বৃহস্পতিবার, ৩০ জুন ২০২২, ১৬ আষাঢ় ১৪২৯, ২৯ যিলক্বদ ১৪৪৩ হিজরী

অভ্যন্তরীণ

দৌলতপুরে সড়ক সংস্কারে অনিয়ম এলাকাবাসীর প্রতিবাদ, কর্তৃপক্ষের নীরব ভূমিকা

প্রকাশের সময় : ২৭ মার্চ, ২০১৬, ১২:০০ এএম

দৌলতপুর (কুষ্টিয়া) উপজেলা সংবাদদাতা

দৌলতপুরে সড়ক ও জনপথ বিভাগের আওয়তায় দৌলতপুর থানা বাজার থেকে আল্লারদর্গা বাজার পর্যন্ত সড়ক সংস্কার কাজে ব্যাপক অনিয়ম ও নি¤œমানের কাজের অভিযোগ উঠেছে। দায়সারাভাবে কাজ করার কারণে অতি নি¤œমানের সড়ক সংস্কার কাজ হওয়ায় সাধারণ জনমনে তীব্র ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। তাই ভুক্তভোগী এলাকাবাসী কাজের মান দেখার জন্য জেলা প্রশাসকের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন। এলাকাবাসীর অভিযোগ, সড়ক ও জনপথ বিভাগের আওতায় কুষ্টিয়ার ভেড়ামারা সাতবাড়িয়া থেকে দৌলতপুর থানা বাজার পর্যন্ত প্রায় সাড়ে ১৫ কি.মি. সড়ক সংস্কারের জন্য ৬ কোটি ৭০ লাখ টাকা ব্যয় ধরা হয়। কাজের সংশ্লিষ্ট ঠিকাদার সড়ক সংস্কার কাজে দরপত্রে উল্লেখিত চাহিদা মোতাবেক পিচ, খোয়া ও থিকনেচ না দিয়ে নিজের ইচ্ছামত নি¤œমানের কাজ করে যাচ্ছে। যার ফলে বছর না যেতেই সড়কটি যে দুরবস্থার মধ্যে ছিল তার পুনরাবৃত্তি ঘটবে। সাইদুল নামে এক ব্যক্তি অভিযোগ করেন, সড়কের কাজে পিচ ও খোয়া কম দেয়া হচ্ছে। সড়কের দুই পাশের পোঁতা ইট সঠিকভাবে না পুঁতে কোন রকম দায়সারা ভাবে কাজ করা হচ্ছে। এমনকি সড়কের মধ্যে খানা খন্দক না ভরে গর্তের মধ্যে নাম মাত্র খোয়া দিয়ে দায়সরাভাবে রোলার করছে, যা মাত্র ১৫ দিনের ব্যাবধানে সড়কের বিভিন্ন স্থানে আকাবাকা ও ঠেউয়ের সৃষ্টি হয়েছে, সৃষ্টি হয়েছে গর্তের। যার কারণে সড়কের পিচ খোয়া ও উঠে যাওয়ার মত অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। বিশেষ করে আল্লারদর্গা বাজার থেকে দৌলতপুর থানার মোড় পর্যন্ত সংস্কার করা নতুন সড়কে এমন দৃশ্য দেখা যাচ্ছে। এদিকে বৃহস্পতিবার উপজেলা বাজারে নি¤œমানের কাজ করার সময় এলাকাবাসী প্রতিবাদ করলে সেখানে তোপের মুখে পড়েন সংশ্লিষ্ট ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের লোকজন। এ বিষয়ে দৌলতপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার জানান, বিষয়টি দেখে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য কুষ্টিয়া সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলীকে অবগত করা হয়েছে। প্রায় ৭ কোটি টাকা ব্যয়ে সদ্য সংস্কার হওয়া এ সড়কটি আগামী বর্ষা মৌসুমে যানবাহন চলাচলের পর টিকে থাকবে কিনা তা নিয়ে সংশয় প্রকাশ করেছে এলাকাবাসী। তাই বিষয়টি জরুরি ভিত্তিতে দেখে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য জেলা প্রশাসকসহ সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন এলাকাবাসী।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Google Apps