ঢাকা শনিবার, ২৪ জুলাই ২০২১, ৯ শ্রাবণ ১৪২৮, ১৩ যিলহজ ১৪৪২ হিজরী

সারা বাংলার খবর

বরগুনার সংরক্ষিত আসনের ইউপি মহিলা সদস্যের উপর হামলা

বিভিন্ন স্থানে সশস্ত্র মহড়া!

বরগুনা জেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১৯ জুন, ২০২১, ১১:২৯ পিএম

বরগুনায় ইউপি নির্বাচনকে কেন্দ্র করে পাথরঘাটা ও বেতাগী উপজেলায় কয়েকটি ইউনিয়নে নৌকা ও স্বতন্র চেয়ারম্যান প্রার্থীর কর্মী সমর্থকদের মধ্য সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। শনিবার বিকাল সাড়ে ৫ টার দিকে পাথরঘাটার ইরিদ্রাবাড়িয়া বাজারে নৌকার প্রার্থীর কর্মীদের উপর স্বতন্ত্র ঘোড়া প্রতীকের প্রার্থীর কর্মীরা হামলা চালালে সেখানে গনসংযোগে থাকা কাকচিড়া ইউনিয়নের ৭,৮ও৯ নং ওয়ার্ডের মহিলা সদস্য প্রার্থী হামলাকারীদের বাঁধা দিলে হকিস্টিক ও আতুর দিয়ে সংরক্ষিত সদস্য প্রার্থী হাসি বেগমের মাথায় আঘাত করে তাকে গুরুতর আহত করা হয়। এ সময় তাকে উদ্ধারে এগিয়ে এলে মোস্তফা, লিটন, কালামসহ আরও ৪/৫ জনকে পিটিয়ে আহত করে স্বতন্র প্রার্থীর কর্মীরা।

আহত প্রার্থী হাসি বেগমের বোন খুশী বেগম বলেন, আমরা গণসংযোগ করা অবস্থায় ঘোড়া মার্কার চেয়ারম্যান প্রার্থীর শতাধিক মোটরসাইকেল মহড়া নিয়ে ইরিদ্রাবাড়িয়া বাজারে আসে। এ সময় সেখানে উপস্থিত ওয়ার্ড আওয়ামীলীগ নেতাদের দেখতে পেয়ে হকিস্টিক, আতুর নিয়ে তাদের উপর হামলা করে। হামলাকান্ড দেখে আমার বোন মহিলা সদস্য প্রার্থী হাসি বেগম থামাতে গেলে হামলাকারীরা গালিগালাজ করে তাকে হকিস্টিক ও আতুর দিয়ে তুহিন পহলান, তুষার পহলান সহ কয়েকজন পিটিয়ে আহত করে।আহতদের পাথরঘাটা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে ভর্তি করা হয়েছে।

পুলিশ হামলার সাথে জড়িত ওয়ার্ড বিএনপি সভাপতি রব ফকির (৪৮) কে গ্রেফতার করে। পাথরঘাটা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা, বলেন শুনেছি একজন মহিলা প্রার্থীর উপর হামলা হয়েছে। পুলিশ ঘটনাস্থলে অবস্থান করছে।

বরগুনার বেতাগী উপজেলার ২নং বেতাগী ইউনিয়নে নৌকার প্রার্থীর কর্মীরা সকাল থেকে প্রতিদিন সশস্ত্র মহড়া দিচ্ছে। নৌকার পক্ষে আমিনুল ইসলাম শিপন, মনির খলিফা, রফিকুল ইসলাম, পারভেজ প্রকাশ্যে ভোটারদের হুমকি দিচ্ছে। তাদের হুমকি স্বতন্র ঘোড়া প্রার্থী ও তার কর্মী সমর্থক মোবাইল প্রচারণা চালাচ্ছে। শুক্রবার গভীররাতে নৌকার একটি নির্বাচনী অফিসের আসবাব পত্র এলোমেলো করে ঘোড়ার সমর্থকদের বিরুদ্ধে থানায় ও সাংবাদিকদের নিকট অভিযোগ করা হয়। সরেজমিনে গিয়ে সাংবাদিকরা দেখেন অভিযোগের সাথে বাস্তবতার মিল নেই। এ ব্যাপারে বেতাগী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা বলেন, নৌকার নির্বাচনী অফিস ভাংচুরের একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি।

ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে প্রশাসনের উপর আস্থা রাখতে পারছে না সাধারণ ভোটাররা। তাদের মনে সংশয় প্রশাসন ক্ষমতাসীন দলের প্রার্থীদের বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থান নিতে না পারাটা প্রমাণ করছে নির্বাচনে প্রভাবিত হচ্ছে প্রশাসন।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন