ঢাকা শনিবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১১ আশ্বিন ১৪২৭, ০৮ সফর ১৪৪২ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

লাদাখ-গুজরাতও নিজেদের দাবি পাকিস্তানের : ক্ষুব্ধ ভারতের ওয়াক আউট

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৬ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ১০:৪৭ এএম

জম্মু-কাশ্মীরের পর এবার লাদাখ এবং গুজরাতকে নিজেদের দাবি পাকিস্তান। মঙ্গলবার এক সভায় এমনটাই দাবি করেন পাকিস্তানের কর্মকর্তারা। পাকিস্তানের নতুন ম্যাপ ৫ আগস্ট প্রকাশ করেন প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। ম্যাপে জম্মু ও কাশ্মীর, লাদাখ এবং পশ্চিম গুজরাটের কিছু অংশ পাক এলাকা হিসাবে দেখানো হয়েছে। তবে এই প্রথম এটি কোনো আন্তর্জাতিক বৈঠকে ভারতের উপস্থিতিতে উপস্থাপন করা হল।

যখন দিল্লি আর বেইজিং এর সংঘাত নিয়ে দুই দেশেই উত্তপ্ত পরিস্থিতি তখন পাকিস্তান ভারতের জন্য নতুন চিন্তার উদ্রেগ করলো। ভারতের একাধিক ভূখণ্ড তাদের মানচিত্রে সংযুক্ত করে ভারতকে ভালোই বিব্রত করলো পাকিস্তান।

'সাংহাই কো-অপারেশন অর্গানাইজেশনে'র সদস্য দেশগুলির আয়োজনে ভার্চুয়াল মিটিং অনুষ্ঠিত হয় মঙ্গলবার (১৫ সেপ্টেম্বর)। এই মিটিংয়ে পাকিস্তানের নতুন এই ম্যাপ দেখার পর 'ন্যাশনাল সিকিউরিটি অ্যাডভাইসার (এনএসএ)-র এই ভার্চুয়াল মিটিং থেকে ক্ষুব্ধ হয়ে বের হয়ে যায় ভারত। এই মিটিংয়ে পাকিস্তান তাদের দেশের যে নতুন ম্যাপটি তুলে ধরে তাতে দেখা যায়, জম্মু ও কাশ্মীর, লাদাখ এবং গুজরাতের কিছু অংশ অবলীলায় পাকিস্তানের সেই মানচিত্রে রয়ে গেছে।

প্রসঙ্গত, যে মানচিত্রটি পাকিস্তান দেখিয়েছে তা আগস্ট মাসের ৪ তারিখে তৈরি করেছিল। মিটিংয়ে পাকিস্তানের এরকম আচরণ স্বভাবতই ভালভাবে নেয়নি ভারত। তাই ভারত রেগেমেগে বৈঠক ছেড়ে বেরিয়ে গেলেন জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা অজিত দোভাল। পাকিস্তানের এই আচরণকে 'এক্সারসাইজ ইন পলিটিক্যাল অ্যাবসারডিটি' বলে উল্লেখ করল নয়াদিল্লি।

এই ঘটনায় ভারতের পররাষ্ট্র মুখপাত্র অনুরাগ শ্রীবাস্তব জানান, এনএসএ-র এই মিটিংয়ে পাকিস্তান ইচ্ছাকৃতভাবে একটি কাল্পনিক মানচিত্র তুলে ধরেছে। যে কোনও আলোচনার আসরে এই ধরনের কাজ তো মিটিংয়ের মূল লক্ষ্যটিকেই ব্যাহত করে। তা ছাড়া মিটিংয়ের হোস্টের পক্ষেও এটা বেশ অবমাননাকর ব্যাপার।
ঘটনা হল, আসল মানচিত্র যা-ই হোক, আর পাকিস্তান যে মানচিত্রই বৈঠকে তুলে ধরুক তার তুল্যমূল্য বিচার নিয়ে পাকিস্তানের তরফে কোনও স্পষ্ট ও স্বচ্ছ বক্তব্য পাওয়া যায়নি। তবে বৈঠক থেকে বেরিয়ে যাওয়ায় ভারতকে সমালোচনা করতেও ছাড়েনি তারা। পাকিস্তান জানায়, যে-ফোরামের কাজই সহযোগিতার আবহ তৈরি করা সেই রকম একটি মঞ্চ থেকে ভারতের এই ভাবে বেরিয়ে যাওয়াটা বেশ বাজে একটা ব্যাপার।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (10)
এ, কে, এম জামসেদ ১৬ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ১১:২৬ এএম says : 0
বৃটিশরা মুসলিমদের ঠকানোর জন্য এমনভাবে ভারত পাকিস্থান ভাগ করেছে।
Total Reply(0)
Mohammed Kowaj Ali khan ১৬ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ১২:৩৮ পিএম says : 0
বাংলাদেশের ও নতুন ম্যাপ করা উচিৎ। মূরশিদাবাদ আমাদের করিমগঞ্জ সমস্ত আমাদের। আর যত জায়গায় ভারত এন আর চি করিতেছে এ সবই বাংলাদেশের। ইনশাআল্লাহ।
Total Reply(0)
Muhammad Kamal Pasha ১৬ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ৩:৫৭ পিএম says : 0
দাবী সত্য ।
Total Reply(0)
Shimul ১৬ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ৩:৫৮ পিএম says : 0
তাও তো বলার সাহস দেখাল আর আমরা সিমান্তে লুঙ্গী কাছা দেয়ার ই সাহস নাই
Total Reply(0)
নওরিন ১৬ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ৩:৫৬ পিএম says : 0
বাংলা, বিহার, উড়িস্যাও আমাদের। এই অঞ্চলের স্বাধীন নবাব ছিলেন নবাব সিরাজ উদ দৌলা।
Total Reply(0)
Saddad Hossain ১৬ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ৩:৫৭ পিএম says : 0
Good idea
Total Reply(0)
Muhammad Rayhan ১৬ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ৩:৫৭ পিএম says : 0
নেপাল, পাকিস্তান, চীন তাদের দাবি জানাচ্ছে, শুধু আমরাই পারলাম না,,, তবে এই তিন দেশ ইন্ডিয়াকে ভালো করে বাঁশ দিলেই হবে,,
Total Reply(0)
Mostafizur rahman ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ২:৪৫ এএম says : 0
India muslimder sathe annai korse 1947 theke. India sorker er uchit jammu,Kashmir,ladakh ebong Gujrat e gonovote deya kintu dissena. Eti khubi annai.pakistan er dabi ke challenge korte lndia er uchit gonovote deya.
Total Reply(0)
Mostafizur rahman ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ২:৪৬ এএম says : 0
India muslimder sathe annai korse 1947 theke. India sorker er uchit jammu,Kashmir,ladakh ebong Gujrat e gonovote deya kintu dissena. Eti khubi annai.pakistan er dabi ke challenge korte lndia er uchit gonovote deya.
Total Reply(0)
Zahedalam ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ৩:১৪ পিএম says : 0
Help of China insahallah Assam will be the part of Bangladesh.
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন