শনিবার, ০৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ২১ মাঘ ১৪২৯, ১২ রজব ১৪৪৪ হিজিরী

সারা বাংলার খবর

বান্ধবীকে নিয়ে পালিয়ে যাওয়াতে প্রেমিকের উপর রাগ করে প্রেমিকার আত্মহত্যা

গোয়ালন্দ (রাজবাড়ী)থেকে স্টাফ রিপোটার | প্রকাশের সময় : ১২ নভেম্বর, ২০২২, ৫:৩৯ পিএম

নিজের প্রেমিক তার বান্ধবীকে নিয়ে রাতে পালিয়ে যাওয়ায় সকালে মাকে চিরকুটে নিজের আত্নহত্যার প্রতিশোধ নেওয়ার কথা বলে রুমি আক্তার (১৬) নামে এক স্কুল ছাত্রী আত্মহত্যা করেছেন। ঘটনাটি ঘটেছে রাজবাড়ী জেলার গোয়ালন্দ উপজেলার দৌলতদিয়া ইউনিয়নের পরেশউল্লাহ পাড়ার বদু প্রামানিকের মেয়ে। সে স্থানীয় শাহাজদ্দিন মন্ডল ইন্সটিটিউটের দশম শ্রেণির ছাত্রী।

পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, প্রেমিক শিমুল রাজবাড়ী সদর উপজেলার কুলার হাটের বাসিন্দা। তার বান্ধবী শারমিন আক্তার একই এলাকার পরশউল্লা পাড়ায় বসবাস করে।

রুমির চাচা আমজাদ হোসেন জানান,
অন্যান্য দিনের মতো আজ শনিবার (১২নভেম্বর) ভোর ছয়টায় ঘুম থেকে উঠে রান্না করে রুমি। এরপর তার মা শাহেদা বেগম তার বাবার জন্য ভাত নিয়ে বাড়ির পাশে মাঠে যায়। আধাঘন্টা পরে এসে দেখে রুমি সকাল আটটার দিকে ঘরের আড়ার সাথে উড়না পেচিয়ে ঝুলছে। চিৎকার করলে আশেপাশের লোকজন এসে তাকে আড়া থেকে নামায়। এসময় মেয়ের পায়ের নিচে ডায়েরি ও চিঠিপত্র পাওয়া যায়। এর মাধ্যমেই তারা ঘটনা জানতে পারে। মৃত্যুর আগে একটি চিরকুট লিখে যায় রুমি। চিঠিতে লেখা ছিল, আমি শিমুলকে অনেক ভালোবাসি আর শারমিন ছিল আমার প্রিয় বান্ধবী।
শিমুল শারমিনকে নিয়ে চলে গেছে এই কষ্ট আমি সহ্য করতে পারছি না। আমি কিভাবে মুখ দেখাবো। ও এত বড় বেঈমানী করতে পারলো। শিমুলের সাথে আমার যত কথা হয়েছে সব রেকর্ডিং আছে। মা আমাকে মাফ করে দিও। শিমুলকে শাস্তি দিও, তা নাহলে আমার আত্মা শান্তি পাবে না।
চিঠিতে আরও লেখা হয় আমার মৃত্যুর জন্য দায়ী শিমুল আর শারমিন। আমি পৃথিবীর সব মায়া মমতা ত্যাগ করে চলে যাচ্ছি। তোমাদের জন্য কষ্ট হচ্ছে। আামাকে ক্ষমা করে দিও মা। আমি তোমাকে অনেক ভালোবাসি। ওদেরকে শাস্তির ব্যাবস্থা করো। সরি মা।

গোয়ালন্দ ঘাট থানার ওসি স্বপন কুমার মজুদার বলেন, প্রেমের সম্পর্কের পর তার বান্ধবী কে নিয়ে পালিয়ে যাওয়ায় ওই তরুণী আত্মহত্যা করছে বলে জানা যায়। মরদেহ উদ্ধার করে মর্গে পাঠানো হয়েছে। এই ঘটনায় আত্মহত্যা প্ররোচনার অভিযোগে মামলার প্রস্তুতি চলছে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন