংস্থান সৃষ্টির ফলে বোঝা যায়, সংস্থাগুলো তাদের শূন্যস্থান পূরণ করতে কর্মীর প্রয়োজনীয়তা অনুভব করছে। খবর অ্যাসোসিয়েটেড প্রেস। শুক্রবার প্রকাশিত মার্কিন শ্রম বিভাগের এক প্রতিবেদনে দেখা যায়, কভিড-পরবর্তী সময়ে অর্থনীতি পুনরুদ্ধারের ফলে সংস্থাগুলো মহামারিকালীন সীমাবদ্ধতা ভালোভাবেই কাটিয়ে উঠছে। রেস্তোরাঁগুলোতে মহামারি-পূর্ববর্তী সময়ের মতো লোকজনের আনাগোনা বেড়েছে। আগের চেয়ে বেশি মানুষ কেনাকাটা, ভ্রমণ, খেলাধুলা ও বিনোদনে অংশ নিচ্ছে। পাশাপাশি আকাশপথে যাত্রী পরিবহনের পরিমাণও কভিড-পূর্ববর্তী সময়ের তুলনায় ৮০ শতাংশ উন্নীত হয়েছে। মার্কিন নাগরিকরা মনে করছেন, আগামী কয়েক মাসের মধ্যেই অর্থনীতি মহামারি-পূর্ববর্তী সময়ের মতো সম্প‚র্ণভাবে স্বাভাবিক হবে। প্রতিবেদনে আরো উঠে এসেছে, কর্মীরা চাকরির বাজারে উচ্চস্থানে অধিষ্ঠান যথেষ্ট উপভোগ করছেন, কোম্পানিগুলো কর্মীদের উচ্চ মজুরি দিয়ে অর্থনীতি পুনরুদ্ধারের ঝুঁকি গ্রহণ করছে। জুনে প্রতি ঘণ্টায় কর্মীদের পারিশ্রমিক এক বছর আগের তুলনায় ৩ দশমিক ৬ শতাংশ পর্যন্ত বেড়েছে। ফলে বর্তমানে মহামারি-পূর্ববর্তী সময়ের তুলনায় বার্ষিক বেতন বৃদ্ধি পাওয়ার হার যথেষ্ট বেশি বলে পরিলক্ষিত হয়েছে। অন্যদিকে নতুন নিয়োগপ্রাপ্ত কর্মীদের অনেকেই পূর্ণ সময়ের জন্য কাজে যোগদান করছে এবং খন্ডকালীন কর্মীদের অনেকেই পূর্ণ সময় কাজের প্রতি তাদের আগ্রহ প্রকাশ করছে, যা অর্থনীতিতে একটি ইতিবাচক ইঙ্গিত বহন করে। পরামর্শক প্রতিষ্ঠান আরএসএমের প্রধান অর্থনীতিবিদ জো ব্রুসেলস জানান, এমন অবস্থায় শ্রমিকদের দরকষাকষির যে ক্ষমতা তা উল্লেখযোগ্য হারে প্রতীয়মান হচ্ছে। তারা মনে করছে, মার্কিন অর্থনীতির আকার বৃদ্ধির ফলে তারা আরো ভালো বেতনে এবং আরো ভালো কোনো প্রতিষ্ঠানে তাদের কাজ খুঁজে পাবে। হোয়াইট হাউজ বলছে, মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন কর্মসংস্থান সৃষ্টিতে নজর রাখছেন। করোনা মহামারির প্রভাব কাটাতে মার্চে প্রণীত ১ লাখ ৯০ হাজার কোটি ডলারের প্রণোদনা কর্মীদের উচ্চ বেতনে চাকরি তৈরিতে আরো সাহায্য করবে। বাইডেন জানান, আমাদের পুনরুদ্ধারের শক্তি এ অবস্থাকে পাল্টাতে সহায়তা করবে। কর্মীরা চাকরির সন্ধানে একে অন্যের সঙ্গে প্রতিযোগিতায় লিপ্ত হওয়ার পরিবর্তে এখন কোম্পানিগুলো কর্মী নিয়োগে একে অন্যের সঙ্গে প্রতিযোগিতায় লিপ্ত হবে। প্রতিবেদনে দেখা যায়, যুক্তরাষ্ট্রে জুনে বেকারত্বের হার দাঁড়িয়েছে ৫ দশমিক ৯ শতাংশে, যা মে মাসে ছিল ৫ দশমিক ৮ শতাংশ। যদিও কভিড-পরবর্তী সময়ে চাকরির বাজারে যথেষ্ট কর্মসংস্থান তৈরি হচ্ছে। মহামারির পূর্বে দেশটিতে বেকারত্বের হার ছিল ৩ দশমিক ৫ শতাংশের বেশি। বর্তমানে যুক্তরাষ্ট্রের অর্থনীতিতে মহামারি-পূর্ববর্তী সময়ের তুলনায় ৬৮ লাখ কর্মসংস্থানের কমতি রয়েছে। নিয়োগ ও কর্মী সরবরাহকারী সংস্থা র্যান্ডস্ট্যাড নর্থ আমেরিকার প্রধান নির্বাহী কারেন ফিচাক বলেন, সাধারণত বেশি বেতনের প্রস্তাব দেয়া সংস্থাগুলো তাদের প্রয়োজন অনুযায়ী কর্মী খুঁজে পাচ্ছে। এনডিটিভি, রিপাবলিক ওয়ার্ল্ড, এপি।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন