ঢাকা, বুধবার , ১১ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ১৩ রবিউস সানি ১৪৪১ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

অনুমতি না পেলেও নয়াপল্টনে সমাবেশ করছে বিএনপি

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১২ অক্টোবর, ২০১৯, ১:৫৬ পিএম | আপডেট : ৪:৩১ পিএম, ১২ অক্টোবর, ২০১৯

জনসমাবেশের অনুমতি পায়নি বিএনপি। বুয়েট ছাত্র আবরার ফাহাদ হত্যার প্রতিবাদ, ভারতের সাথে চুক্তি বাতিল এবং কারাবন্দী বিএনপির চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে পূর্বঘোষিত এই সমাবেশ করতে চেয়েছিল বিএনপি।

জনসমাবেশকে ঘিরে নয়াপল্টনে এলাকায় উত্তেজনা দেখা দিয়েছে। বিএনপির বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মী নয়াপল্টনে। নয়াপল্টন ঘিরে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর ব্যাপক উপস্থিতিও দেখা যাচ্ছে। আইনশৃঙ্খলা বাহিনী আর নেতাকর্মীরা এখন মুখোমুখি অবস্থানে।

শনিবার (১২ অক্টোবর) দুপুর ১টা থেকে জনসমাবেশ হওয়ার কথা থাকলেও পুলিশের অনুমতি না থাকায় খণ্ড খণ্ডভাবে বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মীরা নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে এসে জড়ো হয়ে বিভিন্ন স্লোগান দিচ্ছেন।

নয়াপল্টনে উপস্থিত আছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী, যুগ্ম মহাসচিব ও ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির সভাপতি হাবিব-উন-নবী খান সোহেল, কেন্দ্রীয় প্রচার সম্পাদক শহিদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানি, ছাত্রদলের সভাপতি ফজলুর রহমান খোকন প্রমুখ।
জনসমাবেশকে ঘিরে নয়াপল্টন এলাকায় বিপুল সংখ্যক আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য মোতায়েন করা হয়েছে। নয়াপল্টনের আশপাশেও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সরব উপস্থিতি লক্ষ্য করা গেছে। বিপুল সংখ্যক র‌্যাব ও পুলিশের পাশাপাশি মোতায়েন করা হয়েছে সাঁজোয়া যান এবং জলকামানবাহী গাড়ি।

সকালেই সমাবেশের অনুমতি চাইতে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি) কার্যালয়ে গিয়েছেন বিএনপির প্রতিনিধি দল। শনিবার (১২ অক্টোবর) সকালে বিএনপির প্রতিনিধি দলটি ডিএমপি কার্যালয়ে যান। কিন্তু প্রতিনিধি দল জানিয়েছে তাদের সমাবেশের অনুমতি দেয়া হয়নি।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (3)
সচেতন জনতা ১২ অক্টোবর, ২০১৯, ২:৪৮ পিএম says : 0
কোন রকম সংর্ঘসের ঘটনা যেন না ঘটে। আসলে আমাদের মনোনশীল রাজনিতির বড় ই অভাব।আশা করি সকলের শুভবুদ্ধি উদয় হোক।
Total Reply(0)
সচেতন জনতা ১২ অক্টোবর, ২০১৯, ২:৫৭ পিএম says : 0
কোন রকম সংর্ঘসের ঘটনা যেন না ঘটে। আসলে আমাদের মনোনশীল রাজনিতির বড় ই অভাব।আশা করি সকলের শুভবুদ্ধি উদয় হোক। ইনকিলাব কে বলছি কি হয় যথারিতি প্রকাশ করুন ।ধন্যবাদ ইনকিলাবকে।।
Total Reply(0)
জাহিদ ১২ অক্টোবর, ২০১৯, ৫:১৯ পিএম says : 0
বাংলাদেশ ভারত থেকে বছরে ১৪ বিলিয়ন ডলারের পণ্য আমদানি করে. ভারত ফারাক্কার বাথ না ভাঙলে বর্ডার বন্ধ করে চীনের মতো প্রাচীর নির্মাণ হউক. ভারতকে যারা ভয় পায় তাদের এই দেশে থাকার কোনো দর কার নাই, তারা ভারত চলে যাক.
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন