ঢাকা শুক্রবার, ১৫ জানুয়ারি ২০২১, ০১ মাঘ ১৪২৭, ০১ জামাদিউল সানী ১৪৪২ হিজরী

খেলাধুলা

সিটির মাঠে লিভারপুলের ড্র

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৯ নভেম্বর, ২০২০, ৯:৪৫ এএম

ম্যানচেস্টার সিটির মাঠ থেকে ড্র নিয়ে ফিরেছে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন লিভারপুল। রোববার সিটির মাঠ ইতিহাদ স্টেডিয়ামে ম্যাচটি ১-১ গোলে ড্র হয়। ম্যাচটি জিতলে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের পয়েন্ট তালিকার শীর্ষে ফেরার সুযোগ ছিল অলরেডসদের সামনে। কিন্তু সিটি তা হতে দিল না। খেলার ত্রয়োদশ মিনিটে ডি-বক্সে সাদিও মানেকে সিটির ডিফেন্ডার কাইল ওয়াকার ফাউল করলে পেনাল্টির বাঁশি বাজিয়েছিলেন রেফারি।

আক্রমণ-পাল্টা আক্রমণে জমে ওঠা ম্যাচের শুরুর দিকে এগিয়ে গেল লিভারপুল। জবাব দিতে বেশি সময় নেয়নি ম্যানচেস্টার সিটি। বাকি সময়ে অবশ্য আর জালের দেখা পেল না কেউ। অমীমাংসিতভাবে শেষ হলো শিরোপা প্রত্যাশী দুই দলের লড়াই।

সিটির মাঠ ইতিহাদ স্টেডিয়ামে রোববার ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের ম্যাচটি ১-১ গোলে ড্র হয়। মোহামেদ সালাহর গোলে শিরোপাধারীরা এগিয়ে যাওয়ার পর সমতা টানেন গাব্রিয়েল জেসুস।

সিটিকে হারিয়ে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে ফেরার সুযোগ ছিল লিভারপুলের, কাজে লাগাতে পারল না তারা।

ত্রয়োদশ মিনিটে সালাহর সফল স্পট কিকে এগিয়ে যায় সফরকারীরা। ডি-বক্সে সাদিও মানেকে সিটির ডিফেন্ডার কাইল ওয়াকার ফাউল করলে পেনাল্টির বাঁশি বাজিয়েছিলেন রেফারি।

২৫তম মিনিটে সমতা ফেরানোর ভালো একটি সুযোগ পেয়েছিল সিটি। ডান দিক থেকে কেভিন ডে ব্রুইনে ক্রস বাড়ান ডি-বক্সে। বল নিয়ন্ত্রণে নিয়ে ছোট ডি-বক্সের কোনা থেকে রাহিম স্টার্লিংয়ের নেওয়া শট পা দিয়ে প্রতিহত করেন গোলরক্ষক আলিসন।

এর পাঁচ মিনিট পরই অবশ্য দলকে সমতায় ফেরান জেসুস। ডান দিক থেকে ওয়াকারের বাড়ানো বল খুঁজে পায় ডে ব্রুইনেকে। এই মিডফিল্ডারের পাসে ডি-বক্সে বল পেয়ে প্রথম স্পর্শে নিজের দুই পায়ের মাঝ দিয়ে ফ্লিক করে একটু এগিয়ে বাঁ পায়ের শটে ঠিকানা খুঁজে নেন ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড জেসুস।

৪২তম মিনিটে পেনাল্টি থেকে বল বাইরে মেরে এগিয়ে যাওয়ার সুযোগ নষ্ট করেন ডে ব্রুইনে। ভিএআরের সাহায্যে হ্যান্ডবলের কারণে পেনাল্টি দিয়েছিলেন রেফারি। বিরতির আগে খুব কাছ থেকে ট্রেন্ট অ্যালেকজ্যান্ডার-আর্নল্ডের নেওয়া শট ফিরিয়ে সিটির ত্রাতা গোলরক্ষক এদেরসন।

দ্বিতীয়ার্ধের প্রথম পাঁচ মিনিটে দুটি প্রচেষ্টা রুখে দেন দুই দলের দুই ব্রাজিলিয়ান গোলরক্ষক। ৫৬তম মিনিটে ভালো একটি সুযোগ নষ্ট হয় সিটির। রদ্রির ক্রস থেকে বাইরে দিয়ে হেড নেন অরক্ষিত জেসুস।
বাকি সময়ে একের পর এক আক্রমণ করে গেছে দুই দল, কিন্তু কাঙ্ক্ষিত গোলের দেখা মেলেনি।

আট ম্যাচে পাঁচ জয় ও দুই ড্রয়ে ১৭ পয়েন্ট নিয়ে তিন নম্বরে আছে লিভারপুল।

দিনের আরেক ম্যাচে ওয়েস্ট ব্রমউইচ অ্যালবিয়নের মাঠে ১-০ গোলে জেতা টটেনহ্যাম হটস্পার সমান পয়েন্ট নিয়ে দুইয়ে আছে। উলভারহ্যাম্পটন ওয়ানডারার্সকে একই ব্যবধানে হারানো লেস্টার সিটি ১৮ পয়েন্ট নিয়ে আছে শীর্ষে।

সাত ম্যাচে তিনটি করে জয় ও ড্রয়ে ১২ পয়েন্ট নিয়ে ১১তম স্থানে আছে ম্যানচেস্টার সিটি।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন