ঢাকা, শনিবার , ০৭ ডিসেম্বর ২০১৯, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ০৯ রবিউস সানি ১৪৪১ হিজরী

সারা বাংলার খবর

ফরিদগঞ্জে ক্রিকেট টুর্নামেন্ট ও ছাত্রলীগের সমাবেশ কেন্দ্র করে মঞ্চ ভাংচুর, আহত ৭

চাঁদপুর থেকে স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৮ নভেম্বর, ২০১৯, ৬:১৬ পিএম

চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জে আওয়ামী লীগের দলীয় গ্রুপিংয়ের জের ধরে সোমবার বিকেলে মাদক বিরোধী ক্রিকেট টুর্নামেন্টের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান ও একইস্থানে ডাকা ছাত্রলীগের সমাবেশ করা বন্ধ করে দিয়েছে প্রশাসন।

এর আগে রোববার রাতে ক্রিকেট টুর্নামেন্টের উদ্বোধনী মঞ্চ ভাংচুর, হামলা পাল্টা হামলার ঘটনা ঘটে। এসময় অন্তত ৭/৮জন আহত হয়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশ রাত থেকেই ঘটনাস্থলে অবস্থান করছে। উপজেলার চির্কাচাঁদপুর উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজ এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

জানাগেছে, সোমবার সকালে চির্কাচাঁদপুর উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজ মাঠে মাদক বিরোধী ক্রিকেট টুর্নামেন্টের ৪র্থ আসর এনপিএল প্রিমিয়ার লীগের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে আওয়ামী লীগ নেতা ও উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি খাজে আহাম্মদ মজুমদার উপস্থিত থাকার কথা। অপরদিকে একই স্থানে ইউনিয়ন ছাত্রলীগ মতবিনিময় সভার আহবান করে।

এর আগে রোববার রাত ৯টার দিকে প্রতিপক্ষের একটি গ্রুপ কলেজ মাঠে নির্মিত খেলার উদ্বোধনী মঞ্চ ভাংচুর করে। এই ঘটনা কেন্দ্র করে স্থানীয় নয়াহাট বাজারে আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপের মধ্যে হামলা পাল্টা হামলা ও দোকানপাট ভাংচুরের ঘটনা ঘটে। এসময় উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সহসভাপতি এমরান হোসেন মিলন ভূঁইয়া, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের যুগ্মসম্পাদক দেলোয়ার হোসেন, মমিন খান, আওয়ামী লীগ নেতা বিল্লাল ছৈয়াল, সুমনসহ ৭/৮জন আহত হয়।

খবর পেয়ে ফরিদগঞ্জ থানার ওসিসহ পুলিশের ফোর্স উপস্থিত হয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। পরে উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট উপস্থিত হন। পরিস্থিতি অবনতি হওয়ার আশংকায় উভয় পক্ষকে প্রশাসন ও থানা পুলিশ অনুষ্ঠান না করতে নিষেধাজ্ঞা দেয়। সোমবার সকালে থেকেই পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তা ও থানার ওসিহ বিপুল সংখ্যক পুলিশ ঘটনাস্থলে অবস্থান করে।

এব্যাপারে এনপিএলের আয়োজক যুবলীগ নেতা পুতুল সরকার জানায়, সোমবার মাদক বিরোধী ফুটবল টুর্নামেন্টের উদ্বোধন হওয়ার কথা থাকলেও রাতেই তাদের তৈরি করা মঞ্চ ভাংচুর করে। এসময় আমাদের কর্মীদের উপর হামলা ও দেলোয়ার হোসেন নামে এক ব্যবসায়ীর দোকান ভাংচুরের করে।

অন্যদিকে ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি নুরুজ্জামান সোহাগ জানায়, সোমবার সকালে আমাদের পুর্ব নির্ধারিত ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সমাবেশে ছিল। এতে অতিথি হিসেবে বর্তমান ও সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান থাকার কথা ছিল। কিন্তু এর মধ্যেই হঠাৎ করে একই স্থানে টুর্নামেন্টের উদ্বোধনের ঘোষনা দেয়ায় উপজেলা প্রশাসনের নির্দেশে আমরা অনুষ্ঠান স্থগিত রেখেছি।

চির্কাচাঁদপুর উচ্চ বিদ্যালয় উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজের অধ্যক্ষ আবু জাফর মো: শামছুদ্দিন জানান, কোন পক্ষই অনুষ্ঠান আয়োজনে কর্তৃপক্ষের অনুমতি নেয়নি।

উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও ওই ইউনিয়নের বাসিন্দা আবু সাহেদ সরকার জানান, ইতিপুর্বে এনপিএল আয়োজনে আমরা অংশীদার ছিলাম। কিন্তু এবছর আয়োজনের ব্যাপারে আমরা কিছুই জানি না। তাছাড়া মাদক বিরোধী টুর্নামেন্টের অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে একজন মাদকসেবীকে মেনে নেয়া যায় না। রাতে কে বা কারা মঞ্চ ভাংচুরের ঘটনার পরবর্তীতে আমাদের ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের নেতাদের উপর হামলা চালায়।

ফরিদগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ আব্দুর রকিব জানান, বর্তমানে পরিস্থিতি সম্পূর্ণ নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। ঘটনাস্থলে পুলিশ মোতায়েন রয়েছে।

উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তা মোঃ আলী আফরোজ জানান, রাত থেকে অদ্যবদি পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণে রয়েছে। আমাদের নির্দেশে উভয় পক্ষ অনুষ্ঠান বন্ধ রেখেছে ।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন