শনিবার, ১৩ আগস্ট ২০২২, ২৯ শ্রাবণ ১৪২৯, ১৪ মুহাররম ১৪৪৪

সারা বাংলার খবর

বিশ্বনবী (সা.)কে নিয়ে করুচিপূর্ণ মন্তব্যের প্রতিবাদে ফেনীতে খেলাফত মজলিসের বিক্ষোভ সমাবেশ

ফেনী জেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১৮ জুন, ২০২২, ৬:৫০ পিএম

ভারতের ক্ষমতাসীন দল বিজেপির মুখপাত্র নূপুর শর্মা ও নবীন কুমার জিন্দাল কর্তৃক মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা.) ও হযরত আয়েশা (রা.) সম্পর্কে করুচিপূর্ণ মন্তব্য করার প্রতিবাদে বাংলাদেশ খেলাফত মজলিস ফেনী জেলা শাখার পক্ষ থেকে বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। আজ বাদ আছর বৃষ্টি উপক্ষে করে শহরের বিভিন্ন মসজিদ থেকে তৌহিদী জনতা খেলাফত মজলিসের ব্যানারে একমত পৌষণ করে বিক্ষোভ মিছিল সমাবেশে শরিক হোন। পরে শহরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার চত্বরে এসে সমবেত হয়।
খেলাফত মজলিস ফেনী জেলা শাখার সভাপতি মাওলানা জসিম উদ্দিন এর সভাপতিত্বে ও সাধারন সম্পাদক মাওলানা আবু বকর এর সঞ্চালনায় বিক্ষোভ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন,বাংলাদেশ খেলাফত মজলিস কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা এনামুল হক মূসা, মুফতী মামুনুর রশীদ,মাওলানা আবদুল হক, মাওলানা নাজমুল আলম,মাওলানা আবদুল হাই, মাওলানা নুরুল ইসলাম প্রমুখ। এছাড়াও জেলা উপজেলা থেকে আগত সংগঠনের নেতাকর্মী ও সর্বস্তরের তৌহিদী জনতা অংশগ্রহণ করেন।

খেলাফত মজলিস নেতৃবৃন্দ বক্তব্যে বলেন,বিশ্বনবীর অপমানে সারাবিশ্বের মুসলমানদের হৃদয়ে রক্তক্ষরণ হচ্ছে। নবীজির অপমানের প্রতিশোধ নিতে বিশ্বমুসলিম আজ ঐক্যবদ্ধ। নবীপ্রেমী জাগ্রত মুসলিম জনতা আজ নবী (সা.)এর ইজ্জত রক্ষায় নিজেদের পরিবার পরিজন ত্যাগ করে জীবন দিতে মাঠে ময়দানে নেমে পড়েছে। বক্তারা বলেন, আজ মুসলমানদের প্রাণের নবীকে অপমান করা হয়েছে,ভারতে বসবাসরত মুসলমানদের ওপর নির্যাতন নিপিড়ন চালানো হচ্ছে, মুসলমানদের বাড়িঘর উচ্ছেদ ও বুলডোজার দিয়ে ধ্বংস করা হচ্ছে। আমরা ভারত সরকারকে বলতে চাই,আমাদের প্রিয়নবী হযরত মুহাম্মদ (সা.) ও আম্মাজান হযরত আয়েশা (রা)কে নিয়ে যে অশালিন নোংরা আচরণ করেছে বিজেপির দুই কুলাঙ্গার, এ জন্য মোদি সরকারকে বিশ্বমুসলিমের কাছে প্রকাশ্যে ক্ষমা চাইতে হবে। অবিলম্বে বিজেপির দুই কুলাঙ্গার নূপুর শর্মা ও নবীন জিন্দালকে আইনের আওতায় এনে সর্বচ্চ শাস্তির ব্যবস্থা করতে হবে এবং ভারতে বসবাসরত মুসলমানদের সহায় সম্পদ ও জানমালের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে হবে। না হয় বিশ্বমুসলিম ঐক্যবদ্ধ হয়ে ভারত অভিমুখে লংমার্চ করতে বাধ্য হবে।
বক্তারা আরো বলেন,আমাদের দেশের প্রধানমন্ত্রী সবক্ষেত্রে সাহসী ভূমিকা রাখতে পারেন। কিন্তু বিশ্বনবীর অপমানের প্রতিবাদ না করে তিনি নিরব রয়েছেন। আমরা সরকার প্রধানকে বলতে চাই, আপনি এ ব্যাপারে সাহসী ভূমিকা রেখে প্রতিবাদ করুন। বাংলার কোটি কোটি মুসলিম জনতার পক্ষে কথা বলুন। বক্তারা জাতীয় সংসদের চলতি অধিবেশনে নিন্দা প্রস্তাব পাস, ভারতীয় রাষ্ট্রদূতকে তলব করে প্রতিবাদ জানানোর জন্য সরকারের প্রতি উদাত্ত আহবান জানান।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন