ঢাকা, মঙ্গলবার, ৩১ মার্চ ২০২০, ১৭ চৈত্র ১৪২৬, ০৫ শাবান ১৪৪১ হিজরী

সারা বাংলার খবর

সিলেটে সৈয়দ মুনসীফ আলীর প্রতারণার বিরুদ্ধে বিশাল মানববন্ধন

সিলেট ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ৩:২৪ পিএম

সিলেট মাল্টিপ্ল্যান শাহজালাল সিটির চেয়ারম্যান সৈয়দ মুনসীফ আলীর প্রতারণার বিরুদ্ধে এবং হিজল ভবনের ৮৪টি ফ্ল্যাটের রেজিষ্ট্রেশনের দাবীতে নগরীতে বিশাল মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। বুধবার সকাল ১১ টায় নগরীর উপশহরস্থ মাল্টিপ্ল্যান শাহজালাল সিটির সামনে হিজল ভবন ঔনার্স এসোসিয়েশনের উদ্যোগে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। মানববন্ধনে ফ্ল্যাট মালিকদের পরিবার পরিজনসহ বিপুল সংখ্যক মানুষ অংশ নেন।

ঔনার্স এসোসিয়েশনের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আতাউর রহমান কুনুর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক বদরুল ইসলাম সেলিমের পরিচালনায় মানববন্ধন চলাকালে ফ্ল্যাট মালিকদের পক্ষে বক্তব্য রাখেন আব্দুল কাদির, যুক্তরাজ্য প্রবাসী নূর মোহাম্মদ চৌধুরী, আশরাফ আহমদ পাঠোয়ারী, বিশিষ্ট চিকিৎসক ডাঃ জাকারিয়া, আব্দুল মতিন চৌধুরী, দিদারুল আলম, মাহবুবুল আলম, যুক্তরাজ্য প্রবাসী মোজাহিদ আলী, ডাঃ শাখাওয়াত, মো. মনিরুজ্জামান তাহমিদ, ডা. মো. নাছিমুজ্জামান প্রমুখ। এ সময় ফ্ল্যাট মালিকরা অভিযোগ করে বলেন, ফ্ল্যাট বিক্রি করে আমাদের নিকট থেকে কোটি কোটি টাকা আদায় করে সৈয়দ মুনসীফ আলী এখন রেজিষ্ট্রেশন করে দিচ্ছেননা। রেজিষ্ট্রেশনের জন্য বারবার তার নিকট গেলে ও কোন কাজ হচ্ছেনা। উল্টো তিনি আমাদের উপর শাস্তির খড়গ আরোপ করেছেন। নানা বিড়ম্বনা ও হুমকি-ধমকির শিকার হচ্ছেন ফ্ল্যাট মালিকরা। মুনসীফ আলী ফ্ল্যাট মালিকদের সাথে প্রতারণা করে কোটি কোটি টাকা বিদেশে পাচার করছেন। বছরের পর বছর অতিক্রম করে ও তিনি রেজিষ্ট্রেশন করে না দেয়ায় ইতিমধ্যে সরকারি রেজিষ্ট্রেশন ফি বেড়ে তিনগুণ হয়েছে। মালিকদের ন্যায়সংগত আন্দোলনের কারনে বাধ্য হয়ে ২০১৮ সালের ৩০ মার্চ মুনসীফ আলী ফ্ল্যাট মালিকদের সাথে এক সভায় মিলিত হয়ে রেজিষ্ট্রেশনে সময় ক্ষেপন হওয়ায় তিনি ফ্ল্যাট মালিকদের নিকট দুঃখ প্রকাশ করেন এবং ২০১৯ সালের মার্চ মাসের মধ্যে হিজল টাওয়ারের সকল ফ্ল্যাট রেজিষ্ট্রেশন করে দেবেন বলে লিখিতভাবে প্রতিজ্ঞা করেন। কিন্তু তিনি আজো কথা রাখেননি। হাউজিং ফি, সার্ভিস চার্জ ও সেলস পারমিশনের জন্য ১ লাখ ৬০ হাজার টাকা এবং জাতীয় গৃহায়ন কর্র্তৃপক্ষের অফিসে ঢাকা থেকে সিলেটে আসা যাওয়া, রেজিষ্টারী অফিসে যাথায়াত ও বিভিন্ন কাগজ সত্যায়ন বাবদ আরো ১ লাখ ৮০ হাজার টাকা করে ফ্ল্যাট মালিকদেরকে পরিশোধ করতে তিনি নির্দেশ দিয়েছেন যা অযৌক্তিক। হিজল ভবনের মাসিক সার্ভিস চার্জ ১২০০ টাকার পরিবর্তে আগামী মার্চ মাস থেকে ২৫০০ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে। এ সকল হিংসাত্বক মনোভাব পরিহার করে ফ্ল্যাট মালিকদের সকল দাবী মেনে নিতে মানবন্ধনে অনুরোধ জানানো হয়।

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন