সোমবার, ২৪ জানুয়ারী ২০২২, ১০ মাঘ ১৪২৮, ২০ জামাদিউস সানি ১৪৪৩ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

রায় ৩১ জানুয়ারি

কক্সবাজার ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ১৩ জানুয়ারি, ২০২২, ১২:০২ এএম

৬৫ জনের সাক্ষ্য গ্রহণের মধ্যদিয়ে এক বছর ৬ মাস পর আগামী ৩১ জানুয়ারী ঘোষণা করা হচ্ছে দেশজুড়ে আলোচিত চাঞ্চল্যকর মেজর (অব.) সিনহা মো. রাশেদ খান হত্যা মামলার রায়। উভয় পক্ষের আইনজীবীদের টানা ৪ দিন যুক্তিতর্ক শেষে গতকাল বুধবার কক্সবাজারের জেলা ও দায়রা জজ মোহাম্মদ ইসমাইল এ দিন ধার্য্য করেন। এর আগে উভয় পক্ষের আইনজীবীরা তাদের সমাপনী যুক্তিতর্ক আদালতে উপস্থাপন করেন।

সাক্ষ্য, জেরা, ৩৪২ ধারায় আসামিদের আত্মপক্ষ সমর্থন ও যুক্তিতর্কসহ এ মামলার সকল বিচারিক কার্যক্রমের আগে ৮ পর্বে ৪০ কার্যদিবসে সমাপ্ত করা হয়। মামলার কার্যক্রম শেষে গণমাধ্যমের কাছে বাদী পক্ষ ও রাষ্ট্র পক্ষের আইনজীবীরা আসামিদের অপরাধ সন্দেহাতীতভাবে প্রমাণ করেছেন বলে দাবি করেন এবং আইন অনুযায়ী আসামিদের সর্বোচ্চ শাস্তি দেওয়া হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন। অপরপক্ষে, আসামিদের আইনজীবীরা মামলা দায়েরকালীন ত্রুটিসহ বিভিন্ন দিক আদালতে তুলে ধরতে সক্ষম হয়েছে বলে দাবি করেন। তারাও আদালতের কাছে ন্যায় বিচার পাবেন বলে প্রত্যাশা করেন।

২০২১ সালের ২৩ আগস্ট কক্সবাজারের জেলা ও দায়রা জজ মোহাম্মদ ইসমাইল এর আদালতে মামলার বাদী শারমিন শাহরিয়ার ফেরদৌসের সাক্ষ্য প্রদানের মাধ্যমে চাঞ্চল্যকর মেজর (অব:) সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খান হত্যা মামলার আনুষ্ঠানিক এ বিচার কার্যক্রম শুরু হয়। নিহত সিনহার বড় বোন শারমিন শাহরিয়ার ফেরদৌস বাদী হয়ে ২০২০ সালের ৫ আগস্ট টেকনাফ থানার সাবেক ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) প্রদীপ কুমার দাশসহ ৯ জনকে আসামি করে সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট তামান্না ফারাহ এর আদালতে এই হত্যা মামলাটি দায়ের করেন। যা ১ বছর ৬ মাসে এ মামলার রায় ঘোষণার দিন ধার্য্য করা হলো।

মামলার কার্যক্রম চলাকালে প্রতিদিন ১৫ জন আসামিকে কড়া নিরাপত্তায় আদালতে হাজির করা হয়। আসামিদের মধ্যে ১২ জন আসামি ১৬৪ ধারায় আদালতে সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটের কাছে দোষ স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দী দেন। আর যে ৩ জন আসামি আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দী দেননি তারা হলেন, টেকনাফ থানার সাবেক ওসি প্রদীপ কুমার দাশ, সাবেক কনস্টেবল রুবেল শর্মা ও কনস্টেবল সাগর দেব। আদালতে চার্জশীট জমা দেওয়ার পর গত ২৪ জুন কনস্টেবল সাগর দেব আদালতে আত্মসমর্পণ করে।

২০২০ সালের ৩১ জুলাই রাত সাড়ে ৯টার দিকে কক্সবাজার-টেকনাফ মেরিন ড্রাইভের বাহারছড়া ইউনিয়নের শামলাপুর চেকপোস্টে পুলিশ কর্মকর্তা লিয়াকত আলীর গুলিতে নিহত হন অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খান।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন