শুক্রবার, ০১ জুলাই ২০২২, ১৭ আষাঢ় ১৪২৯, ০১ যিলহজ ১৪৪৩ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

রাজনৈতিক অনিশ্চয়তার মুখে পড়তে যাছে ইসরাইল

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৪ জুন, ২০২২, ১২:০৯ এএম

আবার রাজনৈতিক অনিশ্চয়তার মুখে পড়তে যাছে ইসরাইল। দেশটির পার্লামেন্ট নেসেট বুধবার বিলুপ্ত হওয়ার কার্যক্রম শুরু হয়েছে। ফলে আরেকটি সাধারণ নির্বাচন আসন্ন। সেই নির্বাচনে কোনো রাজনৈতিক দলই পরিষ্কার সংখ্যাগরিষ্ঠতা পাবে না বলে জানান দিছে জনমত জরিপ। ফলে যে রাজনৈতিক সঙ্কট থেকে দেশটি কয়েক মাস আগে উঠে দাঁড়িয়েছে, আবার সেই একই পথে যাত্রা করছে। এ খবর দিয়েছে অনলাইন মিডল ইস্ট মনিটর। এতে বলা হয়, পার্লামেন্ট বিলুপ্ত হওয়ার পর এ বছর শেষের দিকে সেখানে আরেকটি জাতীয় নির্বাচন হবে। সেই নির্বাচন নিয়ে পূর্বাভাষ বলছে, বর্তমান ক্ষমতাসীন জোট বা বিরোধী দলীয় নেতা ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহুর জোট কোনো পক্ষই পার্লামেন্টের ১২০ আসনের মধ্যে ৬১ আসনে সংখ্যাগরিষ্ঠতা পাবে না। এর আগে ক্ষমতাসীন জোটের কয়েকটি দলের পক্ষত্যাগের ফলে প্রধানমন্ত্রী নাফতালি বেনেট এবং তার পররাষ্ট্রমন্ত্রী ইয়াইর লাপিদ ইসরাইলি টিভিতে ঘোষণা দিয়েছেন যে, তারা পার্লামেন্ট বিলুপ্তির দিকে অগ্রসর হবেন। এর ফলে চার বছরের কম সময়ের মধ্যে পঞ্চম জাতীয় নির্বাচনের দিকে অগ্রসর হছে ইসরাইল। সরকারি প্রচার মাধ্যম ‘কান’ পূর্বাভাসে বলেছে, যদি এখনই নির্বাচন হয় তাহলে নেতানিয়াহুর বøক ৬০ আসনে জিততে পারে। অন্যদিকে ক্ষমতাসীন জোট পেতে পারে ৫৪ আসন। অন্যদিকে চ্যানেল ১২ নিউজ তার পূর্বাভাসে বলেছে নেতানিয়াহুর বøক পেতে পারে ৫৯ আসন। ক্ষমতাসীনরা পেতে পারে ৫৬ আসন। চ্যানেল ১৩ নিউজের পূর্বাভাস এক্ষেত্রে যথাক্রমে ৫৯ ও ৫৫। টাইমস অব ইসরাইলের মতে, মূল খেলোয়াড় হয়ে উঠবে আরব জয়েন্ট লিস্ট। তারা তাদের আসন নিয়ে কোনো পক্ষকেই সমর্থন করছে না। মঙ্গলবারের এই জরিপে দেখা যাছে, নেতানিয়াহুর লিকুদ পার্টির নেতৃত্বাধীন বøক সবচেয়ে বড় দল হয়ে উঠবে। তারা নিজেরা পাবে ৩৫ থেকে ৩৬ আসন। অন্যদিকে দ্বিতীয় সর্বোচ আসন পাবে ইয়াইর লাপিদের ইয়েশ আতিদ পার্টি। তারা পেতে পারে ২০ থেকে ২২ আসন। মিডল ইস্ট মনিটর।

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (2)
জহুরুল হক জায়েদ ২৪ জুন, ২০২২, ৭:০৯ এএম says : 0
সশস্ত্র নয়, গণতান্ত্রিক নিয়মেই একটি রাস্ট্রের রাজনৈতিক অবস্থান পরিবর্তন করা সম্ভব। এভাবেই কলোনিয়াল রাষ্ট্রগুলো হতে স্বৈরশাসকদের হঠানো সম্ভব হয়েছিল এবং এখনও এটাই একমাত্র মোক্ষম অস্ত্র।
Total Reply(0)
জহুরুল হক জায়েদ ২৪ জুন, ২০২২, ৭:০৯ এএম says : 0
সশস্ত্র নয়, গণতান্ত্রিক নিয়মেই একটি রাস্ট্রের রাজনৈতিক অবস্থান পরিবর্তন করা সম্ভব। এভাবেই কলোনিয়াল রাষ্ট্রগুলো হতে স্বৈরশাসকদের হঠানো সম্ভব হয়েছিল এবং এখনও এটাই একমাত্র মোক্ষম অস্ত্র।
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Google Apps