ঢাকা, বুধবার , ১১ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ১৩ রবিউস সানি ১৪৪১ হিজরী

সারা বাংলার খবর

‘আব্বু-আম্মু মিলেমিশে থেকো’, চিরকুট লিখে স্কুলছাত্রের আত্মহত্যা

আখাউড়া (ব্রাহ্মণবাড়িয়া) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২৪ অক্টোবর, ২০১৯, ২:২৮ পিএম

‘আমার মৃত্যুর জন্য কেউ দায়ী নয়। আমি চাই আম্মু-আব্বু মিলেমিশে থাকো। কখনও ঝগড়া করো না। ভাইবোনরে না মেরে আদর-স্নেহ করো। আমাকে মাফ করে দিও, ইতি অপু।’

চিরকুটে এমন সব হৃদয়স্পন্দন কথা লিখে গলায় ফাঁস দিয়ে না ফেরার দেশে চলে গেল গোলাম হোসেন অপু (১৫) নামে এক কিশোর। সে ছয়ঘড়িয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের ৯ম শ্রেণির ছাত্র ছিল।

আখাউড়া উপজেলার মোগড়া ইউনিয়নের ছয়ঘড়িয়া গ্রামে বুধবার বিকালে এ মর্মান্তিক ঘটনাটি ঘটে।

আখাউড়া থানার ওসি রসুল আহম্মদ নিজামী জানা, বসতঘরের আড়ার সঙ্গে ঝুলন্ত অবস্থায় তার লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। এ সময় সাদা কাগজের এক পৃষ্ঠায় অপুর লেখা একটি চিরকুট উদ্ধার করে পুলিশ।

তিনি বলেন, প্রাথমিকভাবে আত্মহত্যার প্রমাণ মিলেছে। ময়নাতদন্তের জন্য তার লাশ বৃহস্পতিবার সকালে ব্রাহ্মণবাড়িয়া হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (2)
Nurul Islam ২৪ অক্টোবর, ২০১৯, ২:৪৫ পিএম says : 0
This kind of news hurts me a lot
Total Reply(0)
llp ২৭ অক্টোবর, ২০১৯, ৬:২৬ এএম says : 0
All beuracracy, paper work, social stigma must be removed for getting a divorce, if we want to prevent such painful events. If possible divorce can be encouraged and rewarded to save lives. Tripple talaq ruling should be appreciated.
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন