শুক্রবার, ০১ জুলাই ২০২২, ১৭ আষাঢ় ১৪২৯, ০১ যিলহজ ১৪৪৩ হিজরী

মহানগর

ঢাবিতে সাংবাদিকের উপর চড়াও হলেন ছাত্রলীগ নেতা পুতুল

বিশ্ববিদ্যালয় রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৭ মে, ২০২২, ৬:৫৫ পিএম

ছাত্রলীগের মারামারির ঘটনায় ভিডিও করার সময় এক সাংবাদিককে গালাগালি করে মারতে উদ্যত হন কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের স্কুল ছাত্র বিষয়ক সম্পাদক পুতুল চন্দ্র রায়। এই ঘটনার ভিডিও ফুটেজ রয়েছে ইনকিলাবের হাতে। মঙ্গলবার বিকেল চারটার দিকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র শিক্ষক কেন্দ্র (টিএসসি) এলাকায় এই ঘটনা ঘটে। ভুক্তভোগী সাংবাদিকের নাম শাফাত রহমান। তিনি বাংলাদেশ টাইমসের মোবাইল জার্নালিস্ট হিসেবে কর্মরত আছেন।

ভিডিও ফুটেজে দেখা যায় যায়, পুতুল চন্দ্র রায় মারতে উদ্যত হলে এক পর্যায়ে ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি তৌহিদুল ইসলাম চৌধুরী, জহির শাফাত রহমানকে এক পাশে নিয়ে এসে বিষয়টি মিটমাটের চেষ্টা করেন। জহিরকে বলতে শোনা যায় "আচ্ছা, বাদ দেন, ভাই। ভুল করে ফেলেছে।"

কিন্তু তখনও পেছন থেকে পুতুল চন্দ্র রায়কে গালাগালি করতে দেখা যায়। শাফাত রহমান বলেন, ‘আপনি এভাবে বিহেভ (ব্যবহার) করছেন কেন?’ এসময় পুতুল বলে, ‘ও আমারে কী করবে?’

এই বিষয়ে ভুক্তভোগী সাংবাদিক শাফাত রহমান বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন উপলক্ষে ছাত্রলীগের শোভাযাত্রা মধুর ক্যান্টিন থেকে টিএসসি পৌঁছালে সেখানে বেশ কয়েকজন ছাত্রলীগ কর্মী সংঘর্ষে লিপ্ত হন। আমি সে ঘটনার ভিডিও করতে গেলে পুতুল চন্দ্র রায় আমাকে মারতে উদ্যত হন এবং অকথ্য ভাষায় গালাগালি করেন। পরে তার সাথে থাকা কয়েকজন আমাকে সরিয়ে নিতে চাইলে তিনি তখনও ‘ও আমারে কী করবে’ বলে হুমকি দিতে থাকেন। তার সাথে থাকা একজন বলেন, কমিটি না পাওয়ায় তার মাথা খারাপ।

এই বিষয়ে জানতে চাইলে পুতুল চন্দ্র রায় ইনকিলাবকে বলেন, সাংবাদিকরা যে ফোন দিচ্ছে তাতে আমি ডিস্টার্ব ফিল করছি। আমি সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলতে চাই না। তোমার যা ইচ্ছে লিখে দাও।

এই বিষয়ে জানতে ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয় এবং সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্যকে ফোন করা হলেও তাদের সাড়া মেলেনি।

প্রসঙ্গত, গত বছর মার্চ মাসে আইন বিভাগের সামনে প্রস্রাব করায় বিশ্ববিদ্যালয়ের স্যার এ এফ রহমান হল শাখা ছাত্রলীগের কয়েকজন ছাত্রলীগ কর্মীর হাতে মারধরের শিকার হন পুতুল চন্দ্র রায়। অভিযুক্ত পুতুল চন্দ্র রায় ছাত্রলীগ সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয়ের অনুসারী বলে জানা যায়।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Google Apps