ঢাকা, সোমবার, ১৪ অক্টোবর ২০১৯, ২৯ আশ্বিন ১৪২৬, ১৪ সফর ১৪৪১ হিজরী

মহিলা

এই অবসরে

প্রকাশের সময় : ১৯ জুলাই, ২০১৬, ১২:০০ এএম

শারমীন সুলতানা নূপুর
এইচএসসি পরীক্ষা শেষ। লম্বা ছুটি। এই ছুটিকে নিয়ে চলে নানা আয়োজন। কেউ কেউ আছেন এখানে সেখানে বেড়াতে খুব পছন্দ করেন আবার কেউ ঘোরাঘুরিও আড্ডার মাঝে নিজেকে কিছুর মধ্যে ব্যস্ত রাখতে চায়। যারা এসএসসি পরীক্ষা দিয়েছে তাদের খুব বড় বা ছোট বলা চলে না। বাংলা বা আঞ্চলিক যাই বলে এ সম্পর্কে অনেকেই বলে উঠতি বয়স অর্থাৎ গাছের ডালা, শাখা ও প্রশাখা মেলা আরম্ভ করে। তাই অবসরের এই উঠতি বয়সের সময় কিভাবে কাজে লাগানো যায় তা আমাদের প্রত্যেকেরই ভাবা উচিত। বসে থেকে সময় নষ্ট করার দিন আর নেই। প্রতিটি মুহূর্তই আমাদের জন্য মূল্যবান। অবসর সময়টুকু সঠিকভাবে কাজে লাগাতে পারলে তা আমাদেরকে সুন্দর ভবিষ্যৎ গড়তে সহযোগিতা করবে। বর্তমান যুগের ছেলে-মেয়েরা সবাই সব ধরনের কাজ করে। আমাদের বাড়ির আশেপাশেই রয়েছে বিভিন্ন রকম প্রশিক্ষণ কেন্দ্র। আমাদের হাতে সময় খুব কম তাই নিজের প্রয়োজন বুঝে প্রথমে বিষয় ঠিক করতে হবে তার পর প্রশিক্ষণের চিন্তা করতে হবে। কম্পিউটার আমাদের প্রতিটি ক্ষেত্রেই প্রয়োজন। কম্পিউটার কোর্সের মধ্যে রয়েছে ইউন্ডোজ পরিচিতি, এমএস, এক্সেল, পাওয়ার পয়েন্ট, ইন্টারনেট, ই-মেইল এবং হার্ডওয়্যার ও গ্রাফিক্স কোর্সসহ ইত্যাদি বিষয়। টাইপিং ও ইলেকট্রনিকসের প্রয়োজনীয়তা আমাদের জীবনে কম নয়। ফ্যাশন ডিজাইনিংয়ের ওপর হাতে-কলমে প্রশিক্ষণ দেয়ার মাধ্যমে ফ্যাশন ডিজাইনিং ও বুটিক সংশ্লিষ্ট যাবতীয় বিষয় শিখতে পারেন। শখ করে শিখলেও জীবনের প্রয়োজনেও তা লেগে যেতে পারে। পার্লারের কদর দিন দিন বেড়েই চলছে। নারী-পুরুষ প্রত্যেকেই নিজের সম্পর্কে বেশ সচেতন। অল্প সময়ের মধ্যে পার্লারের কোর্সগুলো শেষ করা যায়। নিজের পছন্দমত ত্বক, চুল সাজানো যায় আবার অন্যেকেও এ সম্পর্কে পরামর্শ দেয়া যায়। কাটিং এর বোধ করি আমাদের প্রত্যেকেরই জানা দরকার। কেননা অনেক সময় কাপড় কিনলেও মজুরির ভয়ে একটু দেরি করে বানাতে দেই অথবা যখন তখন কিনতে চাইলেও টেইলার্সের খরচের জন্য কিনতে পারি না। তাই কম বেশি সবাই যদি কাটিং দর্জি, ব্লক, বার্টিক ইত্যাদি সম্পর্কে জেনে রাখি তাহলে নিজের তৈরিতে নিজের পছন্দের ডিজাইনে পোশাক পরিধান করা যাবে। এছাড়া ইচ্ছে হলে নানা ডিজাইনে পোশাক তৈরি করে আপনজনদেরও দিতে পারি।
ইংরেজিতে আমরা খুবই দুর্বল। বাইরে পড়ার ইচ্ছে বা ভাল কোন জব করতে চাইলে অবশ্যই আমাদের ইংলিশ স্পিকিং, টোফেলসহ নানা বিষয় রপ্ত করতে হবে। যারা কিছুই করবেন না তারা নানা বিষয়ভিত্তিক বই পত্রিকা পড়তে পারেন। এছাড়া আরেকটি বিষয় আছে তা বেশ মজার, নাম তার লেখালেখি, লেখালেখির কাজটা সবার দ্বারা সম্ভব হয় না। যাদের ইচ্ছা, আগ্রহ ও ধৈর্য থাকবে তারাই লেখা-লেখির রাজত্বে রাজত্ব করতে পারবে। এখানে রয়েছে নানা বিষয়। যে বিষয়ে আগ্রহ বেশি সেই বিষয়েই লেখালেখি করা যাবে। বলা তো যায় না শখ করে লিখতে যেয়ে হয়ে যেতে পারেন সাংবাদিক।
আসলে আমাদের প্রত্যেককেই সময় মূল্য বুঝতে হবে আর কাজে লাগাতে হবে অবসরকে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন