ঢাকা শুক্রবার, ৩০ অক্টোবর ২০২০, ১৪ কার্তিক ১৪২৭, ১২ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

লাদাখে সেনা হত্যার পরেও চীনের কাছ থেকে মোটা ঋণ নিয়েছে ভারত

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ১২:২৫ পিএম

যুদ্ধের ডঙ্গা চারদিকে। সীমান্তে একের পর এক ভূমি দখলে নিচ্ছে চীন। সেনা হারানোর পর সুর গরম করলেও কার্যক্রমে বেশ নরম ভারতের মোদি সরকার। বার বার চেষ্টা করছে চীনকে থামানোর জন্য। কারণ ভারত কোনোভাবেই চায় না চীনের সঙ্গে যুদ্ধে যেতে। অর্থনীতি, রাজনীতি আর যুদ্ধের সরঞ্জামে চীনের সঙ্গে পারবে না মোদির সৈন্যরা। লাল ফৌজের মোকাবিলায় তারা অক্ষম। তবে এসব খবরকে পেছনে পেলে সেদেশের রাজনীতিতে চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে নতুন একটি খবরে। সেনা নিহতের পরও চীনের কাছ থেকে মোটা অঙ্কের ঋণ নিয়েছে ভারতে সরকার। এই নিয়ে চলছে তুমুল হৈই ছৈই।

এই তথ্য সামনে আসার পর থেকেই বিজেপি সরকারের বিরুদ্ধে সরব হয়েছেন বিরোধীরা। তাদের দাবি, যুদ্ধ-যুদ্ধ ভাব দেখিয়ে কেন্দ্রীয় সরকার জনগণের চোখে ধুলো দিচ্ছে। কারণ, সীমান্তে যতই উত্তেজনা থাক, চীনের সঙ্গে আর্থিক-কূটনৈতিক সব সম্পর্কই বজায় রেখেছে মোদি সরকার। বলা হচ্ছে, চীনের কাছ থেকে আর্থিক সুবিধা পাচ্ছে বলেই দেশটির বিরুদ্ধে সুর নরম ভারত সরকারের।

জানা গেছে, চার দশক পর চীন সীমান্তে আবারও রক্ত ঝরেছে ভারতীয় সেনাদের, প্রাণ হারিয়েছেন ২০ জন। দেশপ্রেমের জিগির তুলে শতাধিক চীনা অ্যাপ নিষিদ্ধ করেছে ভারত সরকার। তবে সেগুলো কি শুধুই লোকদেখানো? প্রশ্নটা এবার সবার মুখেই। কারণ, সীমান্তে এই উত্তেজনার মধ্যেই চীনের একটি ব্যাংক থেকে নয় হাজার কোটি রুপি ঋণ নিয়েছে ভারত।

বুধবার ভারতীয় পার্লামেন্টে চীনের কাছ থেকে ঋণ নেয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন দেশটির কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী অনুরাগ ঠাকুর। তিনি জানিয়েছেন, অবঠামো খাতে উন্নয়নের জন্য চীনের এশিয়ান ইনফ্রাস্ট্রাকচার ইনভেস্টমেন্ট ব্যাংকের (এআইআইবি) সঙ্গে দু’টি ঋণচুক্তি করেছে ভারত সরকার। প্রায় ৩ হাজার ৬৭৬ কোটি রুপির প্রথম চুক্তিটি সই হয় গত ৮ মে। এই অর্থ করোনা মোকাবিলা এবং চিকিৎসা খাতে ব্যয় করা হয়েছে।

দ্বিতীয় ঋণচুক্তিতে প্রায় ৫ হাজার ৫১৪ কোটি রুপি পেয়েছে ভারত। এই চুক্তিটি হয়েছিল গত ১৯ জুন, অর্থাৎ ১৫ জুন সীমান্ত সংঘর্ষে ভারতীয় সেনারা প্রাণ হারানোর চারদিন পরেই।
সূত্র: সংবাদ প্রতিদিন

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (10)
abul kalam ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ৫:১৬ পিএম says : 0
ভারত চীনের সাথে কখনো সংঘর্ষে যাবে না,যুদ্ধে গেলে ভারত টুকরো হবে, যেটা আমিও চাই
Total Reply(0)
Mohiuddin Faruk ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ৫:৪০ পিএম says : 0
ঋন নয়। ঐ অংশটি ভারত চীনের কাছে বিক্রী করে দিচ্ছে।
Total Reply(0)
Jasim Vhai ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ৫:৪০ পিএম says : 0
মোদি ভারতকে ভিখারী রাস্ট্র বানিয়ে ছাড়বে।
Total Reply(0)
Md Abdur Rahim ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ৫:৪০ পিএম says : 0
এই টাকা আর ফেরৎ দিবো বলে মনে হয় না। চীনের টাকা দিয়া চীনের সাথে যুদ্ধ করবো ভারত।
Total Reply(0)
Muhammad Rayhan ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ৫:৪০ পিএম says : 0
ভারতের বড় বড় ডায়লগের কি হলো?
Total Reply(0)
Faysal Ahmmed ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ৫:৪১ পিএম says : 0
কি লজ্জা কি লজ্জা,,,,,ভারত তো একটা ভিখারি,,,,,,,,ভারতীয়দের লজ্জা,,,,,,বেহায়া দেশ,,,,অহংকারীর পতন এইভাবেই হতে হয়,,,
Total Reply(0)
Nayeem Nahid ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ৫:৪১ পিএম says : 0
খয়রাতি আসলে কে ভারত নাকি বাংলাদেশ!
Total Reply(0)
ash ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ৩:১৮ এএম says : 0
JUST A BEGGER COUNTRY
Total Reply(0)
সৈয়দ আদনান ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ২:৩৭ পিএম says : 0
এমন করে বলে না ফয়সাল ভাই!
Total Reply(0)
Badar ২০ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ৬:৩৪ পিএম says : 0
ভারত চীন উভয় দেশ পরমানু শক্তিশালী যুদ্ধ কখনও হবেনা। মোদির নমনীয়তা প্রশংসনীয়। যুদ্ধ হলে বাংলাদেশ ও পরমানুর প্রভাব পরবে। দোয়া রইল সবার মঙ্গলের।
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন