ঢাকা, বৃহস্পতিবার , ১২ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ১৪ রবিউস সানি ১৪৪১ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

‘লাদেন’ নামের পরিবর্তে ‘কৃষ্ণ’ রাখার প্রস্তাব

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৪ নভেম্বর, ২০১৯, ৩:৫১ পিএম

উত্তরপূর্ব ভারতের আসামে ‘লাদেন’ নামের এক হাতি ধরা পড়েছে। অন্তত ৫জনকে পিষে মারার পরে অবশেষে ঘুমপাড়ানি গুলি ছুঁড়ে ও গলায় ফাঁস লাগিয়ে তাকে বাগে আনা হয়। একের পর এক মানুষ মারছিল আর বাড়ি, ক্ষেত-খামার নষ্ট করছিল বলে এর নাম দেওয়া হয়েছিল ‘লাদেন’। কিন্তু হাতিটি হিন্দুদের উৎসব রাস পূর্ণিমার দিন ধরা পড়ায় দাবি উঠেছে তার নাম বদল করে রাখা হোক ‘কৃষ্ণ।’

আসামের গোয়ালপাড়া জেলায় ব্যাপক ধ্বংসলীলা চালানোর পর অবশেষে সোমবার তাকে ধরতে পারেন সেরাজ্যের ক্ষমতাসীন বিজেপির বিধায়ক পদ্ম হাজরিকা। সুতিয়ার বিধায়ক হাজরিকারা বংশ পরম্পরায় ‘শিকারি।’ তিনি বলেন, ‘আমার বাপ-দাদা সকলেই হাতি ধরায় বিশেষজ্ঞ ছিলেন। আমিও হাতি ধরার জন্য লাইসেন্সপ্রাপ্ত। মাসখানেক ধরে লাদেন নামের ওই বন্য হাতিটিকে ধরা যাচ্ছিল না। সে একের পর এক মানুষ মারছিল, ধ্বংস করছিল।’ বন দপ্তর এখন হাতিটির শুশ্রূষা করছে। তারপরে তাকে কোথায় ছাড়া হবে, সে ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। কিন্তু তাকে যে এবার প্রশিক্ষণ দিয়ে অন্য বন্য হাতিদের সামলানোর কাজ করানো হবে, সেটাই ভাবনায় রয়েছে বন দপ্তরের। রাসপূর্ণিমার দিন ধরা পড়েছে ‘লাদেন’, তাই পদ্ম হাজরিকা বলছেন, ‘হাতিটির নাম দেওয়া হোক কৃষ্ণ।’ তবে আসামে যে এই প্রথম ‘লাদেন’ ধরা পড়ল, তা নয়। হাজরিকা বলেন, ‘মোটামুটি ২০০৬ সাল থেকে এই ট্রেন্ড চলছে। যেই হাতিই মানুষ মারে, ওসামা বিন লাদেনের অনুকরণে তার নাম দেওয়া হয় লাদেন। তাই লাদেন এর আগেও ধরা পড়েছে। তারপরে তাদের নাম বদল হয়েছে।’ সূত্র: বিবিসি।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন