বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০২৪, ০৬ আষাঢ় ১৪৩১, ১৩ যিলহজ ১৪৪৫ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

কেএনএফ’র সঙ্গে জঙ্গি সংশ্লিষ্টতা খতিয়ে দেখা হচ্ছে

সাংবাদিকদের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

বিশেষ সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১৭ অক্টোবর, ২০২২, ১২:০০ এএম

পার্বত্য চট্টগ্রামের কুকি-চিন ন্যাশনাল ফ্রন্টের (কেএনএফ) বিরুদ্ধে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ব্যবস্থা নিচ্ছে। এ বিচ্ছিন্নতাবাদীদের আমাদের এলাকায় (বাংলাদেশ ভূ-খণ্ডে) থাকতে দিচ্ছি না। তাদেরকে সরিয়ে দেয়া হচ্ছে। যেকোনো বিচ্ছিন্নতাবাদী বা কোনো জঙ্গি সংগঠন যদি বাংলাদেশের কোনো জায়গায় অবস্থান করে, আমরা তাদের দ্রুত সরিয়ে দিচ্ছি। গতকাল রোববার ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স অধিদপ্তরে এক অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল।

কেএনএফের সঙ্গে জঙ্গিদের কোনো সংযোগ রয়েছে কি না, এমন প্রশ্নের জবাবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, এগুলো আমরা দেখছি। যদি সংযোগ পাই, সেটার ব্যাপারে ব্যবস্থা নিচ্ছি। তবে আমরা ধারণা করছি, জঙ্গি বাহিনীর বা যেসব জঙ্গিরা সেখানে গিয়েছিল, কেএনএফের ক্যাম্পের পাশাপাশি তারা অবস্থান করছিল। আমরা এসব ঘটনা দেখেছি। কয়েকজনকে ধরেছি, শনাক্তও করেছি। সবগুলোকে এনে জিজ্ঞাসা করে তথ্য জেনে আপনাদেরকে জানাবো। পার্বত্য চট্টগ্রামের তিনটি জেলাতেই প্রয়োজনমতো আমাদের পুলিশ, বিজিবি, র‌্যাব, সেনাবাহিনী ব্যবস্থা গ্রহণ করছে।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ফায়ার সার্ভিস এখন আর ঠুনকো দমকল বাহিনী না। আগে আগুন নেভার পরে তারা ঘটনাস্থলে যেত। কিন্তু এখন সংবাদ পেতে দেরি ঘটনাস্থলে যেতে দেরি হয় না। এখন সেই অবস্থা আর নেই। এই সরকারের আমলে ফায়ার সার্ভিসের সক্ষমতা বাড়ানো হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী বলেছিলেন, প্রতিটি উপজেলায় একটি করে ফায়ার স্টেশন হবে, সেই ধারাবাহিকতা চলছে।

তিনি আরও বলেন, ২০০৯ সালে সারাদেশে ফায়ার স্টেশন ছিল ২০৮টি। বর্তমানে সারাদেশে সচল স্টেশন রয়েছে ৪৯০টি। ফায়ার সার্ভিসকে আন্তর্জাতিক মানের এবং সক্ষমতা বাড়ানো হয়েছে, এতে সেবার মানও বেড়েছে। খবর পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে এখন ফায়ার সার্ভিস উপস্থিত হয়, ঝাপিয়ে পড়ে। সব সময় প্রস্তুত থাকে, জীবন উৎসর্গ করে যেকোনো দুর্যোগে ঝাপিয়ে পড়তে। বর্তমানে যে টিটিএল গাড়ি সংযোজিত হলো, এতে ২৪ তলা পর্যন্ত আগুন নিয়ন্ত্রণ বা যেকোনো দুর্যোগ মোকাবিলা সম্ভব। এই সরকার ক্ষমতায় আসার আগে ফায়ার সার্ভিসের ছয় হাজার জনবল ছিল। কিন্তু বর্তমানে তা ১৪ হাজারে উন্নীত হয়েছে। কদিন পরে ১৬ হাজার এবং তারপর ৩১ হাজারে উন্নীত করতে কাজ চলছে।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ফায়ার সার্ভিস এখন শুধু দুর্যোগে কাজ করছে না। যেকোনো সড়ক দুর্ঘটনায় তারা কাজ করছে। এ সময় আহত বা নিহতদের উদ্ধার করে তাদের অ্যাম্বুলেন্সে হাসপাতালে নিচ্ছে। বর্তমানে সংস্থাটিতে ১৯০টি অ্যাম্বুলেন্স রয়েছে। আরও ৭৫৭টি অ্যাম্বুলেন্স কেনা হবে। এ সময় অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জননিরাপত্তা বিভাগের সিনিয়র সচিব মো. আখতার হোসেন, সুরক্ষা সেবা বিভাগের সচিব মো. আব্দুল্লাহ আল মাসুদ চৌধুরী ও ফায়ার সার্ভিসের মহাপরিচালক (ডিজি) ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. মাইন উদ্দিন প্রমুখ।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন