ঢাকা শনিবার, ১৬ জানুয়ারি ২০২১, ০২ মাঘ ১৪২৭, ০২ জামাদিউল সানী ১৪৪২ হিজরী

সারা বাংলার খবর

সীমান্তে কিছুতেই বন্ধ হচ্ছেনা মাদক চোরাচালান

ফেব্রুয়ারি মাসেই বিজিবি উদ্ধার করে সাড়ে ১১ কোটি টাকার মাদক ও চোরাইপণ্য

বিশেষ সংবাদদাতা কক্সবাজার | প্রকাশের সময় : ৪ মার্চ, ২০১৯, ১২:৫৩ পিএম

এত অভিযান, বন্দুকযুদ্ধে হতাহতের ঘটনা কিছুতেই বন্ধ হচ্ছেনা টেকনাফ সীমান্তে মাদক চোরাচালান। গত ফেব্রুয়ারি মাসেই শুধু বিজিবির হাতে উদ্ধার হয়েছে সাড়ে এগার কোটি টাকার মাদক দ্রব্য। চোরা কারবারীরা বিভিন্ন কৌশলে চালিয়ে যাচ্ছে তারা।

জানাগেছে, টেকনাফ ব্যাটালিয়ন (২ বিজিবি) এর অধীনস্থ বিওপি ও ক্যাম্পসমূহ ১ ফেব্রুয়ারি হতে ২৮ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত বিভিন্ন সময়ে অভিযান পরিচালনা করেন। এতে ১১ কোটি ৪৬ লক্ষ ৯৮ হাজার ৩২০ টাকা মূল্যমানের ইয়াবা ট্যাবলেট, বিভিন্ন প্রকার মাদকদ্রব্য ও অন্যান্য আমদানী নিষিদ্ধ মালামাল আটক করেছেন বিজিবি সদস্যরা।
এর মধ্যে শীর্ষে রয়েছে ইয়াবা। এ ব্যাপার মোট মামলা হয়েছে ৫১টি। এসব মালামালয় ২৬ জন চোরাকারবারীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। মাদক উদ্ধার অভিযানে নিহত হয়েছে ৩ জন।
টেকনাফ-২ বিজিবির পরিচালক অধিনায়ক লেঃ কর্ণেল মোঃ আছাদুদ-জামান চৌধুরী জানান, ফেব্রুয়ারি মাসে ৩ লক্ষ ৭১ হাজার ২৭৪ পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়েছে। তম্মধ্যে ৪৬ হাজার ৩৬৪ পিস ইয়াবা মালিকসহ এবং ৩ লক্ষ ২৪ হাজার ৯১০ পিস ইয়াবা মালিকবিহীন।
উদ্ধারকৃত ইয়াবার মুল্য ১১ কোটি ১৩ লক্ষ ৮২ হাজার ২০০ টাকা। এসব ইয়াবা উদ্ধারের ৪১টি মামলায় ২৬ জনচোরাচালানীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। পলাতক রয়েছে ৫ জন। মাদক উদ্ধার অভিযানে নিহত হয়েছে ৩ জন।
অন্যান্য মাদকের মধ্যে রয়েছে ২ টি মামলায় ৯৬ হাজার টাকা মুল্যের ৬৪ বোতল বিদেশী মদ, ১টি মামলায় ২ হাজার টাকা মুল্যের ৫ বোতল ফেন্সিডিল, ২টি মামলায় ৭০০ টাকা মুল্যের ২০০ গ্রাম গাঁজা। এসব মাদক উদ্ধারের ঘটনায় দায়েরকৃত মামলায় কোন আসামী আটক বা পলাতক নেই।
এছাড়া উক্ত মাসে ৩২ লক্ষ ১৭ হাজার ৪২০ টাকা মুল্যের বিভিন্ন প্রকারের চোরাইপণ্যও উদ্ধার করা হয়েছে। মামলা হয়েছে ৫টি।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন