রোববার, ০২ অক্টোবর ২০২২, ১৭ আশ্বিন ১৪২৯, ০৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিজরী

খেলাধুলা

নাটকীয়তায় ভরপুর ম্যাচে দুই কোচ দেখলেন লাল কার্ড

হেরি কেইনের শেষ মিনিটের হেডে হার এড়াল টটেনহ্যামে

অনলাইন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৫ আগস্ট, ২০২২, ২:৪৪ পিএম

কি রোমাঞ্চকর এক ম্যাচ অনুষ্ঠিত হয়ে গেল চেলসি ও টটেনহ্যামের মধ্যে! ম্যাচে প্রায় পুরোটা সময় দারুণ ফুটবল খেলা চেলসির জয় যখন অনেকটা নিশ্চিত তখনই টটেনহ্যামের ত্রাণকর্তা হয়ে আসেন হেরি কেইন। ম্যাচের নির্ধারিত সময় শেষে যোগ করা অতিরিক্ত সময়ে তারকা এই ইংলিশ স্ট্রইকারের দারুণ এক হেডে করা গোলেই চেলসিকে রুখে দেয় 'স্পার্সরা'।

তবে মাঠে খেলার উত্তেজনা ছাপিয়ে গতকালের ম্যাচটি সামনের অনেকদিন আলোচনায় থাকবে ম্যাচ শেষে ঘটানো দুই কোচের কান্ডে।ম্যাচ শেষের প্রথাগত করমর্দনের ব্যাপারটিকে চেলসির টমাস টুখেল ও টটেনহামের অ্যান্টোনিও কোন্টে নিয়ে যান অবিশ্বাস্য রকমের বাড়াবাড়িতে।

রীতিমত উদ্যত হয়ে তুমুল বাক-বিতণ্ডায় লিপ্ত দুই কোচকে আলাদা করতে হিমশিম খেতে হয় উভয় দলের কোচিং স্টাফ ও খেলোয়াড়দের।মাঠে দফায় দফায় অপেশাদার মূলক আচরণের জন্য দুইজনকে লাল কার্ড দেখিয়েছেন রেফারি।ফলে টটেনহ্যাম ও চেলসির পরের প্রিমিয়ার লিগ ম্যাচে মাঠে আসতে পারবেন না দল দুটির গুরু টুখেল ও কান্তে।

ঘটনার শুরুটা হয়েছিল হোজবজের্গেরর সমতা সূচক গোলের পর। ফাউল করেও টটেনহ্যামের রদ্রিগো বেন্টানকুর রেফারির শাস্তি না পাওয়া মেনে নিতে পারেনি চেলসি।সেই এট্যাকেই গোল করে টটেনহ্যাম।গোলের পর আনন্দে উত্তেজিত টটেনহ্যাম কোচ অ্যান্টনিও কান্তে চেলসি ডাগ আউটের দিকে তেড়ে এসে টুখেলকে উদ্দেশ্য করে কি যেন বলেন।প্রথম দফা তর্কে জড়িয়ে পড়েন দুইজন।দেখেন হলুদ কার্ড। ম্যাচ শেষে করমর্দনের পর টুখেল কান্তের হাত না ছাড়লে ফের একবার উত্তপ্ত বাক্য বিনিময়ে জড়িয়ে পড়েন দুই কোচ। বিরক্ত রেফারি দুজনকে উদ্দেশ্য করে উচিয়ে ধরেন লাল কার্ড।

এর আগে ঘরের মাঠে অনুষ্ঠিত এই ম্যাচের শুরু থেকেই দারুণ ফুটবল খেলে চেলসি। টটেনহ্যামের রক্ষণভাগে বারবার হানা দেওয়া স্বাগতিকরা ১৯ মিনিটে এগিয়ে যায় এই গ্রীষ্মে চেলসিতে যোগ দেওয়া কালিদৌ কৌলিবলির গোলে।মার্ক কুকুরেলার নেওয়া কর্নার থেকে ডি বক্সে পাওয়া বল কৌলিবলি দর্শনীয় এক হেডে টটেনহ্যামের জালে জড়ান।প্রথমার্ধে টটেনহাম ছিল অনেকটা খাপছাড়া।এর মধ্যেই হ্যারি কেইন গোলের একটি সহজ সুযোগ মিস করেন।


তবে ৬৮ মিনিটে দলটির পিয়েরে এমিল হোজবজের্গের নেওয়া জোরালো এক শর্টে চেলসি গোলরক্ষক এডোয়ার্ড মেন্ডিকে পরাস্ত করলে ম্যাচে সমতায় ফেরে স্পার্সরা।তবে সেই সমতা বেশিক্ষণ থাকেনি।৭৭ মিনিটে সিটি থেকে চেলসি ভেড়া ইংলিশ মিডফিল্ডার রাহিম স্টার্লিং এর এসিস্ট থেকে গোল করে ফের একবার চেলিসকে এগিয়ে দেন রিস জেমস।

নির্ধারিত ৯০ মিনিট আর কোন গোল না হলে চেলসির জয় অনেকটা নিশ্চিত মনে হচ্ছিল।দুই ম্যাচে ছয় পয়েন্ট অর্জন করে যখন মাঠ ছাড়ার ধারপ্রান্তে টমাস টুখেলের শিষ্যরা,তখনি তাদের আটকে দেন কেইন। অতিরিক্ত হিসেবে যোগ করার সময়ের ছয় মিনিটে ঈভান পেরিসিচের নেওয়া কর্নার থেকে হেডে গোল করে এই স্ট্রাইকার টটেনহ্যামকে ড্র এনে দেন।

গতকাল অনুষ্ঠিত আরেক ম্যাচে ওয়েস্ট হ্যাম ইউনাইটেডকে ১-০ গোলে হারিয়ে মৌসুমের প্রথম জয় পেয়েছে ২৩ বছর পর প্রিমিয়ার লিগে ফেরা নটিংহ্যাম ফরেস্ট।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন