ঢাকা, সোমবার, ১০ আগস্ট ২০২০, ২৬ শ্রাবণ ১৪২৭, ১৯ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

জাজিরায় আধিপত্য বিস্তার নিয়ে সংঘর্ষ, নিহত ১ আহত ২০

শরীয়তপুর জেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২৯ জুন, ২০২০, ১২:০০ এএম

জাজিরায় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে দুই পক্ষের সংঘর্ষে রিয়াজ মাদবর (১৭) নামে একজন গুলিবিদ্ধ হয়ে নিহত হয়েছে। এ ঘটনায় আরো ৪ জন গুলিবিদ্ধসহ উভয় পক্ষের আরও ২০ জন নারী-পুরুষ আহত হয়েছেন। আহতদের জাজিরা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সেসহ বিভিন্ন প্রাইভেট ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়েছে। গুলিবিদ্ধ ৩ জনকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় ঢাকায় প্রেরণ করা হয়েছে।
জাজিরা থানা ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, সেনেরচর ইউনিয়নের ভোলাই মুন্সি কান্দি গ্রামের মন্টু বেপারী ও পার্শ্ববর্তী শাকিম আলী মাদবর কান্দির এমদাদ মাদবর গ্রুপের মধ্যে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছে। গত শনিবার সন্ধ্যার দিকে মন্টু বেপারীর সমর্থক দুদু মিয়া ও এমদাদ মাদবরের সমর্থক আওলাদ মাদবর তর্ক বিতর্কে জড়িয়ে পরে। এ নিয়ে এক পর্যায়ে আগ্নেস্ত্রসহ দেশীয় অস্ত্রেসস্ত্রে সজ্জিত হয়ে উভয় পক্ষের সমর্থকরা সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েন।
প্রায় ২ ঘণ্টাব্যাপী সংঘর্ষে এমদাদদ মাদবরের পক্ষে রিয়াজ মাদবর (১৭) আবুল বাশার বেপারী (৬৫), তানজিল মাদবর (২২), রিমান মাদবর (২৭) রাজ্জাক মাদবর (৬৫) গুলিবিদ্ধ হয়। অপর পক্ষের মন্টু বেপারী, (৫১) রিপন মাদবর (৩০), বেগম রোকেয়া টিুটু সরদারসহ উভয় পক্ষের নারী-পুরুষসহ অন্তত ২০ জন আহত হয়। আহতদের উদ্ধার করে জাজিরা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়ার পর কর্তব্যরত চিকিৎসক রিয়াজ মাদবরকে সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে মৃত ঘোষণা করেন। সংঘর্ষ চলাকালে উভয় পক্ষের অন্তত ১০টি ঘরবাড়ী ভাঙচুর ও লুটপাটের ঘটনা ঘটে। এ ব্যাপারে এমদাদ মাদবরের সমর্থক করিম মাষ্টার বলেন, মন্টু বেপারী তার লোকজনসহ লাইসেন্স করা বন্দুক ও একটি সর্টগান দিয়ে এমদাদ মাদবরের সমর্থকদের উপর এলোপাথারি গুলি করে। এতে রিয়াজ মাদবর গুলিবিদ্ধ হয়ে মারা যান এবং আমাদের পক্ষে আরো ৪ জন গুলিবিদ্ধসহ ১২ জন আহত হয়েছে। এ সময় মন্টু বেপারীর লোকজন আমার ঘরবাড়ীসহ আমাদের পক্ষের ৪টি বাড়ী ভাংচুর ও লুটপাট করে। আমরা প্রশাসনের নিকট হত্যাকান্ডসহ এ সন্ত্রাসী কার্যক্রমের বিচার দাবী করছি।
নিহতের মা হেলেনা বেগম বলেন, বিকালে মোবাইল নিয়ে আমার ছেলে ঘর থেকে বের হয়ে বাশার বেপারীর বাড়ির সামনে যায়। কিছুক্ষন পরে গুলি ও ককটেল বোমার শব্দ পেয়ে আগাইয়া দেখি আমার ছেলে রক্তাক্ত অবস্থায় পাট ক্ষেতের পাশে পড়ে আছে। আমার ছেলেকে মন্টু বেপারী গুলি করে হত্যা করেছে।
জাজিরা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. আজহারুল ইসলাম সরকার বলেন, আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে মন্টু বেপারী ও এমদাদ মাদবরের গ্রুপের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলছে। এ বিরোধের জের ধরে সংঘর্ষে একজন নিহত হয়েছে। নিহত ব্যাক্তির বিভিন্ন স্থানে জখমের চিহ্ন রয়েছে। এ সংবাদ লেখা পর্যন্ত জাজিরা থানায় এখনো মামলা হয়নি। তবে মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে জানিয়েছেন পুলিশ।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন