সোমবার, ০৪ জুলাই ২০২২, ২০ আষাঢ় ১৪২৯, ০৪ যিলহজ ১৪৪৩ হিজরী

সারা বাংলার খবর

ফার্মেসিতে নারীকে ৬ টুকরো : পালিয়েছে জিতেশ গোপ

অনলাইন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২২, ২:৪৭ পিএম

সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর পৌর এলাকার জগন্নাথপুর বাজারের ফার্মেসি থেকে এক নারীর ছয় টুকরো লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে তার লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠায় পুলিশ। নিহত নারীর নাম শাহানাজ পারভীন জোস্না (৩৭)। তিনি জগন্নাথপুর পৌরসভার পেছনের কলোনির বাসিন্দা।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ওই নারীর স্বামী ছুরুক মিয়া দীর্ঘদিন ধরে সৌদি আরবে রয়েছেন। তার গ্রামের বাড়ি উপজেলার রানীগঞ্জ ইউনিয়নের নারিকেলতলা গ্রামে। জোস্না জগন্নাথপুর পৌরসভার পেছনের কলোনিতে ছেলে মেয়ে নিয়ে বসবাস করতেন। গত বুধবার বিকেলে ওষুধ কেনার কথা বলে ঘর থেকে বের হয়ে নিখোঁজ হন তিনি। রাতে অনেক খোঁজাখুঁজি করে তাকে না পেয়ে স্বজনদের সন্দেহ হলে ফার্মেসি মালিকের সি/এ মার্কেটের বাসায় গিয়ে খোঁজ নিয়ে জানতে পারেন তিনি পরিবার নিয়ে ভোরে পালিয়ে গেছেন। পরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার উপস্থিতিতে পুলিশ অভি ফার্মেসির তালা ভেঙে ভেতরে বিছানার চাদর দিয়ে মোড়ানো ছয় টুকরো লাশ উদ্ধার করে। ঘটনার পর থেকে ফার্মেসির মালিক জিতেশ গোপ পলাতক রয়েছেন। জিতেশ গোপ কিশোরগঞ্জের ইটনা উপজেলার সইলা গ্রামের যাদব গোপের ছেলে।

নিহত নারীর ভাই হেলাল মিয়া জানান, বুধবার ওষুধ কিনতে বের হয়ে আর বাসায় ফেরেননি জোস্না। তাই খোঁজাখুজি করে না পেয়ে ফার্মেসিতে অভিযান চালালে সেখানে ভেতরে লাশ পায় পুলিশ।

সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর পৌর এলাকার জগন্নাথপুর বাজারের ফার্মেসি থেকে এক নারীর ছয় টুকরো লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে তার লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠায় পুলিশ। নিহত নারীর নাম শাহানাজ পারভীন জোস্না (৩৭)। তিনি জগন্নাথপুর পৌরসভার পেছনের কলোনির বাসিন্দা।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ওই নারীর স্বামী ছুরুক মিয়া দীর্ঘদিন ধরে সৌদি আরবে রয়েছেন। তার গ্রামের বাড়ি উপজেলার রানীগঞ্জ ইউনিয়নের নারিকেলতলা গ্রামে। জোস্না জগন্নাথপুর পৌরসভার পেছনের কলোনিতে ছেলে মেয়ে নিয়ে বসবাস করতেন। গত বুধবার বিকেলে ওষুধ কেনার কথা বলে ঘর থেকে বের হয়ে নিখোঁজ হন তিনি। রাতে অনেক খোঁজাখুঁজি করে তাকে না পেয়ে স্বজনদের সন্দেহ হলে ফার্মেসি মালিকের সি/এ মার্কেটের বাসায় গিয়ে খোঁজ নিয়ে জানতে পারেন তিনি পরিবার নিয়ে ভোরে পালিয়ে গেছেন।

পরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার উপস্থিতিতে পুলিশ অভি ফার্মেসির তালা ভেঙে ভেতরে বিছানার চাদর দিয়ে মোড়ানো ছয় টুকরো লাশ উদ্ধার করে। ঘটনার পর থেকে ফার্মেসির মালিক জিতেশ গোপ পলাতক রয়েছেন। জিতেশ গোপ কিশোরগঞ্জের ইটনা উপজেলার সইলা গ্রামের যাদব গোপের ছেলে।

নিহত নারীর ভাই হেলাল মিয়া জানান, বুধবার ওষুধ কিনতে বের হয়ে আর বাসায় ফেরেননি জোস্না। তাই খোঁজাখুজি করে না পেয়ে ফার্মেসিতে অভিযান চালালে সেখানে ভেতরে লাশ পায় পুলিশ।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Google Apps