ঢাকা, বুধবার, ১৬ অক্টোবর ২০১৯, ০১ কার্তিক ১৪২৬, ১৬ সফর ১৪৪১ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

আমরা ন্যায়বিচার পাইনি আসামিপক্ষের আইনজীবী

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১১ অক্টোবর, ২০১৮, ১২:০২ এএম

২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলার রায়ে ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠিত হয়নি দাবি করে আসামিপক্ষের আইনজীবী অ্যাডভোকেট সানাউল্লাহ মিয়া বলছেন, রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত হয়ে এই আদেশ দেয়া হয়েছে। এ মামলায় আমরা ন্যায় বিচার পাইনি। তিনি বলেন, তারেক রহমান দেশে ফিরে আসলে তারা এই রায়ের বিরুদ্ধে উচ্চ আদালতে আপিল করবেন। গতকাল বুধবার রায়ের পর আদালত প্রাঙ্গণে তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন তিনি।
সানাউল্লাহ বলেন, মিয়া বিএনপির যেসব নেতাদের আসামি করা হয়েছে তারা কেউ এ হামলায় জড়িত নয়। আবদুস সালাম পিন্টুর বাসা থেকে কোনও সাক্ষী এসে এ মামলার সাক্ষ্য দেয় নাই। তারা সেখানে বসে গ্রেনেড হামলার পরিকল্পনা করেছে, তার কোনো সাক্ষী নাই। এ মামলায় আমরা ন্যায় বিচার পাইনি। তিনি আরো বলেন, মুফতি হান্নান রিমান্ডে যে জবানবন্দি দিয়েছেন সে জবানবন্দি তিনি প্রত্যাহার করে বলেছেন, তারেক রহমান বা বিএনপি নেতাদের সঙ্গে তার কোনদিন দেখাই হয়নি। অথচ আজকে অন্যায়ভাবে, বেআইনিভাবে তারেক রহমানকে যাবজ্জীবন দেয়া হয়েছে। লুৎফুজ্জামান বাবর এবং আবদুস সালাম পিন্টুসহ বিএপির বহু নেতাকে এ মামলায় ফাঁসি দেয়া হয়েছে। এ আইনজীবী বলেন, তারেক রহমান যখন ফিরে আসবেন তখন আমরা অবশ্যই এ মামলায় আপিল করব। আমরা আশা করেছিলাম এ মামলায় তারেক রহমানসহ বিএনপির নেতারা খালাস পাবেন। আপনারা মনে রাখবেন, এ মামলায় বিএনপির আমলে যে চার্জশিট দিয়ে তদন্ত করেছে সেই তদন্তের ভিত্তিতে মুফতি হান্নান এবং অন্যান্যদের গ্রেফতার করেছে। সেই তদন্তের পরিপ্রেক্ষিতে এ মামলার সাক্ষী হয়েছে। তারেক রহমান কোনো ধরনের ষড়যন্ত্র করেছেন, গোপন বৈঠক করেছেন এমন কোনো সাক্ষী নাই। অথচ তাকে আজকে অন্যায়ভাবে যাবজ্জীবন দেয়া হয়েছে। আমরা ন্যায় বিচার পাইনি। লুৎফুজ্জামান বাবর, আবদুস সালাম পিন্টু, হারিস চৌধুরীসহ আমাদের তারেক রহমান কোনো অন্যায় করে নাই। তারেক রহমান দেশের গণতন্ত্র রক্ষার জন্য, স্বাধীনভাবে দেশ পরিচালনা করার জন্য, আইনের শাসনের জন্য আজীবন সংগ্রাম করেছেন এবং আরও করে যাবেন।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন