ঢাকা রোববার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৫ আশ্বিন ১৪২৭, ০২ সফর ১৪৪২ হিজরী

বিনোদন প্রতিদিন

ঘায়েল ওয়ান্স এগেইন

প্রকাশের সময় : ১২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬, ১২:০০ এএম

অজয় মেহরা (সানি দেওল) কারাভোগ শেষে মুক্তি পেয়ে একটি সংবাদপত্র প্রকাশ শুরু করে। এখনও সে স্বজন হারাবার শোক ভুলতে পারেনি। তবে সে শক্ত পায়ে দাঁড়িয়েছে। অনুসন্ধানী সাংবাদিকতায় সে বেশ নাম করেছে। এখন সে কাজ করছে কয়েকজন প্রতিবাদী একদল আন্দোলনকারীদের সঙ্গে। তাকে সহায়তা করে অপরাধ জগত ত্যাগ করা কয়েকজন আর তারই সমমনা মানুষেরা। তরুণরা তার কাজের খুব সমর্থক। তার একনিষ্ঠ সমর্থকদের মধ্যে আছে চার কিশোর-কিশোরী। একসময় তারাই অজয়ের কাছ থেকে দুঃসাহসিকতার জন্য সম্মাননা পেয়েছিল। এই কিশোররা বেরিয়েছে ছবি তোলা আর ভিডিও করার এক অভিযানে। তাদের এই অভিযানের এক পর্যায়ে তারা এক হত্যার দৃশ্য তুলে ফেলে। এতে ভীষণ কঠিন এক পরিস্থিতিতে পড়ে যায় তারা। তাদের মধ্যে একজন বলে পুলিশকে বিষয়টি জানাবার জন্য। কিন্তু পুলিশকে জানালে তারা আরও বড় সমস্যায় পড়ে যেতে পারে কারণ খুনিদের মাঝে এমন দু’জনকে তারা শনাক্ত করেছে যারা শহরের সবচেয়ে ক্ষমতাবান মানুষদের কাতারে পড়ে। পুলিশ তাদের হাতের মুঠোয়। তারা তাদের আদর্শ অজয়ের সঙ্গে যোগাযোগ করার সিদ্ধান্ত নেয়। অজয়কে তারা ভিডিওটি দেখায়। অজয় তাদের সাহায্য করার প্রতিশ্রুতি দেয়। কিন্তু তারই আছে অপরাধী হিসেবে কারাভোগের অতীত। সে কি পারবে তাদের সাহায্য করতে, অপরাধীদের মুখোশ সমাজের কাছে প্রকাশ করতে? চার কিশোর-কিশোরী কি পারবে সত্যের পাশে দাঁড়াবার ব্যাপারে তাদের সংকল্পে অটল থাকতে?

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন