ঢাকা, রোববার , ০৮ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ১০ রবিউস সানি ১৪৪১ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

ঋণখেলাপিদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা দেখতে চান ড. মোশাররফ

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৩ জুন, ২০১৯, ৬:৪১ পিএম

জাতীয় সংসদে যেসব ঋণ খেলাপির তালিকা দেয়া হয়েছে তাদের বিরুদ্ধে সরকার কী ব্যবস্থা নেয় তা দেখতে চান বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন। তিনি বলেন, আপনারা দেখেছেন, শনিবার সংসদে উত্থাপন করা হয়েছে তিন‘শ ঋণ খেলাপির নাম। ৫১ হাজার কোটি টাকা। এসব জনগনের টাকা, জনগণের আমানত। যারা এইভাবে খেলাপি করে করে কৌশলে এসব টাকা বিদেশে পাঁচার করে, এদেশের জনগণের পকেট খালি করে, ব্যাংকগুলোকে দেউলিয়া করে যাচ্ছে, সেই খেলাপিদের বিরুদ্ধে সরকার কী ব্যবস্থা নেন - এটা আমরা দেখতে চাই।

রোববার (২৩ জুন) দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবে ডেমোক্রেটিক মুভমেন্ট আয়োজিত ‘২৩ জুন পলাশী ষড়যন্ত্রের প্রেক্ষাপটে আজকের বাংলাদেশ’ শীর্ষক আলোচনা সভায় তিনি এ কথা বলেন।

খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেন, ব্যাংকের যদি নিয়ম-কানুন, শৃঙ্খলা থাকতো, ব্যাংকগুলো যদি দলীয়করণ করা না হতো, ব্যাংকগুলো যদি কৌশল করে দখল করে আওয়ামী লীগের নেতাদের সেখানে বসানো না হলে এতো ঋণখেলাপী হওয়ার কথা না। তিনি বলেন, আইনের আছে যে, আপনি ঋণ পরিশোধ করতে না পারলে পরের বছর কি করতে হবে? সেগুলো ব্যাংকের আইনে আছে। কেনো এগুলো বাস্তবায়ন করা হলো না? যদি বাস্তবায়ন হতো তাহলে আজকে ৫১ হাজার কোটি টাকা খেলাপী হওয়া কথা না।

২০১৯-২০ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটে সামষ্টিক অর্থনীতি, আয়-ব্যায়ের ঘাটতি, ঋণ পরিস্থিতি, সাধারণ ও প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর ওপর করারোপসহ বিভিন্ন দিক তুলে ধরে সাবেক মন্ত্রী খন্দকার মোশাররফ বলেন, এই বাজেট একটি সুযোগ-সুবিধাভোগীদের এবং অর্থনৈতিক অপশাসনের অস্বাভাবিক সরকারের অস্বাভাবিক বাজেট। সরকার জনগণের জন্য নয়, সুবিধাভোগীদের জন্য বাজেট করেছে। আয়ের বৈষম্য এতো বেড়েছে যে, ধনী ও গরীবের মধ্যে বিশাল আকার ধারণ করেছে।

বিএনপির অন্যতম এই শীর্ষ নেতা বলেন, উন্নয়ন হচ্ছে বড় বড় মেগা প্রজেক্ট করে মেগা কমিশনের উন্নয়ন। সাধারণ মানুষের থেকে গ্যাসের বিল বাড়িয়ে, বিদ্যুতের বিল বাড়িয়ে, টেলিফোনে বিল বাড়িয়ে, ভ্যাটকে সম্প্রসারণ করে, ভ্যাটের মাধ্যমে একজন সর্বনিম্ন একদম প্রান্তিক গরীব কিন্তু আজকে ট্যাক্স দিতে হচ্ছে। অথচ বদনাম করে মানুষ ট্যাক্স দেয় না। জনগণের এই টাকাগুলোকে নিয়ে সরকার পোদ্দারী করে।

কর্তৃত্ববাদী সরকার ক্ষমতা দখল করে দেশকে গণতন্ত্রহীন করে রেখেছে উল্লেখ করে এই সংকট উত্তরণে কারাবন্দি খালেদা জিয়ার মুক্তি আন্দোলনের জন্য সকলকে প্রস্তুতি নেয়ার আহবান জানান তিনি।

সংগঠনের সভাপতি সাহাদাত হোসেন সেলিমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে মূল প্রবন্ধ পাঠ করেন এহসানুল হক জসীম। আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন বিএনপির ভা‌ইস চেয়ারম্যান শওকত মাহমুদ, যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, নির্বাহী কমিটির সদস্য আবু নাসের মুহাম্মদ রহমাতুল্লাহ, ইসলামী ঐক্যজোটের মহাসচিব মাওলানা আবদুল করিম খান, জাতীয় দলের চেয়ারম্যান সৈয়দ এহসানুল হুদা প্রমূখ।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন