বুধবার, ১৮ মে ২০২২, ০৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ১৬ শাওয়াল ১৪৪৩ হিজরী

মহানগর

সঠিক পথে থাকলে আন্দোলনে সফলতা আসবেই: গয়েশ্বর চন্দ্র রায়

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২০ জানুয়ারি, ২০২২, ৮:৩২ পিএম | আপডেট : ৮:৩৬ পিএম, ২০ জানুয়ারি, ২০২২

জনগণের মনোভাব বুঝে সঠিক পথে থাকলে আন্দোলনে সফলতা আসবেই বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়। তিনি বলেন, আমাদের ভয় পাইলে চলবে না। মনে রাখতে হবে, অসুখ হলে ঔষধ খেলে সারে। কিন্তু ভয় পেলে ঔষধে কাজ করে না। শারীরিক শক্তি বৃদ্ধিতেও ঔষধ পাওয়া যায়। কিন্ত সাহস বৃদ্ধিতে বাজারে ঔষধ পাওয়া যায় না। জাতির মনোভাব বুঝে জিয়াউর রহমানের মতো সঠিক পথে থাকতে হবে। তাহলে মনে সাহস বাড়বে। জনগণের ঐক্যবদ্ধ শক্তি নিয়ে আমাদের ‘ডু অর ডাই’ আন্দোলন করতে হবে। তাহলে দেশে গণতন্ত্র ফিরবে, ভোটাধিকার প্রতিষ্ঠা করা যাবে।

বৃহস্পতিবার জাতীয় প্রেসক্লাবে বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের ৮৬তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে জাসাস’র উদ্যোগে আয়োজিত আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

এতে সভাপতিত্ব করেন জাসাস’র যুগ্ম আহবায়ক লিয়াকত আলী ও পরিচালনা করেন সদস্য সচিব জাকির হোসেন রোকন।

এর আগে ঢাকা দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ বিএনপির উদ্যোগে জিনজিরায় জিয়াউর রহমানের জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে দোয়া মাহফিল ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। উপজেলার সভাপতি অ্যাডভোকেট নিপুণ রায় চৌধুরীর সভাপতিত্বে এ কর্মসূচি হয়।

গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেন, জিয়াউর রহমানের তুলনা জিয়াউর রহমান। কাউকে ছোট করে অন্যকে বড় করা যায় না। তিনি বলেন, এই কাজটি আওয়ামী লীগ করে। আওয়ামী লীগের পুঁজি হচ্ছে অন্যকে গালি দেওয়া ছোট করা। এই সমালোচনাকেও জিয়াউর রহমান বলতেন-এটা গণতন্ত্রের সৌন্দর্য। তিনি সব সময় দেশের মানুষের মনোভাব বুঝে কাজ করতেন। এ কারণেই জিয়াউর রহমান এত জনপ্রিয়।

জাসাসের অনুষ্ঠানে গয়েশ্বর বলেন, জিয়াউর রহমান পথে পথে হাঁটছেন, খাল খনন করছেন, মানুষকে উদ্বুদ্ধ করেছেন । তিনি সফল হয়েছেন।

তিনি আরো বলেন, জিয়াউর রহমানের জীবনাদর্শনেই গণতন্ত্রকে মুক্ত করার নির্দেশনা রয়েছে। জিয়াউর রহমানের নীতি, আর্দশ ও নির্দেশনা ধারণ করে ঐক্যবদ্ধ থেকে আন্দোলনের মাধ্যমে গণতন্ত্রকে তথা গণতন্ত্রের মাতা দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত করতে হবে, তারুণ্যের অহংকার তারেক রহমানকে দেশে ফিরে এনে মানুষের অধিকার প্রতিষ্ঠা করতে হবে। জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠা করতে হবে।

আরো বক্তব্য রাখেন বিএনপি নেতা কর্নেল (অব.) এম এ লতিফ খান, চিত্রনায়ক আশরাফ উদ্দিন আহমেদ উজ্জ্বল, রফিকুল আলম মজনু জাসাসের ইথুন বাবু, ফেরদৌস ফকির, জাকির হোসেন, মাকসুদুর রহমান টিপু, রফিকুল ইসলাম স্বপন, শাহ বিল্লাল হোসেন, নাসির উদ্দিন মিলন, শিহাব খান, আশরাফুল ইসলাম দিপু, শফিকুল হাসান রতন, মিজান ভান্ডারী, আব্দুল মালেক মুন্সি প্রমুখ।

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন