ঢাকা, সোমবার , ১৮ নভেম্বর ২০১৯, ০৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ২০ রবিউল আউয়াল ১৪৪১ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

বাবরি মসজিদ রায় : মুসলমান বিচারপতি আবদুল নাজিরের পরিচয়

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৯ নভেম্বর, ২০১৯, ৩:২৪ পিএম

ভারতের প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈর নেতৃত্বাধীন সুপ্রিম কোর্টের পাঁচ সদস্যের বেঞ্চ শনিবার বাবরি মসজিদ মামলার রায় দিয়েছেন। পাঁচ সদস্যের মধ্যে একমাত্র মুসলমান বিচারপতি হচ্ছেন আবদুল নাজির। ১৯৮৩ সালের ফেব্রুয়ারিতে তিনি আইনজীবী হিসেবে তালিকাভুক্ত হন। এরপর টানা ২০ বছর তিনি কর্ণাটক হাইকোর্টে আইন পেশায় নিয়োজিত ছিলেন।

২০০৩ সালের ফেব্রুয়ারিতে তিনি একজন অতিরিক্ত বিচারক হিসেবে নিয়োগ পান। ওই বছরেই তিনি স্থায়ী বিচারক হিসেবে নিয়োগ পান।
২০১৭ সালের ১৭ ফেব্রুয়ারি সুপ্রিম কোর্টের বিচারক মনোনীত হন তিনি। এ বছরের আগস্টে পত্রিকার শিরোনামে আসেন তিনি।
তখনকার প্রধান বিচারপতি জেএস খেহারসহ যে বেঞ্চ মুসলমানদের তিন তালাক প্রথাকে নৈতিকতাবিরোধী ধর্মতত্ত্ব বলে আখ্যায়িত করেন, সেখানেও একমাত্র মুসলিম বিচারক ছিলেন আবদুল নাজির।

কিন্তু সুপ্রিম কোর্ট ব্যক্তিগত আইনে হস্তক্ষেপ করতে পারে না। পরবর্তীতে ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার আইন প্রণয়ন করে চূড়ান্তভাবে তিন তালাক প্রথা নিষিদ্ধ করেন। বেঞ্চের অন্য সদস্যরা হলেন, বিচারপতি এসএ বোবডি, ডিওয়াই চন্দ্রাচুড, অশোক ভুষান।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (13)
Noor Mohammad ৯ নভেম্বর, ২০১৯, ৫:১০ পিএম says : 1
উনার মুসলমান পরিচয় নাথাকাই ভালো। মুসলমান পরিচয় উনার কোন কাজের। এমন ভিত্তিহীন একটা রায়ে একজন মুসলমান দাবি দার কি করে সমর্থন দিতে পারে। আ:নজির নামটাই। বেদাতি।
Total Reply(0)
Noor Mohammad ৯ নভেম্বর, ২০১৯, ৫:১০ পিএম says : 1
উনার মুসলমান পরিচয় নাথাকাই ভালো। মুসলমান পরিচয় উনার কোন কাজের। এমন ভিত্তিহীন একটা রায়ে একজন মুসলমান দাবি দার কি করে সমর্থন দিতে পারে। আ:নজির নামটাই। বেদাতি।
Total Reply(0)
Mustafizur Rahman Ansari ৯ নভেম্বর, ২০১৯, ৬:৫৫ পিএম says : 1
Looks like a Musrek
Total Reply(0)
মো: আমিনুল ইসলাম ১০ নভেম্বর, ২০১৯, ৮:২২ পিএম says : 1
এই বিচারকের কোন দোষ নেই ।এর কারন হলো ওরা মুসলমান হয়েও জানেনা মুসলমানের ইসলামী নিয়ম কানুন কি ? আমাদের জন্য আল্লাহপাক কি হালাল ও হারাম করেছেন । হিন্দুদের রীতিনীতিকেই তারা প্রাধান্য দেয় ।অতএব বুঝাই যায় তাদের ধম' পালন কিভাবে করেন । ধন্যবাদ সবাইকে ।
Total Reply(0)
abdul mozid ১০ নভেম্বর, ২০১৯, ৬:২৬ এএম says : 0
একজন মুসলিম বিচারপতি রাখা অর্থ হচ্ছে মুসলমানদের মনোভাবকে দমিয়ে রাখা।
Total Reply(0)
Muhammad ১০ নভেম্বর, ২০১৯, ৭:২৩ এএম says : 1
আমার মুসলিম ভাইরা এদের চিনে রাখুন, এরা মুসলিম উম্মাহ শত্রু।
Total Reply(0)
আবিদ রহমান ১১ নভেম্বর, ২০১৯, ১২:৪৬ এএম says : 1
ভারত যদি কোনো মুসলমানকে রাষ্ট্রপতি বানায় তাহলে বুঝবেন দাঙ্গার নাম ধরে ব্যাপক মুসলিম হত্যা করা হবে।মন্ত্রী বানালে বুঝবেন ইসলামের ক্ষতি করবে আর বিচারক বানালে বুঝবেন মুসলিম বিরোধী রায় দিবে। তদ্রূপ কোনো মুসলমান নোবেল পেলে বুঝবেন তার দ্বারা মুসলমানদের দূরদর্শী কোনো ক্ষতি সাধিত হয়েছে।
Total Reply(0)
মফিজ জোয়াদ্দার,চুয়াডাঙ্গা, ১১ নভেম্বর, ২০১৯, ৯:০৯ পিএম says : 0
ভারত তাকে মুসলমান মনে করে বিচারকের দায়িত্ব দেয়নি বরং তাকে মনে করেছে তিনি ঐ ৪ জনের মতই একজন।
Total Reply(0)
ওবাইদুল ইসলাম ১২ নভেম্বর, ২০১৯, ৬:০৮ পিএম says : 0
মুসলমান হতে হলে প্রথমত হতে হবে মুমিন। অন্তর থেকে আল্লাহ তায়াআলা ও রাসুল (সাঃ) এর উপর বিশ্বাস স্থাপন ও আত্মসমর্পন করতে হবে। তার পর নামাজ থেকে শুরু করে সকল ফরজ, ওয়াজিব ও সুন্নাহ পালন করতে হবে, আর তাহলেই মুসলমান হতে পারবে । শুধু আরবি নাম আর আমি মুসলমান দাবী করলে মুসলমান হওয়া যায় না ।
Total Reply(0)
Khan ১৩ নভেম্বর, ২০১৯, ১২:০৩ এএম says : 0
He should change his Muslin name. It's better if his name will Naraan Deb.
Total Reply(0)
Noor Mohammad ১৫ নভেম্বর, ২০১৯, ১১:৩৫ এএম says : 0
আচ্ছা ধরুন আপনারা উনার পরিচয় কেউ জানেন না, উনাকে চিনেন না। কোথাও দেখা হল, চেহারা দেখে মসলমান ভাবে ছালাম করবেন ?
Total Reply(0)
Malek ১৪ নভেম্বর, ২০১৯, ১২:০৭ পিএম says : 0
All remarks is valuable for Muslim.
Total Reply(0)
আব্বাস ১৫ নভেম্বর, ২০১৯, ৭:২৭ এএম says : 0
ওর মতো মুসলিম নামদারী কুলাঙ্গারদের দ্বারাই যুগে যুগে ইসলামের বেশি ক্ষতি হয়েছে।
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন