শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ০১ আষাঢ় ১৪৩১, ০৮ যিলহজ ১৪৪৫ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

আ.লীগ-বিএনপি বার বার দেশে স্বৈরতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করেছে : জি এম কাদের

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৭ আগস্ট, ২০২২, ৫:৫৯ পিএম

আওয়ামী লীগ ও বিএনপি বারবার সাংবিধানিক স্বৈরতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করেছে বলে মন্তব্য করেছেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান ও সংসদের বিরোধীদলীয় নেতা গোলাম মোহাম্মদ (জি এম) কাদের। তিনি বলেছেন, আওয়ামী লীগ ও বিএনপি বার বার সংবিধান সংশোধন করে দেশে সাংবিধানিক স্বৈরতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করেছে। এক ব্যক্তির হাতে সব ক্ষমতা, তিনি যা বলবেন সেটাই আইন। এটি কখনোই গণতন্ত্র হতে পারে না, এভাবে গণতান্ত্রিক চর্চা হতে পারে না।

আজ শনিবার (২৭ আগস্ট) দুপুরে বনানীতে জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যানের কার্যালয়ে বইয়ের মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন তিনি। জি এম কাদের বলেন, পল্লীবন্ধুর বিরুদ্ধে রাজনৈতিক প্রতিপক্ষরা অনেক মিথ্যাচার করেছে, কিন্তু সফল হয়নি। দেশের সাধারণ মানুষের হৃদয়ে পল্লীবন্ধু অক্ষয় হয়ে আছেন। এখন রাজনৈতিক বাস্তবতা হচ্ছে, গণতন্ত্র নিপাত যাক, আর স্বৈরতন্ত্র চালু থাক।

তিনি বলেন, তারা এরশাদকে দুর্নীতিবাজ বলে মিথ্যাচার করেছে। কিন্তু ক্লিনহার্ট আর ওয়ান-ইলেভেনের সময় দুর্নীতিবিরোধী অভিযানে পল্লীবন্ধু বা জাতীয় পার্টির কোনো নেতার বিরুদ্ধে কোনো মামলা হয়নি। আবার ১৯৯০ সালে ১ কোটি ৯০ লাখ টাকার জন্য পল্লীবন্ধু এরশাদকে দণ্ডিত করা হয়েছিল, পরে আদালতই রায় দিয়েছেন ওই টাকা জাতীয় পার্টির দলীয় টাকা। সেই টাকা জাতীয় পার্টিকে ফেরত দিতে নির্দেশও দিয়েছেন আদালত।

জাপা চেয়ারম্যান বলেন, আওয়ামী লীগ ও বিএনপি ৯০ সালের পর থেকে ক্ষমতায় গিয়ে দুর্নীতি করছে। ক্ষমতা হারালে প্রতিপক্ষ দুর্নীতির মামলা দেয়। পরে ক্ষমতায় গিয়ে সেই মামলা তুলে ফেলে। কিন্তু ওয়ান-ইলেভেনের সময় আওয়ামী লীগ নেতাদের নামে দুর্নীতির যে মামলাগুলো হয়েছিল, ক্ষমতায় এসে তারা সেই মামলাগুলো তুলে ফেলেছে। কিন্তু বিএনপি ক্ষমতায় যেতে না পেরে তাদের নামের মামলাগুলো তুলতে পারেনি।

তিনি বলেন, দুর্নীতি দেশের রন্ধ্রে রন্ধ্রে প্রবেশ করেছে। পদ্মা সেতু অর্ধেকটা উদ্বোধন হয়েছে, কিন্তু এখনো রেলসেতু চালু হয়নি। পদ্মা সেতুতে বিদেশি ঋণ আছে, এটি নিজস্ব অর্থায়নে তৈরি হয়নি। পদ্মায় রেলসেতু উদ্বোধন করতে আরও অনেক অতিরিক্ত টাকা ব্যয় করতে হবে। অনুষ্ঠানে উপস্থিতি ছিলেন পার্টির কো-চেয়ারম্যান এবিএম রুহুল আমিন হাওলাদার, কাজী ফিরোজ রশীদ, সৈয়দ আবু হোসেন বাবলা, প্রেসিডিয়াম সদস্য সাহিদুর রহমান টেপা, ফখরুল ইমাম, সুনীল শুভ রায়, মীর আব্দুস সবুর আসুদ প্রমুখ।

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন