ঢাকা সোমবার, ১৮ জানুয়ারি ২০২১, ০৪ মাঘ ১৪২৭, ০৪ জামাদিউস সানী ১৪৪২ হিজরী

বিনোদন প্রতিদিন

বর্ণিল আয়োজনে সম্পন্ন হলো উইন্ড অব চেইঞ্জ সিজন-১ এর ধারণ কাজ

| প্রকাশের সময় : ২১ মে, ২০১৭, ১২:০০ এএম

বিনোদন ডেস্ক: বাংলাদেশের সঙ্গীতাঙ্গনে পরিবর্তনের অঙ্গীকার নিয়ে শুরু হওয়া আন্তর্জাতিকমানের সঙ্গীতবিষয়ক অনুষ্ঠান ‘ওয়ান মোর জিরো গ্রুপ- উইন্ড অব চেইঞ্জ- সিজন ১’-এর চিত্রধারণের কাজ সম্প্রতি শেষ হয়েছে। গত ২৫ এপ্রিল থেকে শুরু হয়ে ১৪ এপ্রিল পর্যন্ত ব্যতিক্রমী এই ঙ্গীতানুষ্ঠানের চিত্রধারণ করা হয়। বিশ্বের বিভিন্ন দেশের খ্যাতনামা যন্ত্রশিল্পীদের সঙ্গে দেশের স্বনামধন্য, জনপ্রিয় ও প্রতিশ্রুতিশীল কণ্ঠশিল্পীরা এই অনুষ্ঠানে অংশ নেন। দেশের সঙ্গীত বিষয়ক সবচেয়ে বড় প্ল্যাটফর্ম ‘উইন্ড অব চেঞ্জ’-এর এবারের অন্যতম বৈশিষ্ট হলো, বর্তমান প্রজন্মের জনপ্রিয় শিল্পীদের পাশাপাশি উল্লেখযোগ্যসংখ্যক খ্যাতনামা প্রবীণ শিল্পীর অংশগ্রহণ। বিশিষ্ট সঙ্গীতশিল্পী ওস্তাদ নিয়াজ মোহাম্মদ চৌধুরী, বারী সিদ্দিকী, জানে আলম, ফকির আলমগীর, রেজওয়ানা চৌধুরী বন্যা, অদিতী মহসিন, সুবীর নন্দী, কুমার বিশ্বজিৎ, চিশতি বাউল, কুদ্দুস বয়াতি, কালা মিয়া, শাহ আলম সরকার, বাপ্পা মজুমদার, পথিক নবী, অদিত, ইমরান, হৃদয় খান, বেলাল খান, প্রতীক হাসান, ঐশী, লুইপা, শামীম, প্রিয় ব্যান্ড চিরকুট ও কৌশিক হোসেন তাপস গেয়েছেন এবারের আয়োজনে। এবারের ‘উইন্ড অব চেঞ্জ’-এর চিত্রধারণ করা হয় দুই ধাপে। এতে বিশ্বের বিভিন্ন দেশের খ্যাতনামা যন্ত্রশিল্পীরা অংশ নেন। এ তালিকায় ছিলেন যুক্তরাষ্ট্রের চেলো বাদক আট ইউম মেনিকিয়ান, লাটভিয়ার পিয়ানোশিল্পী এনা ভাইভ, যুক্তরাষ্ট্রের ড্রামার টনি পার্কার, রাশিয়ার অপেরাশিল্পী এনা এমিলিয়া নোভা, একই দেশের ভায়োলিন বাদক এনা রাকিতা, ড্রামার নেলি বুভুজাংকা ও বেজ গিটারিস্ট আন্তন ডেভিডিয়ান্স, সেতার বাদক ভারতের পূর্বায়ন চ্যাটার্জি ও গিটারিস্ট সঞ্জয় দাস, এ¯্রাজবাদক আরশাদ খান, অপেরা শিল্পী এনা এমিলিয়া নোভা, এডেলিনাসহ আরও অনেকেই। পরিচালক হিসেবে নেতৃত্ব দেন গান বাংলা টেলিভিশন-এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক, জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত সংগীতশিল্পী ও সঙ্গীত পরিচালক কৌশিক হোসেন তাপস। অনুষ্ঠান সম্পর্কে তিনি বলেন, ‘উইন্ড অব চেঞ্জের আগের দুটি মৌসুম ছিল ‘প্রি-সিজন’। এবারের আয়োজনকে বলছি, ‘সিজন ১’। আমরা আগের দুটি প্রি-সিজনকে নিয়েছিলাম প্রস্তুতি পর্ব হিসেবে। বিশ্বের বিভিন্ন দেশের যন্ত্রশিল্পীদের সঙ্গে যোগাযোগ করেছি। সবাই আমাদের কাজগুলো দেখেছেন। এখন বেশ আগ্রহ নিয়ে আমাদের এখানে আসছেন। বাংলাদেশের গানগুলোকে শ্রোতাদের সামনে নতুন করে, নতুন আঙ্গিকে তুলে ধরাই আমাদের উদ্দেশ। পাশাপাশি আন্তর্জাতিক প্ল্যাটফর্মে বাংলা গানকে সম্মানজনক উচ্চতায় তুলে ধরাও আমাদের অন্যতম লক্ষ্য।’ পরিবর্তনের ধারায় বাংলা গানকে নতুনরূপে উপস্থাপনের এই বৃহত্তর আয়োজনে অক্লান্ত পরিশ্রম করেন গান বাংলা টেলিভিশনের চেয়ারপারসন ও উইন্ড অব চেইঞ্জের ক্রিয়েটিভ ডিরেক্টর ফারজানা মুন্নী। মূলত তাঁর ক্রিয়েটিভ ডিজাইন ও পরিকল্পনাতেই দৃষ্টিনন্দন ও হৃদয়গ্রাহী হয়ে ওঠে এই আয়োজন। শিল্পী ও কলাকুশলীদের মেকওভার, ড্রেস ডিজাইন থেকে শুরু করে সেট ডিজাইন, আলোক-প্রক্ষেপণ পরিকল্পনা তথা ক্রিয়েটিভ সকল আয়োজন শিল্পীত হয়ে ওঠে তাঁরই তত্ত¡াবধানে। শিল্প নির্দেশনা সম্পর্কে ফারজানা মুন্নী বলেন, ‘আন্তর্জাতিক প্ল্যাটফর্মে এতোদিন কোক স্টুডিওর মতো আয়োজনকেই কেবল আমরা বিশ্বমানের বলতাম, কিন্তু এখন উইন্ড অব চেঞ্জ নিয়েও বিশ্বব্যাপী আলোচনা শুরু হয়েছে। কোটি কোটি দর্শক উইন্ড অব চেঞ্জ দেখছেন, তাদের ভাললাগার অনুভূতি জানাচ্ছেন। বিশ্বের সেরা যন্ত্রশিল্পীরা এসে এখানে বাজাচ্ছেন। আমরা এটাই চেয়েছিলাম। আর এ জন্য অনুষ্ঠানটি হৃদয়গ্রাহী করে তুলতে আমি আমার সর্বোচ্চ শিল্পভাবনা এখানে প্রয়োগ করার চেষ্টা করেছি।’ আগামী ঈদুল ফিতর-এর অনুষ্ঠানমালায় ‘উইন্ড অব চেইঞ্জ’-এর প্রথম পর্ব এবং ঈদুল আজহার অনুষ্ঠানমালায় দ্বিতীয় পর্ব গানবাংলা টেলিভিশন-এ প্রচার হবে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন