ঢাকা সোমবার, ১৮ জানুয়ারি ২০২১, ০৪ মাঘ ১৪২৭, ০৪ জামাদিউস সানী ১৪৪২ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

আগামী সপ্তাহে আমিরাত ও বাহরাইনে যাচ্ছেন নেতানিয়াহু

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৫ নভেম্বর, ২০২০, ১০:৪১ এএম

এবার সংযুক্ত আরব আমিরাত ও বাহরাইন সফরে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু। তবে সউদী সফরে ব্যাপক গোপনীয়তা বজায় রাখা হলেও আমিরাত বা বাইরাইনের ক্ষেত্রে এ ধরনের কোনও রাখঢাক থাকছে না। গতকাল মঙ্গলবার ইসরায়েলের সরকার সমর্থক একটি সংবাদমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, আগামী সপ্তাহে মধ্যপ্রাচ্যের এ দুইটি দেশে ঐতিহাসিক সফরে যাচ্ছেন নেতানিয়াহু।

গতকাল মঙ্গলবার সউদী আরবের ঘনিষ্ঠ দেশ বাহরাইন সফরের আমন্ত্রণ পেলেন ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেনজামিন নেতানিয়াহু। দেশটির ক্রাউন প্রিন্স সালমান আল খলিফার আমন্ত্রণে শিগগিরেই তিনি বাহরাইন সফরে যাচ্ছেন বলে জানিয়েছে আল জাজিরা। এর আগে গেল বুধবার প্রথম বারেরমতো ইসরায়েল সফরে গিয়েছিলেন বাহরাইনের উচ্চ পর্যায়ের একটি প্রতিনিধি দল। আর এর মাঝেই নেতানিয়াহু গোপনে সৌদি আরব সফর করেছেন বলে খবর বেরিয়েছে।

মঙ্গলবার এক বিবৃতিতে নেতানিয়াহু বলেন, ‘স্বল্প সময়ের মধ্যে দেশ ও মানুষের মাঝে শান্তি ফিরিয়ে আনায় আমরা উভয়ই খুশি। এই কারণে সালমান আল খলিফা আমাকে বাহরাইন সফরে আসার আমন্ত্রণ জানিয়েছেন এবং খুশি মনে আমি সেটি গ্রহন করেছি।’

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের মধ্যস্থতায় আনুষ্ঠানিকভাবে ইসরায়েলের সঙ্গে সম্পর্ক স্থাপন করে মধ্যপ্রাচ্যে সউদী বলয়ের দেশ আমিরাত ও বাহরাইন। নেতানিয়াহুর এ সফর হবে দেশ দু’টিতে ইসরায়েলের কোনও প্রধানমন্ত্রীর প্রথম প্রকাশ্য সফর।

সফরে আমিরাতের যুবরাজ মোহাম্মদ বিন জায়েদ (এমবিজেড) এবং বাহরাইনের রাজা হামাদ বিন ঈসা আল খলিফার সঙ্গে সাক্ষাত করবেন ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রী। মধ্যপ্রাচ্যের দুই দেশে নেতানিয়াহুর সফরসূচি চূড়ান্ত করতে এখন ব্যস্ত সময় পার করছে ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রীর দফতর।

এর আগে রবিবার সৌদি আরব সফর করেন নেতানিয়াহু। গোপন এ সফরে এমবিএস নামে পরিচিত সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের সঙ্গে বৈঠকে মিলিত হন তিনি। এছাড়া সৌদি সফররত যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও-র সঙ্গেও সাক্ষাৎ করেন তিনি। ইসরায়েলি গোয়েন্দা সংস্থা মোসাদের প্রধান ইয়োসি কোহেন এসব বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন।

ইসরায়েলের খান পাবলিক রেডিও এবং আর্মি রেডিও জানিয়েছে, সৌদি আরবের লোহিত সাগর উপকূলের বহুল আলোচিত নিওম সিটিতে এসব বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে।
মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প আগেই জানিয়েছেন, সউদী আরবসহ আরও বেশ কয়েকটি আরব দেশ ইসরায়েলকে স্বীকৃতি দেবে। তবে ট্রাম্প দ্বিতীয় দফায় যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হতে না পারায় এ নিয়ে অনিশ্চয়তা তৈরি হয়েছিল। এর মধ্যেই সউদী সফরে গিয়ে যুবরাজের সঙ্গে বৈঠকে মিলিত হন নেতানিয়াহু।
ইসরায়েলের প্রভাবশালী দৈনিক হারেৎজ জানিয়েছে, এভিয়েশন ট্র্যাকিং ডাটায় দেখা গেছে, একটি ব্যক্তিগত জেট বিমান নিয়ে ইসরায়েলের তেল আবিব থেকে সৌদি আরবের নিওম শহরে পৌঁছান নেতানিয়াহু। রবিবার সেখানেই যুবরাজ এমবিএস এবং মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রীর সাক্ষাতের কর্মসূচি নির্ধারিত ছিল।
ফ্লাইট ট্র্যাকিং ওয়েবসাইটগুলো বলছে, নেতানিয়াহুকে বহনকারী বিমানটি দুই ঘণ্টার মতো নিওমে অবস্থান করে। হারেৎজ জানিয়েছে, এর আগে রুশ প্রেসিডেন্ট ভøাদিমির পুতিনের সঙ্গে বৈঠকের জন্য একাধিক বার এই জেট বিমানটি ব্যবহার করেন নেতানিয়াহু। সূত্র: আনাদোলু এজেন্সি।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন