ঢাকা, শনিবার, ১৫ আগস্ট ২০২০, ৩১ শ্রাবণ ১৪২৭, ২৪ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী

ইসলামী প্রশ্নোত্তর

প্রশ্ন : মা ওয়ারিশের সম্পত্তি চাইতে গেলে মামা বিভিন্ন ধরনের তালবাহানা করে। বলেন যে, ওয়ারিশের সম্পত্তি নিলে মানুষ ধ্বংস হয়ে যায়। একপর্যায়ে মামা অর্ধেক দিতে চায়, কিন্তু নিতে নারাজ, নিজের নামে পাওনা জমি খারিজ করে ভোগদখল করলে ইসলাম কি বলে?

মো. জাহাঙ্গীর আলম
গুলশান-১, নাভানা টাওয়ার।

প্রকাশের সময় : ১১ জানুয়ারি, ২০১৯, ১২:১৪ এএম

উত্তর : আপনার মা যা বলছেন তাই ঠিক। আপনার মামার বক্তব্য ও আচরণ ঠিক নয়। এ দেশে একটি কথা চালু আছে- বোনেরা ওয়ারিশ নিলে বাবার বাড়ি ধ্বংস হয়ে যায়। এ কথা সম্পূর্ণ মিথ্যা ও অবাস্তব। অন্য ধর্মের বুলি। আসলে বোনদের ওয়ারিশ না দিলে সময়ে এ বাড়িটি ধ্বংস হয়ে যায়। প্রকাশ্যে ধ্বংস না হলেও এর মানুষগুলো শান্তিহীন জীবন-যাপন করে। নৈতিকভাবে ধ্বংস হয়। আর বড় ধ্বংসটি থাকে আখেরাতে। ওয়ারিশ না দিয়ে কিংবা নির্দোষ উপায়ে মাফ না করিয়ে কোনো লোক আখেরাতে নাজাত পাবে না। তা সে যত বড় নামাজি বা পরহেজগারই হোক। এ মামলায় আমাদের দেশের শতকরা ৯০ ভাগের চেয়েও বেশি মানুষ পরকালে ধরা খাবে বলে আমার ভয় হয়। কারণ, বান্দার হক আল্লাহ নিজে ক্ষমা করবেন না। যতক্ষণ বান্দা ক্ষমা না করে। নতুবা এর বদলে নিজে সওয়াব দিয়ে কিংবা তার গুনাহ নিয়ে এর বিনিময় শেষ করতে হবে। যার ফলে জান্নাতি লোক জাহান্নামি সাব্যস্ত হয়ে যেতে পারে। আপনার মা’কে তার শরিয়তসম্মত পাওনার অর্ধেক দিলেও মামা দায়মুক্ত হবেন না। পুরোটাই দিতে হবে। দেয়া সম্ভব না হলে কেন সম্ভব নয়, তা ভালোভাবে বুঝিয়ে শুনিয়ে মা ছাড় দিলে মামা কিছু কমে রেহাই পেতে পারেন। জোর করে কোনোটাই সম্ভব নয়। আপনার মা আইনগত উপায়ে নিজে সম্পত্তি কাগজপত্রে ও দখলসূত্রে বুঝে নিয়ে আরামসে ভোগ দখল করতে পারেন। এতে তার কোনো গুনাহ বা অপরাধ হবে না। মামাকে জাহান্নাম থেকে মুক্ত করার কারণে সওয়াব হতে পারে। বাবার বাড়িটি ধ্বংসের হাত থেকে রক্ষার জন্য তিনি প্রশংসিত হতে পারেন। সব নারীর জন্য এ মাসআলা প্রযোজ্য। সারা দেশের সব মা বোন যদি এ বিষয়ে সতর্ক ও সোচ্চার হন, তাহলে বহু বাপ-চাচা ও ভাই-ভাতিজারা বান্দার হক মারার গজব থেকে রক্ষা পেতে পারে।

সূত্র : জামেউল ফাতাওয়া, ইসলামী ফিক্হ ও ফাতাওয়া বিশ্বকোষ।
উত্তর দিয়েছেন : আল্লামা মুফতি উবায়দুর রহমান খান নদভী

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (1)
সাইফ ১১ জানুয়ারি, ২০১৯, ১০:৪২ পিএম says : 0
আসলেই আমাদের দেশের মানুষ নামাজ রোজা হজ্জ এর প্রতি খুব যত্ন বান হয়েও হক না দেয়ার কারণেই ধ্বংস হবে. আল্লাহ্‌ আমাদের সকালে হেদায়েত নসিব করুন.
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন