বুধবার, ২০ অক্টোবর ২০২১, ০৪ কার্তিক ১৪২৮, ১২ রবিউল আউয়াল সফর ১৪৪৩ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

মোবাইলে লুডু খেলাকে কেন্দ্র করে শিশু হত্যা

স্টাফ রিপোর্টার, মাদারীপুর থেকে : | প্রকাশের সময় : ২৪ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ১২:০৭ এএম

মোবাইলে লুডু খেলা নিয়ে বকা দেয়ায় রতন মোল্লা নামে আট বছর বয়সী এক শিশুকে শ^াসরোধ করে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। এঘটনায় সোহান নামে আরো এক শিশুকে হত্যাচেষ্টা করে গুরুতর আহত করা হয়েছে। মোবাইলে লুডু খেলা নিয়ে দুই শিশুকে মেহেদী নামে এক যুবক বেড়াতে নেয়ার কথা বলে পদ্মা সেতু এক্সপ্রেস হাইওয়েতে ভয়াবহ এই হত্যাকান্ড সংঘঠিত হয়। গতকাল ভোর রাতে শিবচর থানা পুলিশ মেহেদীকে গ্রেফতার করলে প্রাথমিকভাবে হত্যার কারণ স্বীকার করে।
পুলিশ ও পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, জেলার শিবচর উপজেলার কাদিরপুর ইউনিয়নের চরকান্দি এলাকার নানা আনসু বেপারির বাড়িতে কয়েকদিন আগে ঢাকা থেকে বেড়াতে আসে মেয়ের ঘরের নাতি মেহেদী হাসান (১৮)। বাড়িতে আসার পর মেহেদী পাশর্^বর্ত্তী কৃষক জসিম মোল্লার একমাত্র ছেলে প্রথম শ্রেণির শিক্ষার্থী রতন মোল্লা (৮) ও নাসির সিকদারের ছেলে সোহানের (৯) সঙ্গে মোবাইলে গেম খেলতো। গত মঙ্গলবার সকালে সোহানের মায়ের মোবাইলে আবারো এই ৩ জন লুডু খেলে। খেলার সময় ছোট্ট রতন ও সোহান মেহেদীকে বকা দেয়। এতে ক্ষুব্ধ হয়ে মেদেহী হাসান শিশু দুটিকে হত্যার ছক কষে। পুলিশের একাধিক টিম ঘটনাস্থলে গিয়ে মেহেদীকে জিজ্ঞাসাবাদ করে। পরে সে হত্যাকান্ডর বিষয়টি স্বীকার করে এবং হত্যাকান্ডের স্থানে রতনের লাশ দেখিয়ে দেয়।
শিবচর থানার ওসি মিরাজ হোসেন বলেন,‘প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে মোবাইলে লুডু খেলার সময় বকা দেয়া নিয়ে এ হত্যাকান্ড ঘটেছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। অধিক তদন্ত করে বিষয়টি পরিস্কার ধারণা নেয়া যাবে। সহকারী পুলিশ সুপার মো. আনিসুর রহমান জানান, ‘রাগ আর ক্ষোভ থেকে মেহেদী হাসান দুই শিশুকে হত্যার চেষ্টা করে। এতে এক শিশু মারা যায়, অপরজন গুরুতর আহত হয়েছে। আমরা মেহেদীর কথানুসারেই এক শিশুর মৃতদেহ উদ্ধার করে মাদারীপুর সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছি। সেই সঙ্গে পরিবার থেকে হত্যা মামলা দায়ের করলে মেহেদীকেও আদালতে পাঠানো হবে।’

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন