রোববার, ১৪ জুলাই ২০২৪, ৩০ আষাঢ় ১৪৩১, ০৭ মুহাররম ১৪৪৬ হিজরী

সারা বাংলার খবর

দেবিদ্বারে নানার বাড়িতে বেড়াতে গিয়ে নিখোঁজ শিশুর লাশ উদ্ধার

দেবিদ্বার (কুমিল্লা) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ৩ জানুয়ারি, ২০২৩, ৭:৪৫ পিএম

কুমিল্লার দেবিদ্বারে নিখোঁজের চারদিন পর আল ইমরান নামে দুই বছরের এক শিশুর মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। মঙ্গলবার ভোরে উপজেলার রসুলপুর ইউনিয়নের খাইয়ার গ্রামের নানার বাড়ির একটি ডোবা থেকে ওই শিশুর লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। নিহত আল ইমরান বুড়িরপাড় গ্রামের প্রবাসী জসিম উদ্দিনের পুত্র। এ ঘটনায় দেবিদ্বার থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা দায়ের করেন শিশুটির মা হাসিনা বেগম।
পুলিশ ও স্বজনরা জানায়, শিশুটির মা হাসিনা বেগম শিশুটিকে নিয়ে গত ১৩ ডিসেম্বর স্বামীর বাড়ি বুড়িরপাড় থেকে খাইয়ার গ্রামের বাবার বাড়িতে বেড়াতে আসে। প্রতিদিন বাড়ির অন্য শিশুদের সাথে আল-ইমরান খেলাধুলা করতো। গত ৩১ ডিসেম্বর শনিবার সকাল আনুমানিক ১০ টায় বিদেশ থেকে ভিডিও কলের মাধ্যমে আল-ইমরানের সাথে কথা হয় তার বাবার। এরপর সে বাড়ির অন্য শিশুদের সাথে খেলতে যায়, কিছুক্ষণ পর থেকে তাকে আর খুঁজে পাওয়া যায়নি। বাড়ির অন্য ছেলেদের জিজ্ঞাসা করেও কোন হদিস মেলেনি। এরপর বাড়ির লোকজন বিভিন্ন স্থানে খোঁজাখুঁজি করেও তার কোন সন্ধান মিলেনি। মঙ্গলবার ভোর আনুমানিক ৬টার দিকে বাড়ির পাশের একটি ডোবায় ইমরানের মরদেহটি ভাসতে দেখেন বাড়ির লোকজন। বিষয়টি পুলিশকে অবহিত করলে বেলা আনুমানিক ১১টায় মরদেহটি উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়।
স্থানীয় ইউপি সদস্য সোহেল রানা দৈনিক ইনকিলাবকে বলেন, ১৮দিন আগে শিশুটি তার মায়ের সাথে নানার বাড়িতে বেড়াতে আসে। ৩১ ডিসেম্বর শনিবার সকাল আনুমানিক সাড়ে ১০টায় নিখোঁজ হয়। মঙ্গলবার ভোরে বাড়ির লোকজন পাশের একটি ডোবায় মরদেহটি ভাসতে দেখে পুলিশকে খবর দেয়। ধারণা করা হচ্ছে, খেলতে গিয়ে শিশুটি ডোবায় পড়ে মারা যায়।
দেবিদ্বার থানার ওসি কমল কৃষ্ণ ধর দৈনিক ইনকিলাবকে বলেন, শিশুটির মা হাসিনা বেগম বাদী হয়ে থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা করেছে। শিশুটির মরদেহ সুরতহাল রির্পোট করে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ (কুমেক) হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পেলে প্রকৃত কারণ জানা যাবে। # #

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন