ঢাকা শুক্রবার, ২৭ নভেম্বর ২০২০, ১২ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ১১ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

মাদকের সাথে পুলিশের যোগসূত্র থাকতে পারবে না

উত্তরায় ব্যারাক উদ্বোধনকালে আইজিপি

বিশেষ সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২৮ জুন, ২০২০, ১২:০০ এএম

মাদকের সাথে পুলিশের কোনো যোগসূত্র থাকতে পারবে না। এমন হুঁশিয়ারি দিয়েছেন আইজিপি ড. বেনজীর আহমেদ। গতকাল দুপুরে উত্তরা দিয়াবাড়িতে আঞ্চলিক পুলিশ লাইন্স ব্যারাক উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি আরো বলেন, কোনো পুলিশ সদস্য মাদক গ্রহণ বা মাদক ব্যবসার সাথে জড়িত থাকলে তার বিরুদ্ধে কঠিন ব্যবস্থা নেয়া হবে। এসময় তিনি আরও জানান, নানামুখী ব্যবস্থা নেয়ায় পুলিশে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা কমেছে। আক্রান্তের সংখ্যা জিরো পর্যায়ে নিয়ে আসতে নানা পরিকল্পনাও অব্যাহত রয়েছে বলে জানান আইজিপি।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী ২০৪১ সালে বাংলাদেশকে উন্নত দেশে পরিণত করার স্বপ্ন দেখছেন। উন্নত দেশের উপযোগী পুলিশ গড়তে কাজ করছেন। উন্নত দেশের পুলিশ হতে হলে সেবা জনগণের দোরগোড়ায় নিয়ে যেতে হবে বিট পুলিশিংয়ের মাধ্যমে, পুলিশকে মাদকমুক্ত হতে হবে, পুলিশে থেকে মানুষের কাছ থেকে অবৈধ সুবিধা নেয়া যাবে না। মানুষের প্রতি নিষ্ঠুরতা নয়, মানবিক আচরণ করতে হবে।

আইজিপি বলেন, মাত্র দুই সপ্তাহে রাজারবাগ কেন্দ্রীয় পুলিশ হাসপাতালকে ২৫০ থেকে ৫০০ বেডের কোভিড হাসপাতালে রূপান্তর করেছি। পুলিশ সদস্যদের চিকিৎসার জন্য ঢাকায় একটি উন্নত বেসরকারি হাসপাতাল ভাড়া করা হয়েছে, স্কুল-কলেজ এবং হোটেল ভাড়া করে আইসোলেশন সেন্টারে পরিণত করা হয়েছে। মাত্র ১২ দিনে কেন্দ্রীয় পুলিশ হাসপাতলে পিসিআর ল্যাব স্থাপন করা হয়েছে। ঢাকার বাইরে বিভাগীয় হাসপাতালগুলোকে আধুনিকায়ন করা হচ্ছে। এর ফলে পুলিশ সদস্যরা দ্রুত সুস্থ হয়ে উঠছেন এবং মৃত্যুর হার কমছে। তিনি বলেন, করোনা আক্রান্ত হয়ে জাতীয় পর্যায়ে মৃত্যুর হার ১ দশমিক ৩ ভাগ। পুলিশে মৃত্যুর হার মাত্র দশমিক ৫ ভাগ।

ড. বেনজীর আহমেদ, ঢাকায় নিযুক্ত বিভিন্ন দেশের দূতাবাসে কর্মরত কর্মকর্তাদের মাধ্যমে তাদের দেশের প্যানডেমিক পুলিশিং গাইডলাইন, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাসহ আন্তর্জাতিক ও আঞ্চলিক বিভিন্ন দেশের গাইডলাইন সংগ্রহ করে বাংলাদেশ পুলিশের উপযোগী ‘প্যানডেমিক পুলিশিং স্ট্যান্ডার্ড অপারেটিং প্রসিডিউর (এসওপি)’ তৈরি করেছি। আমাদের একজন পুলিশ কনস্টেবলও জানেন, কিভাবে প্যানডেমিক পুলিশিং করতে হয়। করোনা সংক্রমণ কিভাবে শূন্যের কোটায় নামিয়ে আনা যায় সে লক্ষ্যে কাজ করছি।

আইজিপি আরও বলেন, পুলিশ সদস্যদের আবাসিক সঙ্কট নিরসনের লক্ষ্যে স্বল্পমেয়াদে অস্থায়ী ভিত্তিতে ব্যারাক ভবন নির্মাণ করেছি। ডেমরায় করা হয়েছে, উত্তরাতে হলো। পূর্বাচলেও ব্যারাক ভবন নির্মাণ করব। দীর্ঘমেয়াদে বহুতল ভবন নির্মাণের দিকে যাব। পুলিশ ফোর্সের বসবাসের ঘনত্ব কমিয়ে তাদের জন্য স্বস্তিদায়ক আবাসনের ব্যবস্থা করতে চাই। তিনি ব্যারাক ভবন নির্মাণে সহযোগিতা করার জন্য আবুল খায়ের গ্রুপকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানান।
অনুষ্ঠানে ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) কমিশনার মোহা. শফিকুল ইসলামের সভাপতিত্বে অতিরিক্ত আইজি ড. মো. মইনুর রহমান চৌধুরী, আবুল খায়ের গ্রুপের ডেপুটি ম্যানেজিং ডিরেক্টর মো. আবু সাঈদ চৌধুরী প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (1)
Nadim ahmed ২৭ জুন, ২০২০, ১০:১৭ পিএম says : 0
Drugs, Bribe & Police are Bhai Bhai.
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন