সোমবার, ২৭ জুন ২০২২, ১৩ আষাঢ় ১৪২৯, ২৬ যিলক্বদ ১৪৪৩ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

যেসব শর্তে ফিনল্যান্ড ও সুইডেনকে ন্যাটো সদস্য করতে রাজি তুরস্ক

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৭ মে, ২০২২, ১২:০১ এএম

পশ্চিমা সামরিক জোট ন্যাটোতে ফিনল্যান্ড ও সুইডেনের সদস্য হওয়ার পথে বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছে তুরস্ক। এমন পদক্ষেপের বিরুদ্ধে অবস্থান নেওয়ার ঘোষণা দিয়েছিলেন তুর্কি প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়্যেব এরদোগান। রবিবার তুর্কি পররাষ্ট্রমন্ত্রী জানালেন, যেসব শর্ত মানলে তুরস্ক দুই দেশকে ন্যাটোর সদস্য করতে আপত্তি জানাবে না। তুর্কি পররাষ্ট্রমন্ত্রী মেভলুত চাভুসোগলু বার্লিনে ন্যাটো জোটের সদস্য দেশগুলোর পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের সঙ্গে বৈঠক করেন। তিনি সুইডেন ও ফিনল্যান্ডের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গেও বৈঠক করেন। সবাই তুরস্কের উদ্বেগ নিরসনের চেষ্টা করছে। বার্লিনে বৈঠকের পর তুর্কি পররাষ্ট্রমন্ত্রী জানান, সুইডেন ও ফিনল্যান্ডকে অবশ্যই তুরস্কের সন্ত্রাসী গোষ্ঠীকে সহযোগিতা বন্ধ করতে হবে, স্পষ্ট নিরাপত্তা নিশ্চয়তা দিতে হবে এবং তুরস্কের ওপর থেকে রফতানি নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করতে হবে। চাভুসোগলু জানান, তুরস্ক কাউকে হুমকি দিচ্ছে না বা পরিস্থিতির সুবিধা আদায় করছে না। কিন্তু কুর্দি জঙ্গি গোষ্ঠী পিকেকে’র প্রতি সুইডেনের সমর্থনের বিষয়ে কথা বলছে। এই গোষ্ঠীটিকে তুরস্ক, ইউরোপীয় ইউনিয়ন ও যুক্তরাষ্ট্র সন্ত্রাসী সংগঠন হিসেবে তালিকাভুক্ত করেছে। রবিবার ফিনল্যান্ড নিশ্চিত করেছে তারা ন্যাটোর সদস্যপদের জন্য আবেদন করবে এবং সুইডেনও একই পথ অনুসরণ করবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। মূলত ইউক্রেনে রাশিয়ার আক্রমণের পর এই পথে হাঁটছে নরডিক দেশ দুটো। তবে তুরস্কের উদ্বেগ এক্ষেত্রে বাধা হয়ে দাঁড়াতে পারে। কারণ, ন্যাটোর সম্প্রসারণের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়ার ক্ষেত্রে জোটের ৩০ সদস্যের সর্বসম্মতিক্রমে সিদ্ধান্ত নিতে হয়। তুর্কি পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, এই বিষয়ে অবশ্যই নিরাপত্তা নিশ্চয়তা থাকতে হবে। তাদের সন্ত্রাসী গোষ্ঠীকে সমর্থন বন্ধ করতে হবে। তিনি আরও বলেন, সুইডেন ও ফিনল্যান্ডের প্রতিরক্ষা খাতে তুর্কি পণ্যের ওপর রফতানি নিষেধাজ্ঞারও অবসান হতে হবে। চাভুসোগলু বলেন, আমাদের অবস্থান একেবারে উন্মুক্ত ও স্পষ্ট। এটি কোনও হুমকি নয়, একটি কোনও দর কষাকষি নয়, যেখানে আমাদের সুবিধা আদায় করছি। এটি পপুলিজম না। এটি দুই সম্ভাব্য সদস্য রাষ্ট্রের সন্ত্রাসকে সমর্থনের বিষয়। এটি আমাদের দৃঢ় পর্যালোচনা। আমরা এই তথ্য বিনিময় করেছি। শুক্রবার সুইডেন ও ফিনল্যান্ডের জোটে যোগদানের বিপক্ষে অবস্থানের কথা জানিয়ে ন্যাটো মিত্র ও নরডিক দেশ দুটিকে অবাক করে দেন তুর্কি প্রেসিডেন্ট এরদোয়ান। তবে শনিবার তার মুখপাত্র জানিয়েছেন, তুরস্ক দেশ দুটির যোগদানের দরজা বন্ধ করে দেয়নি। চাভুসোগলু বলেছেন, ৭০ বছর আগে ন্যাটোতে যোগ দেওয়া তুরস্ক জোটটির মুক্তদ্বার নীতির বিরোধিতা করে না। তিনি জানান, সুইডেন ও ফিনল্যান্ডের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে তার বৈঠক ভালো ছিল এবং তারা আঙ্কারার বৈধ উদ্বেগ নিরসনে পরামর্শ দিয়েছেন। যা তুরস্ক বিবেচনা করবে। আনাদোলু।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Google Apps