ঢাকা বুধবার, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৫ আশ্বিন ১৪২৭, ১২ সফর ১৪৪২ হিজরী

সারা বাংলার খবর

ধৈর্য ধরুন সব সত্য কথা আমরা দেশবাসীকে জানাব -শিপ্রা ও সিফাত

কক্সবাজার ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ১১ আগস্ট, ২০২০, ৯:১১ এএম

পুলিশের গুলিতে নিহত সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খানের দুই সহযোগী শিপ্রা ও সিফাত এখন মুক্ত কারামুক্ত।
মেজর সিনহা পুলিশের গুলিতে নিহত হওয়ার সময় তারা দুজন ছিলেন প্রত্যক্ষদর্শী সাক্ষী। পুলিশের গুলিতে মেজর সিনহা নিহত হওয়ার পর পুলিশ তারা দুইজনকে আটক করে এবং তিনটি মামলায় তাদেরকে কারাগারে পাঠিয়েছিল।
আদালতে নির্দেশে শিপ্রা রবিবারে এবং সিফাত সোমবারে কক্সবাজার কারাগার থেকে জামিনে মুক্তি পান। তারা দুইজন এখন মেজর সিনহা হত্যা মামলার অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ সাক্ষী।

ইতিমধ্যে পরিস্থিতি পাল্টে গেলে চাঞ্চল্যকর এই হত্যা মামলায় টেকনাফের সাবেক ওসি প্রদীপ কুমার দাশ ও শামলাপুর পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের আইসি লিয়াকতসহ ৯ পুলিশ সদস্যকে আসামি করে আদালতে হত্যা মামলা দায়ের করেন মেজর সিনহার বোন শারমিন শাহরিয়ার ফেরদৌস।

এতে করে ওসি প্রদীপ ও আইসি লিয়াকতসহ ৭ আসামী ৬ আগষ্ট কক্সবাজার আদালতে আত্মসমর্পণ করে। কারাগার থেকে জামিনে মুক্ত হয়ে আসেন মেজর সিনহার দুই সহয়োগী নিরপরাধ শিপ্রা ও সিফাত।

সোমবার রাতে শিপ্রা ও সিফাত এক সংক্ষিপ্ত সংবাদ সম্মেলনে বলেন, তারা দেশবাসীর প্রতি কৃতজ্ঞ। তারা একটু সময় চেয়ে বলেছেন- আমরা স্যারকে (মেজর সিনহা) কিভাবে হত্যা করা হয়েছে সবই বলব। তবে আমাদেরকে একটু সময় দিন।

শিপ্রা বলেন, প্লিজ প্রে ফর আস। আপনারা আমাদের পাশে ছিলেন এজন্য আমরা কৃতজ্ঞ। আশাকরি আগামীতেও আমাদের পাশে থাকবেন।
আমরা প্রত্যেকটা সত্য কথা বলব। কিছু গুজব ছড়ানো হচ্ছে। আমরা সব সত্য কথা দেশবাসীকে জানাব। আজ এতটুকুই। ধৈর্য ধরুন আমাদের একটু সময় দিন।

সিফাত বলেন, আমি কারাগার থেকে বের হয়ে পরিবারের সাথেই আছি। আমি সুস্থ আছি।
এসময় তাদের দুইজনের পরিবারের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

সাহেদু ইসলাম সিফাত ও শিপ্রা রানী দেবী দুইজই ঢাকা স্টামফোর্ড ইউনিভার্সিটির ছাত্র এবং নিহত মেজর সিনহার নির্মিতব্য চলচিত্রের সহযোগী। তারা গত ৩ জুলাই কক্সবাজার আসেন এবং হিমছড়ি সৈকতের নীলিমা রিসোর্টে উঠেন।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (12)
মেরাজুল ইসলাম ১১ আগস্ট, ২০২০, ১২:৩৩ পিএম says : 0
হে আল্লাহ তুমি আমাদের এই দেশের সকল মানুষকে হেফাজত করো
Total Reply(0)
দিদার ১১ আগস্ট, ২০২০, ৯:৪১ পিএম says : 0
বেশি সময় না নিয়ে এবং কোনো কিছুতেই প্রভাবিত না হয়ে প্রকৃত সত্য ঘটনা বলবেন আশা করছি । দেশের মানুষ ন্যায্য বিচার প্রত্যাশা করে ।
Total Reply(0)
পারভেজ ১১ আগস্ট, ২০২০, ১২:৩২ পিএম says : 0
আমরা সত্য জানার অপেক্ষায় রইলাম
Total Reply(0)
ইসমাইল ১১ আগস্ট, ২০২০, ১২:৩৩ পিএম says : 0
আপনাদেরকে খুব সাবধানে থাকতে হবে
Total Reply(0)
শহিদুল ইসলাম ১১ আগস্ট, ২০২০, ১২:৩৬ পিএম says : 0
অন্যায়ের কাছে কখনও মাথা নত করবেন না
Total Reply(0)
ওয়াহিদ ১১ আগস্ট, ২০২০, ১২:৩৭ পিএম says : 0
কবে আমরা আসল সত্য জানতে পারবো?
Total Reply(0)
আবুল কাশেম ১১ আগস্ট, ২০২০, ১২:৩৮ পিএম says : 0
মেজর সিনহা কে হারিয়ে দেশ আজ শোকাহত
Total Reply(0)
ম নাছিরউদ্দীন শাহ ১১ আগস্ট, ২০২০, ১:২৪ পিএম says : 0
মেজর(অব)সিনহার জীবন্ত সাক্ষী মুখে তালা লাগিয়েছেন কেন?? ইলেকট্রনিক প্রিন্ট মিডিয়ার রাতদিন পরিশ্রম দেশের মানুষের সত‍্য জানার শুনার একমাত্র মাধ্যম কে সুন্দর করে বুঝিয়ে বললেন ধৈর্য্য ধরু (সবর ফল মিটা হোতাহে) মানুষের আদালতে জনগণের আদালতে সত‍্য বলার মত শারীরিক সুস্থতা ইলেকট্রনিক মিডিয়াতে দেখেছি। আমাদের ধৈর্য্য দরার পরামর্শ ধৈর্য্ ধরতে হবে সাধারণ মানুষের। প্রশাসনিক চাপ বা আতঙ্ক। কিছুইতো হবে? এটি বাহির করা কৌশলী পেশাদারিত্ব সাংবাদিকতা দেখলাম না । ব‍্যর্থ সাংবাদিকতা দেখলাম
Total Reply(0)
rusho rayhan ১১ আগস্ট, ২০২০, ৪:০২ পিএম says : 0
ধৈর্য..ধৈর্য...এই ধৈর্য ধরতে ধরতে বাংগালি আজ মেরুদণ্ডহীন জাতিতে পরিনত হয়েগেছে।আরও ধৈর্য ধরতে বলছেন?নাকি আপনারা চিন্তা ভাবনা করেনিতে চাচ্ছেন কার পক্ষে সাক্ষি দিবেন,পুলিশের নাকি মানবতার.??
Total Reply(0)
মোহাম্মদ আলিম উদ্দিন ১২ আগস্ট, ২০২০, ৮:২৮ এএম says : 0
প্রয়োজনে দেশের জন্য আবারো রক্ত দেবো।তার পরেও ভারতের কোন তাঁবেদারি করবোনা।আপরানা সত্য ঘটনা দেশ বাসীর সামনে তোলে দরুন।আমরা অপেক্ষায় রহিলাম।
Total Reply(0)
মোহাম্মদ আলিম উদ্দিন ১২ আগস্ট, ২০২০, ৮:৩১ এএম says : 0
প্রয়োজনে দেশের জন্য আবার রক্ত দেবো তবুও ভারতের তাঁবেদারি করবোনা।আপনারা সত্য ঘটনা দেশে বাসীর সামনে তুলে দরুন। আমরা শুনার অপেক্ষায় রহিলাম।
Total Reply(0)
rokon ১২ আগস্ট, ২০২০, ৯:৪৪ এএম says : 0
Ekhn blte na prle poreo blte prbe,kotha sob filter korte hbe
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন