শনিবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৩ আশ্বিন ১৪২৮, ১০ সফর ১৪৪৩ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

উত্তপ্ত ত্রিপুরায় তৃণমূলের অভিষেক, উত্তেজনা চরমে

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২ আগস্ট, ২০২১, ৬:০০ পিএম

উত্তপ্ত পরিস্থিতির মধ্যেই ত্রিপুরায় পৌঁছালেন তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। সোমবার দিনভর আগরতলায় একাধিক কর্মসূচি তার। তৃণমূলের দাবি, অভিষেকের সফর উপলক্ষে বিমানবন্দরের বাইরে ব্যানার টাঙানো হয়েছিল। রাতের অন্ধকারে বিজেপি তা নষ্ট করে দিয়েছে।

উত্তেজনার শুরু গত সপ্তাহে। ভোটকুশলী প্রশান্ত কিশোরের আই প্যাকের ২৩ জন কর্মী ত্রিপুরা যান। তারা হোটেলে ঢোকার পরে পুলিশ গিয়ে তাদের আটক করে। জানানো হয়, হোটেলের বাইরে তারা বের হতে পারবেন না। করোনার কারণে তাদের ঘরেই থাকতে হবে। আই প্যাকের কর্মীরা তা মানতে রাজি হননি। এরপর ডিজাস্টার আইনে তাদের বিরুদ্ধে মামলা করে ত্রিপুরার বিজেপি সরকার। আগাম জামিন নিতে বাধ্য হন ওই কর্মীরা।

আই প্যাকের কর্মীদের হোটেলে আটকে রাখার তীব্র প্রতিবাদ করে তৃণমূল। কিছুদিন আগে পশ্চিমবঙ্গের নির্বাচনে ওই কর্মীদের অনেকেই তৃণমূলের জন্য কাজ করেছিলেন। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নির্দেশে শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসু, সাংসদ ডেরেক ও’ব্রায়েন, ঋতব্রত বন্দ্যোপাধ্যায় সহ একাধিক তৃণমূল নেতা ত্রিপুরা পৌঁছান। কিন্তু তাদের সঙ্গেও আই প্যাক কর্মীদের দেখা করতে দেয়া হয়নি। অভিষেক ওই কর্মীদের সঙ্গে দেখা করার চেষ্টা করতে পারেন বলে তৃণমূলের সূত্র জানিয়েছেন।

এদিন অভিষেক ত্রিপুরার একটি ভিডিও টুইট করেছেন। সেখানে দেখা যাচ্ছে, বিজেপির পতাকা হাতে কর্মীরা অভিষেকের গাড়ির উপর লাঠি মারছে। ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেবকে ট্যাগ করে ভিডিওটি টুইট করেন অভিষেক। তৃণমূল নেতারা এখনো ত্রিপুরাতেই আছেন। ত্রিপুরার বিজেপি সরকারের সঙ্গে প্রায় প্রতিদিনই কথার লড়াই চলছে তাদের। এই পরিস্থিতিতে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় পৌঁছেছেন ত্রিপুরায়।

অভিষেকের ত্রিপুরা যাওয়া নিঃসন্দেহে গুরুত্বপূর্ণ। এর ফলে পরিস্থিতি আরো উত্তপ্ত হবে সন্দেহ নেই। এদিন ত্রিপুরেশ্বরী মন্দিরে পুজো দিয়ে অভিষেকের সাংবাদিক বৈঠক করার কথা। তৃণমূলের অন্য নেতাদের মতো তিনিও যদি ত্রিপুরাতে থেকে যান, তাহলে আরো জল ঘোলা হওয়ার সম্ভাবনা আছে বলে মনে করা হচ্ছে। ত্রিপুরার বিজেপিও সহজে জায়গা ছাড়বে না বলে বোঝা যাচ্ছে।

পশ্চিমবঙ্গের পর তৃণমূলের টার্গেট এখন ত্রিপুরা। ত্রিপুরার সাত জন সাবেক বিধায়ক এবং মন্ত্রী সদ্য তৃণমূলে যোগ দিয়েছেন। একসময়ের বাম দূর্গ ত্রিপুরা এখন বিজেপির গড়। সেখানে থাবা বসাতে চাইছে তৃণমূল। সে কারণেই আই প্যাক কর্মীদের আটকে রাখার বিষয়টিকে তৃণমূল ইস্যু করতে চাইছে বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহলের একাংশ। সূত্র : পিটিআই, এবিপি।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন