রোববার, ২৩ জুন ২০২৪, ০৯ আষাঢ় ১৪৩১, ১৬ যিলহজ ১৪৪৫ হিজরী

সারা বাংলার খবর

রাজনীতিতে গুণগত পরিবর্তন ছাড়া উন্নত কল্যাণ রাষ্ট্র গঠন সম্ভব নয় : চরমোনাই পীর

খুলনা ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ২০ জানুয়ারি, ২০২৩, ৭:১৮ পিএম

ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ খুলনা মহানগর ও জেলা শাখার উদ্যোগে আজ শুক্রবার বিকাল ৩ টায় খালিশপুর গোয়ালখালি সৈয়দ ফজলুল করিম রহ. ফাউন্ডেশন মিলনায়তনে দ্বি বার্ষিক সম্মেলন নগর সভাপতি মুফতি আমানুল্লাহ'র সভাপতিত্বে ও নগর সেক্রেটারী শেখ মোঃ নাসির উদ্দিন, জেলা সেক্রেটারী হাফেজ আসাদুল্লাহ আল গালিবের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত হয়।
সম্মেলনে প্রধান অতিথি ছিলেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ-এর আমীর মুফতী সৈয়দ মুহাম্মাদ রেজাউল করীম, পীর সাহেব চরমোনাই। তিনি তার আলোচনায় বলেন, রাজনীতি হলো মানুষের কল্যাণ ও উন্নত দেশ গঠনের মাধ্যম। দেশের উন্নতি মানুষের অধিকার প্রতিষ্ঠা ও কল্যাণ নিশ্চিত করতে রাজনীতির অবদান সবচেয়ে বেশি। কিন্তু বাংলাদেশে স্বাধীনতা-পরবর্তী অর্ধশতাব্দী কাল ধরে স্বার্থপর আয়ন ও অপরাজনীতির শিকার। দেশের মানুষের অধিকার ও কল্যাণ নিশ্চিত করার পরিবর্তে দেশের সম্পদ লুন্ঠন বিদেশে পাচার লুটতরাজ ও বিরোধীদলের নেতা-কর্মীদের জেল-জুলুম ক্ষমতাসীনদের রাজনৈতিক প্রধান কর্মসূচি হয়ে দাঁড়িয়েছে। দেশীয় জাতীয় ও আন্তর্জাতিক সংকট নিরসন এবং সুখী সমৃদ্ধ দেশ গঠনে রাজনীতিতে গুণগত পরিবর্তন একান্ত প্রয়োজন। ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ ইসলামের সু-মহান আদর্শের পতাকাতলে সকল রাজনৈতিক দল ও দেশের আপামর জনগণকে সমবেত করে ঐক্যবদ্ধ প্ল্যাটফর্ম তৈরীর মাধ্যমে রাজনীতিতে গুণগত পরিবর্তন আনতে চায় বলে জানান তিনি।
সম্মেলনে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন দলের সিনিয়র নায়েবে আমীর মুফতি সৈয়দ মুহাম্মাদ ফয়জুল করীম, শায়েখে চরমোনাই, নায়েবে আমীর হাফেজ মাওলানা আব্দুল আউয়াল, মহাসচিব, হাফেজ মাওলানা অধ্যক্ষ ইউনুস আহমাদ, খুলনা বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা শোয়াইব হোসেন, খুলনা জেলা সভাপতি অধ্যাপক মাওলানা আব্দুল্লাহ ইমরান।
দলের মহাসচিব তার বক্তব্যে বলেন, দেশের মানুষকে নাস্তিক বানাতেই সরকার ইসলাম বিদ্বেষী বিতর্কিত শিক্ষা সিলেবাস প্রণয়ন করেছে। তিনি বলেন, বিশ্বের অধিকাংশ দেশের বিদ্যাপীঠ গুলো হতে বিতর্কিত ডারউইনের বিবর্তনবাদ বাদ দেয়া হয়েছে। সেখানে শতকরা ৯০ শতাংশ মুসলিম অধ্যুষিত জনপদে সরকার কোমলমতি শিক্ষার্থীদের ধর্মীয় শিক্ষা হতে বঞ্চিত করে নাস্তিক্যবাদী শিক্ষা চাপিয়ে দিচ্ছে। মানুষ মহান আল্লাহর সর্বশ্রেষ্ঠ সৃষ্টি। হযরত আদম আঃ ও বিবি হাওয়া আঃ এর মাধ্যমে মানবসম্প্রদায় বিস্তৃতি লাভ করেছে। সেখানে সৃষ্টির শ্রেষ্ঠ্য জাতিকে বানর হতে সৃষ্ট এমন বিতর্কিত বিবর্তনবাদে বিশ্বাসকরা ও শিক্ষা দেয়া ইসলামের সাথে চরম সাংঘর্ষিকতা। তিনি তার আলোচনা কালে ইসলাম ও নৈতিকতা বিধ্বংসী বিতর্কিত শিক্ষা সিলেবাস পরিবর্তন করে নতুনভাবে শিক্ষা সিলেবাস প্রণয়নে সরকারের প্রতি আহবান জানান।
সভাপতির বক্তব্যে মুফতী আমানুল্লাহ বলেন, সরকারের তত্তাবধানে অনুষ্ঠিত সকল নির্বাচনই বিতর্কিত ও অগ্রহণযোগ্য হয়েছে। অবাধ সুষ্ঠু ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচন দিতে সরকার বরাবরই ব্যর্থতার পরিচয় দিয়েছে। আসন্ন খুলনা সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে সরকারের কোনও প্রকার ব্যর্থতা মেনে নেয়া হবেনা বলেন তিনি। তিনি রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা ফিরিয়ে আনতে অবাধ, সুষ্ঠু ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচনের যথোপযুক্ত পরিবেশ তৈরিেত সরকারকে উদ্যোগী হতে আহবান জানান। সেই সাথে নির্বাচনকালীন সকল অরাজকতা, অনৈতিকতা ও ভোট চুরি ও ডাকাতির মতো ন্যক্কারজনক পরিস্থিতি সৃষ্টি হলে তা কঠোর হাতে দমন করা হবে বলে হুশিয়ারী দেন তিনি। উন্নত খুলনা নগরী গড়তে ও খুলনাবাসীর নাগরিক ও মানবিক অধিকার প্রতিষ্ঠার লক্ষে পীর সাহেব চরমোনাই মনোনীত হাতপাখার মেয়র প্রার্থী অধ্যক্ষ আব্দুল আউয়ালকে ভোট দিয়ে জয়যুক্ত করার জন্য খুলনাবাসীর প্রতি আহবান জানান।
সম্মেলন শেষে দলের আমীর ২০২৩-২৪ সেশনের জন্য নগর কমিটির সভাপতি হিসেবে মাওঃ আব্দুল আউয়াল, সহ-সভাপতি মুফতী আমানুল্লাহ, শেখ মোঃ নাসির উদ্দিন ও সেক্রেটারী হিসেবে মুফতী ইমরান হোসাইন। জেলার সভাপতি হিসেবে অধ্যাপক মাওলানা আব্দুল্লাহ ইমরান ও সেক্রেটারী হিসেবে হাফেজ আসাদুল্লাহ আল গালিবের নাম ঘোষণা করেন এবং শপথ বাক্য পাঠ করান।
এর আগে সকাল দশটায় মজলিসের শূরার অধিবেশন অনুষ্ঠিত হয়। সম্মেলন ও মজলিসের শূরায় উপস্থিত ছিলেন
ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ খুলনা মহানগর সহ-সভাপতি মাওলানা মোজাফফর হোসাইন, জেলা সহ-সভাপতি মাওলানা মুজিবুর রহমান, মাওলানা আবু সাঈদ, নগর জয়েন্ট সেক্রেটারি মুফতি ইমরান হোসাইন, মাওলানা দ্বীন ইসলাম, মাওলানা শাইখুল ইসলাম বিন হাসান, মাওলানা মাহবুব আলম, মোঃ সাইফুল ইসলাম, এস কে নাজমুল হাসান, আমিরুল ইসলাম, এইচ এম খালেদ সাইফুল্লাহ, আব্দুল্লাহ আল নোমান, মাওঃ আশরাফুল ইসলাম, ফেরদৌস গাজী সুমন, আব্দুস সাত্তার, মোঃ হুমায়ূন কবির, জি এম কিবরিয়া, আব্দুস সালাম, মাওলানা হারুন অর রশিদ, শ্রমিক নেতা আলহাজ্ব জাহিদুর রহমান, আবুল কালাম আজাদ, যুব নেতা আলহাজ্ব আবুল কাশেম, মোহাম্মদ ইমরান হোসেন মিয়া, ইসলামী ছাত্র আন্দোলন মোঃ মইনউদ্দিন, মোঃ আবু রায়হান, আব্দুল্লাহ আল মামুন, ফরহাদ মোল্লা, মাহদী হাসান মুন্না, মোঃ নাইমুল ইসলাম।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন