ঢাকা, শুক্রবার, ২৩ আগস্ট ২০১৯, ০৮ ভাদ্র ১৪২৬, ২১ যিলহজ ১৪৪০ হিজরী।

জাতীয় সংবাদ

মিন্নির পরিকল্পনায় খুন

চাঞ্চল্যকর রিফাত হত্যা

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৮ জুলাই, ২০১৯, ১২:০৪ এএম | আপডেট : ১২:২৮ এএম, ১৮ জুলাই, ২০১৯

বরগুনার আলোচিত রিফাত শরীফ হত্যাকান্ডে তার স্ত্রী আয়শা সিদ্দিকা মিন্নি জড়িত ছিলেন। এ মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা মো. হুমায়ুন কবির গতকাল বুধবার এ কথা বলেছেন। হুমায়ুন কবির বলেন, রিফাত শরীফ হত্যার ঘটনায় মূল আসামি নয়ন বন্ড ও রিফাত ফরাজীর সঙ্গে মিন্নি পরিকল্পিতভাবে এই হত্যাকান্ড সংগঠিত করেছে।

রিফাত শরীফ হত্যা মামলায় গ্রেফতার নিহতের স্ত্রী আয়শা সিদ্দিকা মিন্নির ৫ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। গতকাল বুধবার বেলা ৩টার দিকে মিন্নিকে কড়া পুলিশ প্রহরায় বরগুনার জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হাজির করা হয়। এ সময় মামলার তদন্ত কর্মকর্তা মো. হুমায়ুন কবির মিন্নিকে ৭ দিনের রিমান্ডে নেওয়ার আবেদন করেন। আদালত ৫ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

আদালত সূত্র জানায়, গতকাল বেলা তিনটায় পুলিশ মিন্নিকে বরগুনার বিচারিক হাকিম মো. সিরাজুল ইসলাম গাজীর আদালতে হাজির করে। এ সময় আদালতের চারপাশে কড়া পুলিশ প্রহরা ছিল। আদালতের বাইরে মিন্নির বাবা-মা ও আত্মীয়-স্বজনরা উপস্থিত থাকলেও তাদের সঙ্গে তাকে কথা বলেত দেয়া হয়নি। আদালতের কার্যক্রম শেষ হওয়ার পর বেলা পৌঁনে চারটার দিকে মিন্নিকে আদালত থেকে কড়া প্রহরায় পুলিশ লাইন্সে নেয়া হয়।

এ বিষয়ে বরগুনার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মো. শাজাহান হোসেন বলেন, মিন্নি এ মামলার ১ নম্বর সাক্ষী হলেও জিজ্ঞাসাবাদে রিফাত হত্যাকান্ডের সঙ্গে মিন্নির সম্পৃক্ততা খুঁজে পেয়েছে পুলিশ। অধিকতর জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আদালতে হাজির করে মিন্নির ৭ দিনের রিমান্ড আবেদন করা হয়। শুনানি শেষে ৫ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত। রিফাত হত্যাকান্ডের বিষয়ে মিন্নির কাছে আরও গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পাওয়া যাবে। এজন্য তাকে রিমান্ডে নেয়া হয়েছে।

আদালত প্রাঙ্গণে উপস্থিত মিন্নির বাবা মোজাম্মেল হোসেন কিশোর বলেন, মিন্নি মানসিকভাবে অসুস্থ। এটা জানিয়েই আদালতে মিন্নির জামিন আবেদন করা হয়েছে। কিন্তু জামিন না মঞ্জুর করে তার রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

এর আগে মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে বরগুনার মাইঠা এলাকার বাবার বাসা থেকে মিন্নির বাবা মোজাম্মেল হোসেন কিশোরসহ মিন্নিকে জিজ্ঞাসাবাদ ও তার বক্তব্য রেকর্ড করার জন্য বরগুনার পুলিশ লাইন্সে নিয়ে যায় পুলিশ। এরপর দীর্ঘ ১০ ঘণ্টার জিজ্ঞাসাবাদ ও বিভিন্ন মাধ্যম থেকে পাওয়া তথ্য-উপাত্ত পুঙ্খানুপুঙ্খভাবে বিশ্লেষণ ও পুলিশের কৌশলী এবং বুদ্ধিদীপ্ত প্রশ্নের উত্তর দিতে গিয়ে আটকে যান মিন্নি। বেরিয়ে আসে হত্যাকান্ডে তার সম্পৃক্ততার প্রমাণ। এরপরই মিন্নিকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (19)
Sadnan Saif ১৮ জুলাই, ২০১৯, ১:৪৮ এএম says : 0
একটা নারী গোটা দুনিয়া খেয়ে দিচ্ছে
Total Reply(0)
Mohammed Azad ১৮ জুলাই, ২০১৯, ১:৪৮ এএম says : 1
গড ফাদার গন রক্ষা পেতেই মিন্নিকে ফাসানো হয়েছে, যেমন ফাসানোর চেস্টা করা হয়েছিলো আগুন পোড়া নুসরাত কে।সেখানেও আওয়ামীলীগ গডফাদার ছিলো এখানেই সেই আওয়ামীলীগ গড ফাদার সক্রিয়।
Total Reply(0)
মোঃ আজমির খাঁ ১৮ জুলাই, ২০১৯, ১:৪৮ এএম says : 0
নাটক শুরু হয়েছে
Total Reply(0)
Sohel Sohel ১৮ জুলাই, ২০১৯, ১:৪৯ এএম says : 0
Jodi tai hoy.noyon k keno arrest korlona.tahole sob jana jeto.take keno koroc korlo
Total Reply(0)
Lucky Bubon ১৮ জুলাই, ২০১৯, ১:৪৯ এএম says : 1
আসল আসামি দের বাছাতে এ নাটক
Total Reply(0)
Hasan Talha Choudhury ১৮ জুলাই, ২০১৯, ১:৫০ এএম says : 0
A judiciary investigation needed. The local police administration couldn't be able to show real justice.
Total Reply(0)
Md Faej ১৮ জুলাই, ২০১৯, ১:৫০ এএম says : 0
Actually dependent is very strong that's why minni now is arrested..even criminals hand is very long so dam care minni and her familys
Total Reply(0)
AbuDayen Bhuyan ১৮ জুলাই, ২০১৯, ১:৫০ এএম says : 0
শেকড়ের সাহায্যে খাদ্যের উৎস থেকে খাদ্য গ্রহণ করে নয়ন বন্ড নামীয় বিষাক্ত গাছগুলি আস্তে আস্তে বেড়ে উঠে। এই বিষাক্ত গাছগুলোর মূল উৎপাটন করতে হলে শেকড়ের সন্ধান করে ছত্রছায়া প্রদানকারীদের সনাক্ত করতে হবে। তা না হলে এক নয়ন বন্ড ধ্বংস হলেও আরো নয়ন বন্ড সৃষ্টি হবে।
Total Reply(0)
Zahirul Ahmed ১৮ জুলাই, ২০১৯, ১:৫১ এএম says : 0
এমপি পুত্রের অপকর্ম যাতে ফাঁস না হয় সে জন্য মিন্নিকে বলী দিবে এটাই স্বাভাবিক। মিন্নি অপরাধী হলে তারও শাস্তি হওয়া উচিত তবে মিন্নিকে বলী দিয়ে এমপি পুত্রের অপকর্ম ঢাকা দেওয়ার চেষ্টা করা অন্যায় হবে।
Total Reply(0)
Sampad Barua ১৮ জুলাই, ২০১৯, ১:৫১ এএম says : 0
এখনতো দেখছি রিফাত হত্যার বিচারের চাইতে নয়ন বন্ডকে হিরো বানাতেই সবাই ব্যস্ত! গডফাদারদের চিত্রনাট্যমতই চলছে সব এখন। পরিস্থিতির পুরো নিয়ন্ত্রন এখন তাদের হাতে।
Total Reply(0)
mahbub alam ১৮ জুলাই, ২০১৯, ১১:৪৬ এএম says : 0
কেন নয়ন কে হ্যাতা করা হলো।
Total Reply(0)
ম নাছিরউদ্দীন শাহ ১৮ জুলাই, ২০১৯, ১১:৫৫ এএম says : 1
মাননীয় প্রধান মন্ত্রী আপনি বিশ্ব মানবতার মা। এইদেশের নির্যাতিত অসহায় সাধারণ মানুষের আশাভরসার শেষ ঠিকানা। আমি বিভিন্ন পত্রিকায় আপনাকে শত সহস্রবার মা নামে শ্রদ্ধা সম্মান করে এ যাবত কালে ক্ষুদ্র লিখনীর মাঝে প্রকাশ করার চেষ্টা করছি। আমি একটি সমাজের বিচার ব্যাবস্হায় মসজিদ মাদ্রাসা মহল্লা শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সহ গুরুত্বপূর্ণ পদে অদিষ্টিত আছি প্রায় তিন যুগ। আজ আপনার দরবারে আকুল ফরিয়াদী হয়ে মিন্নি নামের মেয়েটির পক্ষে করুন আত্যনাদে জানতে চাইবো। মিন্নি কে অপরাধী সাজানো জন্য সংবাদ সম্মেলন মানব বন্দনের প্রয়োজন হলো কেন। এতোদিন পুলিশের দায়িত্ব কোথায় ছিল। হত্যাকারীরা বাচতে এক নম্বর সাক্ষী আসামী করা হলো কিনা। তার স্বামীকে মারতে হলে তাকে ঘটনাস্হলে থাকার কথা নয়। আপনি একমাত্র এই অসহায় মেয়েটি রক্ষা করতে পারেন। না হয় তার নিরঅপরাদ প্রমাণ করার একটি পথ খোলা থাকবে আত্মহত্যা। ফোন কল সহ অসংখ্য মিথ্যার পর মিথ্যাচারের দলিল প্রভাবশালীরা ইতিমধ্যে বানিয়ে পেলেছেন। তথ্য প্রমান সাক্ষী ছাড়া এই সংবাদের শিরোনাম মতো মিন্নির পরিকল্পনাই খুন। বিশাল অংকের অর্থ রাজনৈতিক প্রভাববিস্তার নানান কৌশলে যুক্ত হয়ে গেছে। মাননীয় প্রধান মন্ত্রী দলের সম্মানিত সাধারণ সম্পাদক স্ররাষ্ট্র মত্রী মহোদয় সব্বোউচ্ছ প্রশাসন যেখানে জড়িত। সেখানে দিন কে রাত বানানোর সাহস কি ভাবে পাই তদন্তকারী প্রশাসন। মমতাময়ী মা মিন্নি পক্ষে আদালতে উকিল পযর্ন্ত ছিলো না। পরিস্থিতি এই রকম কেন হলো পাছদিনের রিমান্ডে নিয়ে অত্যাচার করে কারা লাভবান হবে। বুঝতে কারো বাকী নাই। এই দেশের কোটি কোটি সাধারণ মানুষের দোয়া আপনার প্রতি আছে থাকবে ইনশাআল্লাহ। আপনি আমাদের আশা প্রত্যাশায় শেষ ঠিকানা।
Total Reply(0)
নাসীর হোসেন ১৮ জুলাই, ২০১৯, ১২:৫০ পিএম says : 0
তার সামিরে সেই মারছে
Total Reply(0)
রুবেল ১৮ জুলাই, ২০১৯, ১২:১৮ পিএম says : 0
রিফাত ফরাজি,রিশান ফরাজীর গডফাদার দের গ্রেফতার করে ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠা করেন। এবং রিফাত ফরাজি,রিশান ফরাজীর দৃষ্টন্তমূলক সাজা ফাঁশি হওয়া উচিৎ। শুধু মিন্নিকে গ্রেপ্তার করে যেন আসল অপরাধীদের বাচাঁনোর ফন্দি না হয়। বিদ্রত ঃ মিন্নী সম্ভবত মাদক বাণিজ্য এবং সন্ত্রাসী খুনি দের বাঁচানোর জন্য-ই নির্ভর অপশক্তির প্রভাবশালী দের বলি হতে চলেছেন !!
Total Reply(0)
Sohrab Hossain ১৮ জুলাই, ২০১৯, ২:১৯ পিএম says : 0
এম পি পুত্রের অপকর্ম যেন ঢাকা না পড়ে।
Total Reply(0)
Tahir ১৮ জুলাই, ২০১৯, ২:২৩ পিএম says : 0
Minnir porikolponay ghotona ghotle dine prokashshey kupiye hotta kora hoto na- eta pagole o bujhe, pulish bujhe na!
Total Reply(0)
Miah Muhammad Adel ১৯ জুলাই, ২০১৯, ২:৫৯ পিএম says : 0
এম পি পুত্রের নাক গলানোর কি প্রয়োোজন? পুলিস কেন তাকে এ্যারেষ্ট করে না? পুলিস কেন নেপথ্যের মগজদের ধরে না?
Total Reply(0)
মনির ২২ জুলাই, ২০১৯, ৪:০৯ পিএম says : 0
গড ফাদারদের বাচাতে বলি দেওয়া হচ্চে! গড ফাদারদের বিচার হওয়া উচিত, তারাই এই দেশে হাজার হাজার নয়ন বন্ড তৈরি করছে, মিন্নি তৈরি করছে!
Total Reply(0)
আল মাহমুদ ২৪ জুলাই, ২০১৯, ৯:০০ পিএম says : 0
যারা রামদা দিয়ে কুপিয়েছে তারা নিস্পাপ। তাদেরকে ছেড়ে দেয়া হোক এবং মিন্নিকে ফাসি দেয়া হোক।
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন