শনিবার, ০১ অক্টোবর ২০২২, ১৬ আশ্বিন ১৪২৯, ০৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিজরী

বিনোদন প্রতিদিন

আনিসুজ্জামান ফারুকীর জেন্টল গ্রাস ভাস্কর্য প্রদর্শনী

বিনোদন রিপোর্ট: | প্রকাশের সময় : ১৯ আগস্ট, ২০২২, ১২:০৫ এএম

আলিয়ঁস ফ্রঁসেজ দো ঢাকার লা গ্যালারিতে শিল্পী আনিসুজ্জামান ফারুকীর ‘জেন্টল গ্রাস’ শিরোনামে ভাস্কর্য ও ড্রইং প্রদর্শনী ১৯ আগস্ট শুরু হচ্ছে। বরেণ্য ভাস্কর অধ্যাপক হামিদুজ্জামান খান, অধ্যাপক লালারুখ সেলিম, ভাস্কর্য বিভাগ, চারুকলা অনুষদ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এবং অধ্যাপক মানস চৌধুরী, নৃবিজ্ঞান বিভাগ, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে প্রদর্শনীর শুভ উদ্বোধন করবেন। প্রদর্শনীতে ২৪টি ভাস্কর্য ও ৯টি চারকোল ড্রইংসহ মোট ৩৫টি শিল্পকর্ম প্রদর্শীত হবে। শিল্পী আনিসুজ্জামান ফারুকী ১৯৯৩ সালে মহেশখালীতে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি ঢাকা বিশ্বিবদ্যয়ের চারুকলা অনুষদের ভাস্কর্য বিভাগ থেকে ২০১৫ সালে স্নাতক ও ২০১৮ সালে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি লাভ করেন। শিল্পী আনিসুজ্জামান ভাস্কর হিসেবে মূর্ত ও বিমূর্ত উভয় ধারাতেই কাজ করছেন। ক্লে মডেলিং-এ তার দক্ষতা ও ভাস্কর্যের উপস্থাপনতাকে অনন্য উচ্চতায় নিয়ে গিয়েছে। তাঁর রেখা নির্ভর ভাস্কর্য জাতীয় পর্যায়ে স্বীকৃতি পেয়েছে। তার ড্রইং, মডেলিং, পেইন্টিং এবং বিভিন্ন মাধ্যমের ভাস্কর্যগুলো বাংলাদেশর নিজস্ব শিল্পচর্চার পথকে সমৃদ্ধ করেছে। তিনি শিল্পচর্চাকে নিজের জীবনে ধারণ করেন এবং প্রকৃতি ও জীবনের সবকিছু থেকেই তাঁর শিল্পকর্ম নির্ণয় ও উপস্থাপন করেন। শিল্পী তার নিত্য ঘটনাকে শিল্পকর্মের উৎস হিসেবে দেখেন এবং তা বিমূর্তভাবে উপস্থাপনের চেষ্টা করেন। এ প্রদর্শনীর শিল্পকর্মগুলো তার গত কয়েক বছরের নানা অভিজ্ঞতার অংশ। চরুকলা অনুষদের ভাস্কর্য বিভাগের অধ্যাপক লালারুখ সেলিম বলেন, ফারুকীর প্রদর্শনীর কাজগুলো জল ও বাতাসের ছন্দে দোদুল্যমান। ছন্দায়িত বক্র রেখার সাথে ধাতব পাতের আকার ও গড়নের সংবেদনশীল সমন্বয় যেন সমুদ্রের ঢেউ আর বাতাসের স্পর্শ বয়ে নিয়ে আসে। রেখা ও আকারের মেলবন্ধনে নির্মিত হয় নিখুঁত ভারসাম্য। প্রকৃতির শক্তি ও জৈব গড়নের মধ্যে ক্রিয়া-প্রতিক্রিয়া ফারুকীর কাজে ছন্দায়িত রূপে উপস্থাপিত হয়েছে। উপকরণ ব্যবহারে সূক্ষ্মতা ও সংবেদনশীলতা ফারুকীর ভাস্কর্যের বৈশিষ্ট্য। ধাতব মাধ্যমেই এই ভাস্কর্যগুলি নির্মিত হয়েছে। তার সাথে কাঠ কয়লায় করা কিছু চিত্রকর্ম, যেগুলি তার ভাস্কর্যেও সংবেদনশীলতার অনুভূতিকেই প্রতিফলিত করে। প্রদর্শনীটি চলবে ৩০ আগস্ট পর্যন্ত। সোমবার থেকে শনিবার বিকাল ৩টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত প্রদর্শনী খোলা থাকবে। রোববার সাপ্তাহিক বন্ধ। প্রদর্শনী সবার জন্য উন্মুক্ত।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন