বুধবার, ২০ অক্টোবর ২০২১, ০৪ কার্তিক ১৪২৮, ১২ রবিউল আউয়াল সফর ১৪৪৩ হিজরী

সারা বাংলার খবর

করোনার মধ্যে সবার বিয়ে হয়ে গেছে, ক্লাসে নার্গিস এখন একা

অনলাইন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৭ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ১১:১৫ এএম

করোনার কারণে দীর্ঘ সময় বন্ধ ছিলো স্কুল। স্কুল খোলার পর এখন নবম শ্রেণিতে নার্গিস নাহারই একমাত্র ছাত্রী। সে তার সব বান্ধবীকে হারিয়েছে ইতোমধ্যে। নবম শ্রেণির শিক্ষার্থী নার্গিস নাহার।অষ্টম শ্রেণিতে থাকা অবস্থায় নার্গিসসহ তার আটজন সহপাঠী ছিলেন। নার্গিস ও তার আট বান্ধবী অষ্টম শ্রেণি থেকে নবম শ্রেণিতে ভর্তিও হয়। কিন্তু লকডাউনের সময় স্কুল বন্ধ থাকা অবস্থায় একে একে নার্গিসের আটজন বান্ধবীর বিয়ে হয়ে যায়। তাই সে এখন একা ক্লাস করছে।

জানা যায়, কুড়িগ্রাম সদর উপজেলার হলোখানা ইউনিয়নের সারডোব উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির ছাত্রী নার্গিস।যার এখন কথা বলার কোনো সঙ্গী নেই।

করোনা মহামারীতে প্রায় দেড় বছর বন্ধ থাকার পর ১২ সেপ্টেম্বর স্কুল খুলেছে। স্কুল খোলার পর থেকে শুধু নার্গিস নাহারই ক্লাসে আসে। বান্ধবীদের ছাড়া মন খারাপের মধ্য দিয়েই স্কুলে সময় কাটছে তার।

নার্গিস জানান, “এখন শুধু আমিই বাকি রয়েছি। ক্লাসজুড়ে আমি শুধু একা। কারো সাথে কোনো কিছু শেয়ার করতে পারি না। তাই মন খারাপ করেই ক্লাস করতে হচ্ছে।”

নার্গিস আরও জানায়, বান্ধবীদের বিয়ে হয়ে গেছে।তাই আমার মধ্যেও অজানা শঙ্কা কাজ করছে। আমার শেষ পরিণতি কী হবে তাও অজানা। আমি আমার বাবা-মাকে অনুরোধ করেছি, আমাকে যেন হঠাৎ করে বিয়ে না দেয়। আমি পড়াশোনা শেষ করে চাকরি করে নিজের অবস্থা তৈরি করেই বিয়ে করব। এর আগে নয়। অন্যের বোঝা হয়ে থাকতে চাই না আমি।

সরেজমিন সারডোব উচ্চ বিদ্যালয়ে গিয়ে দেখা যায় ৯ম শ্রেণির ছাত্রী নার্গিস নাহার ক্লাস করছেন। এক পাশে ছাত্ররা এবং অন্য পাশে নার্গিস একা বসে আছেন।

স্কুলের প্রধান শিক্ষক ফজলে রহমান জানান, তার বিদ্যালয়ে ৬ষ্ঠ থেকে ১০ম শ্রেণি পর্যন্ত ২২৫ জন শিক্ষার্থীর মধ্যে ৬৩ জন ছাত্রী। এদের মধ্যে প্রায় ৮০ শতাংশ ছাত্রী এবং ৭০ শতাংশ ছাত্র বিদ্যালয়ে উপস্থিত হচ্ছে। বাকিদের খোঁজ খবর নিতে শিক্ষকদের নিয়ে একটি টিম গঠন করা হয়েছে।

“তারা বাড়ি বাড়ি গিয়ে বিদ্যালয়ে না আসার প্রকৃত কারণ তুলে ধরবেন। প্রাথমিক তথ্য মতে স্কুলের ১৮ জন ছাত্রীর বিয়ে হয়েছে। এর মধ্যে বিদ্যালয়ের ১০ম শ্রেণির চার জন ছাত্রীর মধ্যে জেসমিন ছাড়া বাকি তিন জনেরই বাল্যবিয়ে হয়েছে। ৯ম শ্রেণিতে নয় জনের মধ্যে নার্গিস ছাড়া আট জনের বিয়ে হয়েছে।”

এছাড়াও ষষ্ঠ শ্রেণির একজন, সপ্তম শ্রেণির দুজন, অষ্টম শ্রেণির চার জনকে পরিবার থেকে গোপনে বিয়ে দেওয়া হয়েছে বলে জানান ফজলে রহমান।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (8)
গন্তব্য হীন নোকা গন্তব্য ১৭ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ১২:২২ পিএম says : 0
ঐ দিকে ক্লাসের শিক্ষকরা নার্গিসকে বলেতেছে যে তোর বিয়েটাও হয়ে গেলে তো আমরা বেছে যেতাম, বাড়িতে বসে থেকে আর কয়েকদিন কাটাতে পারতাম।দিলে তো ঝামেলা করে"!
Total Reply(0)
Naib Al Emran ১৭ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ১২:২২ পিএম says : 0
নার্গিস কে একা রাখা ঠিক হবেনা৷ কোনো দয়াবানের উচিৎ তাকেও বিয়ে করা
Total Reply(0)
Rassell Zahid ১৭ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ১২:২৩ পিএম says : 0
নার্গিসের বাপ-মা র দোষে মেয়ে টা আজকে একা। দের বছরেও একটা পাত্র ম্যানেজ করতে পারলো না?
Total Reply(0)
Moshiur Rahman ১৭ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ১২:২৩ পিএম says : 0
যদি তোর ডাক শুনে কেউ না আসে তবে একলা চলরে।
Total Reply(0)
দ্বীনদার জীবনসঙ্গী ১৭ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ১২:২৫ পিএম says : 0
এর দ্বায় সরকারের। অকারণে লকডাউন, আর শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধের কারনেই মেয়েগুলোর লেখাপড়া ধ্বংস হয়ে গেলো।
Total Reply(0)
MD Aslam Hawladar ১৭ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ১২:২৪ পিএম says : 0
সব গুলার বাল্য বিবাহ হয়েছে, ওদের ধরে এনে আবার ইস্কুলে ভর্তি করানো উচিত,
Total Reply(0)
Burhan ১৭ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ২:৫৭ পিএম says : 0
Biye koratai sotik siddanto
Total Reply(0)
Burhan ১৭ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ২:৫৭ পিএম says : 0
Biye koratai sotik siddanto
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন