শনিবার, ০২ জুলাই ২০২২, ১৮ আষাঢ় ১৪২৯, ০২ যিলহজ ১৪৪৩ হিজরী

সারা বাংলার খবর

বার বার আগুন লাগছে সিলেটে, আতংক!

সিলেট ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ৮ এপ্রিল, ২০২২, ৬:১৩ পিএম

সিলেটে ঘন ঘন ছোট-বড় অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটছে। গত তিন মাসে নয়টি অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটেছে নগরীতে। এর মধ্যে মৃত্যু হয়েছে একজনের। ক্ষতি হয়েছে লক্ষ কোটি টাকার। শপিং মল থেকে শুরু করে অবাসিক ভবনে একের পর এক অগ্নিকান্ডে চরম আতঙ্ক বিরাজ করছে নগরবাসীর মধ্যে। চলতি বছরের শুরুতে আগুন আতঙ্ক ভর করেছে নগরীবাসীর মধ্যে। গত ১জানুয়ারি মধ্যরাতে কাকলী শপিং সেন্টারে ঘটে অগ্নিকান্ড। প্রায় চল্লিশ মিনিট চেষ্টা চালিয়ে ফায়ার সার্ভিসের ৮টি ইউনিট সক্ষম হয় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে। ১১ তলা বিশিষ্ট শপিং সেন্টারটিতে রাত দেড়টার দিকে মার্কেটের ৪র্থ তলা থেকে সূত্রপাত হয় আগুনের।

বিভিন্ন ধরনের ইলেকট্রিক ক্যাবলের মাধ্যমে আগুন উপরের তলাগুলোয়ও ছড়িয়ে যেতে লাগে। ফায়ার সার্ভিসকে খবর দেয়া হলে রাত পৌনে ২টার দিকে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা ঘটনাস্থলে যান। প্রায় একঘন্টা চেষ্টর পরে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হন সার্ভিসের কর্মীরা। এতে কারো প্রাণহানী না হলেও, ক্ষতি হয় কয়েক লক্ষ টাকার। এর পর গত ৯ ফেব্রুয়ারি সিলেট নগরের জিন্দাবাজার মোড়ে একটি বন্ধ দোকানে অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটেছে। রাত সাড়ে ১০টার দিকে জিন্দাবাজার মোড়ের ব্লু-মুন নামের একটি কাপড়ের শো-রুমে এ ঘটনা ঘটে। রাতে হঠাৎ করে এমন অগ্নিকান্ডে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে প্রতিবেশী ব্যবসায়ীদের মধ্যে। পরে খবর পেয়ে রাত পৌনে ১১টার দিকে সিলেট ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা ঘটনাস্থলে গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন।
একই মাসের ২৮ তারিখে নগরীর দক্ষিণ সুরমায় বাবনা পয়েন্টে এলপিজি গ্যাস সিলিন্ডারের দোকানে ভয়াবহ অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটে। রাত সোয়া ১০টার দিকে ভয়াবহ এ আগুনের সূত্রপাত ঘটে।
খবর পেয়ে সিলেট দমকল বাহিনীর ৩টি ইউনিট ঘটনাস্থলে পৌঁছে চেষ্টা চালায় আগুন নিয়ন্ত্রণের। পরে রাত ১২টার দিকে নিয়ন্ত্রনে আসে আগুন। যে দোকানে আগুন লেগেছে তার পাশেই গ্যাস ভর্তি সিলিন্ডার নিয়ে দাঁড়িয়ে ছিল একটি ট্রাক। ঘটনাস্থল থেকে প্রায় ২০০ গজ দূরেই রয়েছে যমুনা ও পদ্মা জ্বালানি তেলের কোম্পানির ডিপো। পরের মাস মার্চে ২টি অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটে। ৫ মার্চ নগরীর আখালিয়া গুয়াবাড়ি এলাকায় অগ্নিকান্ডে এক বৃদ্ধা নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় কলোনির ৮টি ঘর ভস্মীভূত হয়েছে। বিকেল পৌনে ৩টার দিকে আগুন লাগে। আগুন দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে কলোনির ৮টি ঘরে। এসময় কলোনির বাসিন্দারা দ্রুত বের হয়ে এলেও অসুস্থ ৮০ বছর বয়সী বৃদ্ধা শোভা রানী চন্দ্র পারেননি বের হতে। অগ্নিদগ্ধ হয়ে ঘটনাস্থলেই মারা যান তিনি। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের ৪টি ইউনিট ঘটনাস্থলে গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। এর পরের দিন (৬ মার্চ) নগরীর জেল রোড এলাকার বহুতল বিপণি বিতান আনন্দ টাওয়ারের পেছনের আগুন লেগেছে ফার্নিচারের দোকানে। আগুনের সূত্রপাত হয় রাত ৯টার দিকে। ফায়ার সার্ভিসের ৪টি ইউনিট ঘটনাস্থলে পৌঁছে প্রায় দুই ঘন্টা চেষ্টা করে নিয়ন্ত্রণের আনেন আগুন। এসময় আশপাশের এলাকার বিদ্যুৎ সরবরাহ রাখা হয় বন্ধ। এতে কোন প্রাণহানী না ঘটলেও পুড়ে যায় আশে পাশের বস্তির ৬/৭টি ঘর।
চলতি (এপ্রিল) মাসের ৫, ৬ ও ৭ তারিখে নগরীর তিনটি অগ্নিকান্ড ঘটে। ৫ এপ্রিল নগরীর পূর্ব দরগাহ গেইটে ‘বেবি গার্ডেন’ নামের শিশু পণ্যের একটি দোকানে পুড়ে হয়ে যায় ছাই। ভোর ৫টার দিকে সুত্রপাত ঘটে আগুনের। আগুনে ১ কোটি ৮০ লাখ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে জানিয়েছেন দোকানের মালিক। পরদিন ৬ এপ্রিল দুপুর ২টার দিকে নগরীর চৌহাট্টায় দৌলতপুর স্কয়ার নামের একটি ৫ তলা ভবনে অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটে। পরে ফায়ার সার্ভিসের ৬টি ইউনিট দেড় ঘণ্টার চেষ্টা চালিয়ে নিয়ন্ত্রণে আনে আগুন। এ ঘটনায় কেউ আহত হয়নি তবে ব্যপক ক্ষতি হয়েছে ভবনের। এরপরদিনই (৭ এপ্রিল) দুপুর সাড়ে ১২ দিকে আবার ঘটে অগ্নিকান্ডের ঘটনা। এবার নগরীর হাউজিং এস্টেটস্থ আর্কেডিয়া শপিং কমপ্লেক্সের আন্ডারগ্রাউন্ড পার্কিংয়ে একটি গাড়িতে হঠাৎ করে আগুন ধরে যায়। তৎক্ষণাৎ স্থানীয়রা ফায়ার সার্ভিসকে খবর দেন। ফায়ার সার্ভিসের একটি টিম দ্রুত গিয়ে গাড়ির আগুন নিয়ন্ত্রণে নিয়ে আ

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Google Apps