রোববার, ২৪ অক্টোবর ২০২১, ০৮ কার্তিক ১৪২৮, ১৬ রবিউল আউয়াল সফর ১৪৪৩ হিজরী

সারা বাংলার খবর

ফুলপুর উপজেলা চেয়ারম্যানের কার্যালয়ে হামলা, স্টাফ আহত

যুবক গ্রেফতার

ফুলপুর (ময়মনসিংহ) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২৮ আগস্ট, ২০২১, ৮:২৭ পিএম

ময়মনসিংহের ফুলপুরে উপজেলা চেয়ারম্যানকে হত্যার উদ্দেশ্যে কার্যালয়ে হামলা ও স্টাফকে মারধরের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এসময় উপজেলা চেয়ারম্যান অল্পের জন্য রক্ষা পেলেও অফিস স্টাফ ফারুক মিয়া আহত হয়েছে। এঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে পুলিশ এক যুবককে গ্রেফতার করে আদালতে প্রেরণ করেছে।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, ফুলপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আতাউল করিম রাসেল শুক্রবার রাতে উপজেলা পরিষদ কার্যালয়ে বসে কাজ করছিলেন। এসময় রাত সাড়ে ৯ টার দিকে কয়েকজন যুবক দেশীয় অস্ত্র নিয়ে বিনাঅনুমতিতে চেয়ারম্যানের কার্যালয়ে প্রবেশ করে। তখন চেয়ারম্যানের অফিস স্টাফ ফারুক মিয়া ঐ যুবকদের বাধা দিলে তারা ফারুক মিয়াকে আক্রমণ করেন এবং তাকে কামড় ও পিটিয়ে আহত করে। আহত ফারুক মিয়ার দাবী অস্ত্রধারী যুবকরা উপজেলা চেয়ারম্যানকে হত্যার উদ্দেশ্যে গিয়ে ছিল। সে বাধা দেয়ায় উপজেলা চেয়ারম্যানকে আক্রমণ করতে পারেনি। বাধা না দিলে উপজেলা চেয়ারম্যানকে খুন করতে পারতো বলেও অভিযোগে জানানো হয়। পরে ফুলপুর থানা পুলিশ সংবাদ পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন। আহত অফিস স্টাফ ফারুক মিয়াকে উদ্ধার করে হাসপাতালে চিকিৎসা করান। পুলিশ রাতেই অভিযান চালিয়ে ঘটনার সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে মাহবুব নামে একজনকে গ্রেফতার করেন। এ ব্যাপারে আহত ফারুক মিয়া বাদী হয়ে মাহবুব মিয়া ও নোমানসহ অজ্ঞাত ১০/১২ জনকে আসামী করে ফুলপুর থানায় মামলা নং ৩২ তারিখ- ২৮/০৮/২১ দায়ের করেন। এ ঘটনায় পৌর ছাত্রলীগের এক সিনিয়র নেতা সহ আরো কয়েকজনকে খুঁজছে পুলিশ।

উপজেলা চেয়ারম্যান আতাউল করিম রাসেল সাংবাদিকদের জানান অফিসে স্টাফদের নিয়ে কাজ করার সময় সরকারি কাজে বাধা দেয় তারা। আমাকে হত্যার উদ্দেশ্যে এ হামলা। হামলাকারীদের কঠোর শাস্তি হওয়া দরকার।

অপর দিকে গ্রেফতারকৃতপক্ষের দাবী কোনো হামলা নয় কথা কাটাকাটি হয়েছে মাত্র।

ফুলপুর থানার সেকেন্ড অফিসার এসআই সোলায়মান হক ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, মাহবুব নামে একজনকে আটক করা হয়েছে।

ফুলপুর থানার ওসি আব্দুল্লাহ আল মামুন জানান, অভিযুক্ত প্রধান আসামি মাহবুবকে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে। মামলার বাকী আসামিদের ধরতে চেষ্টা চলছে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন