শুক্রবার, ০১ জুলাই ২০২২, ১৭ আষাঢ় ১৪২৯, ০১ যিলহজ ১৪৪৩ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

আরিয়ানের কিডন্যাপ হাই কোর্টের রায়েই প্রমাণিত

ফের মুখ খুললেন নবাব মালিক

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২২ নভেম্বর, ২০২১, ১২:০৯ এএম

আরিয়ানের জামিনের বিস্তারিত রায়ের প্রতিলিপিতে শনিবার হাই কোর্ট জানিয়েছে, ষড়যন্ত্র করেছেন আরিয়ান, তেমন প্রমাণ নেই এনসিবির কাছে। মাদক মামলায় আরিয়ান খান যে ষড়যন্ত্র করেছেন, প্রাথমিকভাবে তেমন কোনো প্রমাণ মেলেনি। বোম্বাই হাই কোর্টে আরিয়ানের জামিনের বিস্তারিত রায়ে এমনটাই উঠে এসেছে। এরপর থেকেই প্রশ্নের মুখে এনসিবি। শুরু থেকেই কেন্দ্রীয় মাদক নিয়ন্ত্রক সংস্থাকে একহাত নিয়েছেন মহারাষ্ট্রের মন্ত্রী নবাব মালিক। এমনকি এনসিবির আধিকারিকদের বিরুদ্ধে শাহরুখ পুত্রকে ‘কিডন্যাপ’ করবার অভিযোগও তুলেছিলেন নবাব মালিক। এনসিপি নেতা এবার আক্রমণাত্মক টুইট বার্তায় লিখলেন, ‘হাই কোর্টের রায়ই প্রমাণ করে যে, মুক্তিপণের জন্য আরিয়ানকে অপরহরণ করা হয়েছিল। আগে থেকেই গোটা পরিকল্পনা তৈরি ছিল, কিন্তু পাললিক ডোমেনে একটি সেলফি ফাঁস হয়ে যাওয়ার জেরেই পুরো পরিকল্পনা ভেস্তে যায়। এখন সবটা পানির মতো পরিষ্কার’।

গত ২৮ অক্টোবর মাদক মামলায় জামিন পান আরিয়ান। মুম্বাইয়ের আর্থার রোড জেল থেকে ছাড়া পান ৩১ অক্টোবর। শনিবার সেই মামলার বিস্তারিত রায় প্রকাশ করেছে বম্বে হাইকোর্ট। ১৪ পৃষ্ঠার রায়ে বিচারপতি নীতিন সামব্রে নারকোটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরোর (এনসিবি) তরফে তোলা দাবি খারিজ করেছেন। এনসিবি বলেছিল, মাদক মামলায় ষড়যন্ত্রের জন্য আরিয়ান-আরবদের একই অপরাধের উদ্দেশ্য ছিল বলে। হাইকোর্ট জানিয়েছে, অভিযুক্তরা ক্রুজে যাচ্ছিলেন - শুধুমাত্র সেই ভিত্তিতে তাঁদের বিরুদ্ধে মাদক আইনের ২৯ নম্বর ধারা প্রয়োগ করা যাবে না।

বিচারপতি জানিয়েছেন, ষড়যন্ত্রের অভিযোগের ভিত্তি হিসেবে আবেদনকারীদের কাছে কোনো মাদক ছিল কিনা, তা আদালতকে খতিয়ে দেখতে হবে। সেখানে আরিয়ানের থেকে কোনো মাদক উদ্ধার হয়নি। সেই পরিস্থিতিতে অভিযুক্তের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রের ধারা প্রয়োগ করতে ‘ইতিবাচক প্রমাণ’ লাগবে। পাশাপাশি আরিয়ানের হোয়্যাটসঅ্যাপ চ্যাটেও কোনো ষড়যন্ত্রের প্রমাণ মেলেনি বলে জামিনের রায়ে জানিয়েছে হাইকোর্ট।

গত সপ্তাহেই উদ্ধব সরকারের সংখ্যালঘু উন্নয়ন মন্ত্রী তথা এনসিপি নেতা নবাব মালিক দাবি করেন, ‘আরিয়ানকে অপহরণ করে মুক্তিপণ আদায় করা’ই ছিল আসল উদ্দেশ্য। তবে সেই পরিকল্পনা বানচাল হওয়ার পরেই গ্রেফতার করা হয় স্টারকিডকে।

নিজের যুক্তির স্বপক্ষে একটি হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাটের স্ক্রিনশট শেয়ার করেন নবাব। যেখানে দেখা গেছে এক ইনফর্মারের সাথে গোসাভির কথা হচ্ছে কোর্ডিলা ক্রুজে পার্টি করতে যাওয়া ব্যক্তিদের ফাঁদে ফেলা নিয়ে। সেই কথোপকথনের স্ক্রিনশট শেয়ার করে নবাব লেখেন, ‘এটা হল সমীর দাউদ ওয়াংখেড়ের প্রাইভেট আর্মি। ওকে অনেক জবাবদিহি করতে হবে এ নিয়ে।’ সূত্র : হিন্দুস্তান টাইমস।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (4)
Emran Hussain ২২ নভেম্বর, ২০২১, ৭:০৩ এএম says : 0
Indian Govornment Bangladesher poth dore hatca. A shokol mamlay Bangladdesh roll model.
Total Reply(0)
H Mahadi ২২ নভেম্বর, ২০২১, ৭:০৬ এএম says : 0
সহজ সরল একটা ছেলেকে এই ভাবে যারা ফাসাতে চেয়েছিলো তাদের শাস্তি হওয়া দরকার।
Total Reply(0)
Nahid Rahman Rony ২২ নভেম্বর, ২০২১, ৭:০৭ এএম says : 0
ভারতে একমাত্র শাহরুখ খান এর পুত্র মাদক সেবন করে আর কেউ করেনা,পুলিশ পুরা ভারতে আর কোন মাদক সেবন কারী খুঁজে পায়না??
Total Reply(0)
মোহাম্মদ রমিজ ২২ নভেম্বর, ২০২১, ৭:০৯ এএম says : 0
যদিও সে ভালো মুসলিম না, তবুও বিজেপির মতো উগ্র হিংসুটে সরকারের থাবা থেকে রেহায় পায়নি। এটাই প্রমান করে ভারতের প্রকৃতি মুসলিমদের অবস্থাটা আসলে কি।
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Google Apps