বৃহস্পতিবার, ১৯ মে ২০২২, ০৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ১৭ শাওয়াল ১৪৪৩ হিজরী

মহানগর

স্বাধীনতা আল্লাহ’র মহা নিয়ামত

বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলন

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৫ ডিসেম্বর, ২০২১, ৮:৪৩ পিএম | আপডেট : ৮:৪৭ পিএম, ১৫ ডিসেম্বর, ২০২১

বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলনের (একাংশ) আমীরে শরিয়ত হযরত মাওলানা আল্লামা মুহাম্মদ জাফর উল্লাহ খান বলেছেন, দেশ ও জাতীর স্বাধিকার স্বাধীনতা আল্লাহ’র এক মহা নেয়ামত। তিনি আরো বলেন, স্বাধীনতা মধ্যে জনগণের দুনিয়া ও আখেরাতের প্রভুত কল্যাণ নিহিত রয়েছে। আলহামদুল্লিাহ আমরা ধর্মে কর্মে ভাষা বর্ণে সর্বদিক দিয়েই স্বাধীনতার নেয়ামত লাভ করেছি, তাই যাদের ত্যাগ তিতিক্ষা তথা কোরবানির উছিলায় এ নেয়ামত প্রাপ্ত হয়েছি তাদের সবার প্রতি জানাই সশ্রদ্ধ সালাম ও দোয়া।

তিনি বলেন, এই স্বাধীনতার মূল্য কি তা’ উপলব্ধি করতে হলে আজ আমাদেরকে কাশ্মীর, পূর্ব তীমুর, আরাকান ও কুর্দিস্তানের দিকে তাকাতে হবে। তিনি বলেন, স্বাধীনতার সঠিক কদর করতে হলে সর্বাগ্রে স্বাধীনতার মহান দাতা আল্লাহ পাকের শোকোর করে তার হুকুম আহকাম মোতাবেক চলতে হবে। আল্লাহ পাক বলেছেন “যদি তোমরা শোকোর আদায় কর তাহলে নেয়ামত আমি বৃদ্ধি করে দিব, আর যদি অকৃতজ্ঞ হও তাহলে আমার আযাব বড়ই কঠিন। দেশের স্বাধীনতা রক্ষা ও শান্তি সমৃদ্ধি বৃদ্ধিতে আল্লাহর রহমত বরকতের জন্য দেশে আল্লাহর আইন ও রাসুল (সা.) এর আদর্শ বাস্তবায়নের বিকল্প নেই। এ কথা আমাদের সকল মহলকে উপলব্ধি করতে হবে।

তিনি আজ বুধবার বিকেলে রাজধানী ঢাকার মহাখালীস্থ’ হাফেজ্জী হুজুর (রহ.) কেন্দ্রীয় খানকার আল মাহদী মিলনাতয়নে বিজয় দিবস পালন উপলক্ষ্যে এক আলোচনা সভায় সভাপতির বক্তব্যে শরীয়তের দৃষ্টিকোণ থেকে এসব কথা বলেন। সভায় অন্যান্যদের মধ্যে আলোচনায় অংশ নেন সংগঠনের ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব আলহাজ মুহাম্মদ আজম খান, কেন্দ্রীয় নায়েবে আমীর শায়খুল হাদিস হযরত মাওলানা আবুল কাসেম কাসেমী, অন্যতম যুগ্ম মহাসচিব ও ঢাকা মহানগরের আমীর আলহাজ হযরত মাওলানা মুহাম্মদ হুসাইন আকন্দ, সহকারী মহাসচিব মুহাম্মদ খালেদ হোসাইন, আলহাজ মামুন খান, কেন্দ্রীয় নেতা আলহাজ ইব্রহীম বিন আলী, মুফতি কামাল উদ্দিন আশরাফী, মাষ্টার খবির উদ্দিন প্রমুখ।

সভায় নেতৃবৃন্দ আরো বলেন, আমাদের স্বাধীনতার বয়স আজ পঞ্চাশ বছর হলেও সেই পরাধীন যুগের শোষণ নির্যাতন এর মাত্রা আরো ভয়াবহ আকার ধারণ করেছে। আল্লাহর রহমত ছাড়া আমাদের বাঁচার কোন উপায় নেই। তাই দেশবাসিকে নিয়মিত ভাবে তাওবা এস্তিগফারের সাথে সাথে আল্লাহর অনুগত ও জনগণের বান্ধব সরকার ও রাজনৈতিক পরিবেশ সৃষ্টির জন্য আল্লাহর কাছে অবিরাম দোয়া জারি রাখতে হবে। আল্লাহ পাক বলেন যে, জাতি নিজের ভাগ্য পরিবর্তন চায় না আল্লাহও তার ভাগ্য পরিবর্তন করেন না। পরে স্বাধীনতা সংগ্রামে শহীদের রূহের মাগফিরাত কামনা করে মোনাজাত করা হয়।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন