ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২৯ অক্টোবর ২০২০, ১৩ কার্তিক ১৪২৭, ১১ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী

সারা বাংলার খবর

সিংড়ায় নদ নদীর পানি আবারো বিপদ সীমার উপরে, অল্পের জন্য রক্ষা পেলো সেতু

সিংড়া(নাটোর) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ৩০ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ২:৩৭ পিএম

নাটোরের সিংড়ায় আত্রাই ও বারনই নদীর পানি আবারো বিপদ সীমার উপরে। অস্বাভাবিক ভাবে পানি বৃদ্ধির ফলে শেরকোল ও তাজপুর ইউপির বিভিন্ন এলাকার মানুষের ঘর-বাড়ি ও দোকান পাঠের ভিতর পানি টুকে পড়েছে। বুধবার সকাল থেকে পৌর মেয়র জান্নাতুল ফেরদৌস ও মেয়র প্রার্থী অধ্যক্ষ গোলাম মহিউদ্দিন টিপু মানুষের বাড়ি বাড়ি গিয়ে খোজ-খবর নিচ্ছেন। এদিকে বালি বোঝাই ট্রলারের ধাক্কায় আত্রাই নদীর উপর নির্মিত ব্রীজে ক্ষয়ক্ষতির আশংকায় ব্রীজের উপর দিয়ে অতিরিক্ত পণ্য বোঝাই ট্রাক এবং ব্রীজের নিচ দিয়ে (নৌ পথে) ভারি ট্রলার ও বড় নৌকা চলাচলে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে স্থানীয় প্রশাসন। পানি বৃদ্ধি অব্যহত থাকলে নাটোর-বগুড়া (জাহাঙ্গারীবাদ) মহাসড়ক সড়ক দিয়ে যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে যেতে পারে।

মঙ্গলবার বিকেলে বালি বোঝাই একটি বড় ট্রলার আত্রাই নদীর সিংড়া ফেরী ঘাট এলাকায় সিংড়া বড় ব্রীজের নিচ দিয়ে যাওয়ার সময় নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ব্রীজের সাথে ধাক্কা লাগে। এসময় ব্রীজটিতে বড় ঝাকুনি লাগলে পথচারীরা আতংকিত হয়ে ছোটাছুটি করতে থাকেন। এসময় ব্রীজের দু’পারে অসংখ্য যানবাহন আটকা পড়লে যানজটের সৃষ্টি করে। খবর পেয়ে উপজেলা প্রশাসনের কর্মকর্তা ও পুলিশ ঘটনাস্থলে ছুটে যান এবং পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনেন। উপজেলা প্রশাসন ব্রীজটি রক্ষায় তাৎক্ষনিকভাবে আত্রাই নদীসহ উপজেলা সমুহের নদনদীতে বালি বা অন্য কোন পণ্য বোঝাই ভারি ট্রলার চলাচল নিষিদ্ধ ঘোষনা করে। ৩০ সেপ্টেম্বর থেকে অতিরিক্ত পণ্য বোঝাই ট্রাক চলাচলে চেক পোষ্ট বসানো হয়েছে। বালি ব্যবসায়ী আকরাম হোসেন জানান, শতাধিক বালু ব্যবসায়ী আত্রাই থেকে বালি তুলে বড় ট্রলারে করে এনে ব্যবসা করেছেন। আত্রাই ও বারনই নদীর পানি অস্বাভাবিক বৃদ্ধি পাওয়ায় সিংড়া সদর পৌর এলাকার গোডাউন পাড়া, সরকার পাড়া, নিংগইন সহ শেরকোল ও তাজপুর ইউপির অনেক মানুষের ঘর-বাড়ি নতুন করে তলিয়ে গেছে। উপজেলা নির্বাহী অফিসার নাসরিন বানু বলেন,বালি বোঝাই বড় ট্রলারের ধাক্কায় সিংড়া ব্রীজের ক্ষতি হওয়ার সংবাদ পাওয়ার পর পরই উপজেলা সহকারী কমিশনার (এসি ল্যান্ডকে) ঘটনাস্থলে পাঠানো হয়। এছাড়া এলজিইডি ও সড়ক বিভাগের প্রকৌশলীরাও সেখানে যান। ওই ট্রলারের ধাক্কায় বড় ধরনের কোন ক্ষয়ক্ষতি হয়নি। তবে বিষয়টি আরও খতিয়ে দেখা হচ্ছে বলে তিনি জানিয়েছেন।

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন