ঢাকা, সোমবার, ১৪ অক্টোবর ২০১৯, ২৯ আশ্বিন ১৪২৬, ১৪ সফর ১৪৪১ হিজরী

অভ্যন্তরীণ

চাকরি দেয়ার প্রলোভন দেখিয়ে প্রতারক চক্রের বাণিজ্য

প্রকাশের সময় : ২৬ মার্চ, ২০১৬, ১২:০০ এএম

কালকিনি (মাদারীপুর) উপজেলা সংবাদদাতা
মাদারীপুরের কালকিনি উপজেলার নবগ্রাম এলাকায় চাকরি দেয়ার প্রলোভন দেখিয়ে গ্রামের সহজ-সরল মানুষদের সর্বস্বান্ত করে ৩ লক্ষাধিক টাকা হাতিয়ে নিয়েছে একটি প্রতারক চক্র। গ্রামের সুচতুর সন্ধ্যা রানী মন্ডল নামের এক মহিলা উক্ত চক্রের সাথে মিলে প্রতারণা করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এনিয়ে গ্রামের সাধারণ মানুষের মধ্যে চরম ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। ভুক্তভোগীরা জানায়, সড়কে গাছ রোপণ ও তা রক্ষণাবেক্ষণের কাজে চাকরি দেয়ার জন্য নবগ্রাম গ্রামের অন্তত ৫০জন নারী পুরুষের কাছ থেকে ৭হাজার থেকে ১০হাজার করে নগদ অর্থ উৎকোষ গ্রহণ করে সন্ধ্যা রানী মন্ডল। কিন্তু দিনের পর মাস আর মাসের পর বছর গেলেও তাদের চাকরি দেয়া থাক দূরের কথা এমনকি তাদের দেয়া অর্থও ফেরত দেয়া হচ্ছে না। এনিয়ে ভুক্তভোগীরা চাঁপ প্রয়োগ করলে সন্ধ্যা রানী মন্ডল তাদের গ্রামের একটি সড়ক দেখিয়ে দিয়ে তা পরিষ্কার করতে বলে এবং আগামী মাসে বেতন দেয়া হবে বলে আশ্বাস দেয়। চাকরি প্রার্থীরা সেই সড়ক পরিষ্কার করলেও তাদের বেতন দেয়া হয় না। ফলে তারা বুঝতে পারে এটি পরিকল্পিতভাবে তাদের সাথে প্রতারণা করা হয়েছে। এ নিয়ে ক্ষোভের সৃষ্টি হলে সন্ধ্যা রানী মন্ডল নানা তালবাহানা শুরু করে। এ ব্যাপারে ভুক্তভোগী শিক্ষা মধু, চপলা বাড়ৈ, সাবিত্রী বাড়ৈ, নমিতা বাড়ৈ, তপন বাড়ৈ, মনষ বাড়ৈ সহ ২০/২৫জন গ্রামবাসী অভিযোগ করে বলেন ‘আমাদের চাকরি দেয়ার কথা বলে সন্ধ্যা রানী টাকা নিয়েছে। আবার মিথ্যা কথা বলে কাজও করিয়েছে। কিন্তু এখন বেতন থাক দূরের কথা আমাদের থেকে নেয়া টাকাও ফেরত দেয়া হচ্ছে না।’ এ ব্যাপারে সন্ধ্যা রানী মন্ডল বলেন ‘আমি একটি প্রতিষ্ঠানের এক কর্মকর্তার প্রলোভনে চাকরি দেয়ার কথা বলে কয়েক জনের কাছ থেকে টাকা নিয়ে ছিলাম ঠিকই। তবে আমার সাথেও সে প্রতারণা করেছে। এর পরেও আমি আস্তে আস্তে সকলের টাকা পরিশোধ করছি।’

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন